পাতা:বাঙ্গলা ব্যাকরণ - লোহারাম শিরোরত্ন.pdf/১৭০

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে চলুন অনুসন্ধানে চলুন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা হয়েছে, কিন্তু বৈধকরণ করা হয়নি।

বাঙ্গলা ব্যাকরণ।

১৬১

গন্ধি, পদ্মগন্ধ। এইরূপ; ঘৃতগন্ধি, ঘৃতগন্ধ ইত্যাদি।

 সমাসের পূর্ব্বপদস্থ কু[১] শব্দের পর স্বরবর্ণ থাকিলে কু শব্দ স্থানে কৎ হয়, কিন্তু পুরুষ ও পথ শব্দ পরে থাকিলে উহার স্থানে বিকল্পে কা হয়। যথা; কু-অন্ন, কদন্ন; কুআচার, কদাচার; কু-উষ্ণ; কদুষ্ণ; কু-অগ্নি, কদগ্নি। কু-পুরুষ, কাপুরুষ, কুপুরুষ; কু-পথ, কাপথ, কুপথ।

 জ্যোতিঃ, জনপদ, রাত্রি, নাভি, বন্ধু, গন্ধ, পিণ্ড, কুক্ষি, বেণী, ব্রহ্মচারী, তীর্থ, পত্নী ও পক্ষ শব্দ পরে থাকিলে সমাসে সমান শব্দ স্থানে স হয়। সমান জ্যোতিঃ যার, সে সজ্যোতিঃ। এইরূপ; সকুক্ষি, সনাভি, সবন্ধু, সগন্ধ, সপিণ্ড, সপক্ষ, সতীর্থ ইত্যাদি।

 রূপ, নাম, গোত্র, স্থান, বর্ণ, বয়ঃ, বচন, উদর, ধর্ম্ম ও জাতীয় শব্দ করে থাকিলে সমান


  1. অগ্নি ও উষ্ণ শব্দ পরে থাকিলে কু স্থানে কা ও কর আদেশও হইয়া থাকে। যথা; কোষ্ণ, কবোষ্ণ। আর অক্ষি শব্দ পরে থাকিলে উহার স্থানে কা আদেশ হয়। যুথু; কাক্ষ।