পাতা:বাঙ্গালীর গান - দুর্গাদাস লাহিড়ী.pdf/৩১৭

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


দাশরথি রায় । दि(दिल्ले-म९,भॉन । আয়ু আয় কোলে, ডাক মা বলে রে । ভূমিষ্ঠ অবধি কৃষ্ণ! হারাই হারাধন তোরে। আয় হেরি হারাণে-সোণ !— এই দেখ বুকে, ও তোর শোকের উপর যাতনা, পাষাণ ভুলে বাচাও ও নীল-বরণ। পাষাণ-জ্বালা জননীরে। ঐ দেখ কঁদিছে বসু, আর কোথা রে— দেখা দে রে অমূল্য বস্তু! বধিলে বধ রে—ও মাধব ! আসি কংসাচুরে ॥ খট-ভৈরবী—একতাল।। ম, আজি কর ত্রাণ, কাতর সস্তান, বড় বিপদে পড়ে ঈশানী। যে ধন সাধন ক'রে তোরে, পেয়েছিলাম ঘরে, কৃষ্ণধন অমূল্য রতন, নিল যজ্ঞস্থলে আমার সে নীলমণি ॥ গোকুল আকুল গোকুলচন্দ্র হয়ে হার, যে নন্দন নন্দরাণীর নয়ন-তারা, ত্রিনয়নী ত্রিনয়নের নয়ন-তারা, আমার নয়নতারার তার তারিণী । এ ধন নিধন হ’য়ে কি ধন ল’য়ে যাব, গোধন চরাইতে এ ধন কোথা পাব, কি ধন দিয়ে যশোদারে বুঝাইব, তারিণি গো, তার নিধন প্রাণী ॥ জঙ্গলা—একতাল। ওরে ভাই কানাই! শুনলাম তুই নাকি আর যাবিনে খুন্দাবনে। ও তোর ধেনু কে চরবে, বেণুকে বাজাবে, কে বাচাবে বনে সে বিষ-জীবনে ॥ । আমরা ছিদামাদি যত, তোর অনুগত, ও ভাই কানু, তাতে জান তোমনে। ছি ভাই, ভাঙ্গলে কেন, ওহে রাখালরাজ, ব্রজের ধূলা খেলা (ছি ভাই ভাঙ্গলে কেন) (আর তো হবে না ) ( হ’লে এ জন্মের মত) বল কি অপরাধ হ’লে তোর রাঙ্গা চরণে ॥ ऐ२,4 W ললিত-ঝিঝিট—একতাল।। বসিলেন কোলেতে হরি নদের হরিতে মায়া। ধরিলেন শ্রীগোবিন্দ মোহিতে মোহিনী-মায়া ॥ যে মায়ায় মোহিত আছে বিধি-পঞ্চানন, । যে মায়ায় মোহিত জীবের মহীতে ভ্ৰমণ, যে মায়ায় যোগীন্দ্র-ইন্দ্র-মোহ মোহমায়া । জ্ঞান-গৌদামিনী নন্দের উদয় অস্তরে, বলে, রে গোবিন্দ, তুমি থাক মধুপুরে, নন্দে ত্যজি সদানন্দে রবি রে সাদরে, বারেক দিওরে দেখা, গিয়ে যশোদারে, ত্য জব যখন আমরা জীবন মাঃ ॥ সুরট-মল্লার—একতাল । কোথায় রহিলি রহিলি সুত, রাখলের জীবন নন্দমত । ও তোর শোকে রে গোবিন্দ । নিরানন্দ নন্দ, জীবনে জীবন্মুত । জীর্ণ লীর্ণদেহে শুন্য হিতাহিত, নয়নাম্বুজ নয়নায়ু যুত, পুত্র হয়ে করলে হিতে বিপরীত, পিতায় ক'রে তাপিত । তপন-তনয়া-তীরে-নীরে তোর, কাদে পিতা নন্দ শোকেতে কাতর, কভু কন্দে ভূমিতে, কভু বা ত্যজিতে— জীবনে জীবনোদ্যত। একবার পরকালের কালে দরশন, দে রে আসি কৃষ্ণ, পরকালের ধন। বরি দেরে মুখে বারিদ-বরণ। মরণ-কালে য। হিত ॥ for–យ៉« কৃষ্ণ-শুষ্ঠ গেরি গোকুলে । চৈতন্যরূপিণী পড়েন অচৈতন্ত ধরাতলে ৷ দেখে বৃন্দে আলি ধরে, বাক্য ন সরে অধরে, জলদের জল ঝরে, জল ঝরে আঁখি-যুগলে। এ বিকার নিৰ্ব্বিকার, কে করে বিনে নিৰ্ব্বিকার, আছে আর সাধ্য কার, অধিকার এ ভূমণ্ডলে ॥ b