পাতা:বাঙ্গালীর গান - দুর্গাদাস লাহিড়ী.pdf/৩৩০

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


২৩৮ কহিছে শিখরী কি করি, অচল । নাহি চলাচল, হ’লাম হে অচল, চঞ্চলার মত জীবন চঞ্চল ;– অঞ্চলের নিধি পেয়ে হারালো | দেখা দিয়ে কেন হেন মায়া তার ! মায়ের প্রতি মায়া নাই মহামায়ার, আবার ভাবি, গিরি ! কি দোষ অভ্যুর, পিতৃদোষে মেযে পাষাণী হ’লে । Φωwωπmmnυφ জালিয়—কাওয়ালী । গিরি হে! গিরিশপুরে দ্রুত যাও। বড় বাকুল পরাণী, উমা পরাণ-নন্দিনী, হর-স্বরণী ঘরেতে মিলাও ৷ সম্বংসর হলো গত, সময় হলে অবগত, ওষ্ঠাগত প্রাণে বঁচিনে—dচাও । শৈল ! যাও হে শৈল । যাও, মেয়ে এনে অঙ্গনে, হুঃখিনীর দুৰ্গতি দুচাও। বিনে জীবন-কুমারী, ভুবন তিমির হেরি, ভবনে ভুবনেশ্বরীরে দেপাও । করে আরাধন, মহেশ-তারাধন, এনে বাসে উভয়ের বাসনা পুরাও । গেীরীর বিচ্ছেদগুন, দহিছে জীবন মন, জানি গুণ,—যদি আগুন নিবাও । জয়জয়ন্তী-কাওয়ালী। তোমর কেউ দেখেছ রে ভাই ! কেউ না কি জন ঠারে। এ পথে মোর জগদম্ব মাগেল কত দূরে। চিহ্ন কৈ পদ দুখানি, তরুণ অরুণ জিনিরে। দিলে বিধু খণ্ড ক'রে, বিধি চরণ নধরে। ম। আমার কৈলাসকত্ৰী, গতি-হীনের গতি-দাত্রী, দণ্ডি-ঘরে অধিষ্ঠাত্রী, চণ্ডী নাম ধরে ॥ আমাদের সেই জননীক্ষে, মা বলে জণতে ডাকে রে! ক্টরে না জানে—কে জগংছাড়া জগতে আছে রে ॥ கம் wo বাঙ্গালীর গান ৷ ললিত-ঝিঝিট-ঝাঁপতাল । কৈ হে গিরি। কৈ সে আমার প্রাণের উমা নন্দিনী । সঙ্গে তব অঙ্গনে কে এলো রণরঙ্গিণী ॥ দ্বিভূজ বালিকা আমার উমা ইন্দুবদনী, কক্ষে ল’য়ে গজানন, গমন গজগামিনী, ম বলে মা! ডাকে মুখে আধ আধ বাণী ॥ এ যে করি-আরিতে করি ভর, করে করিছে রিপু-সংহার, পদভরে টলে মহী মহিষনাশিনী,— প্রবল প্রখর মেয়ে তনু কাপে দরশনে, জ্ঞান হয় ত্ৰিলোক ধন্য ত্ৰিলোক-জননী ॥ ললিত-ঝিঝিট-ঝাপত,ল । বাঞ্ছা কিছু পূর্ণ তবে হয় হয়-মহিৰ্ষি। রয় যদি মা ! শত যু: এ সুখ-সপ্তমী-নিশি। মনের মনসে তবে ওমা সৰ্ব্বমঙ্গলে ! পূজি পদ বিত্বদলে, জব জাহ্নবীর জলে, মরি শেষে মোক্ষ পদ হয়ে অভিলাষী। এসো তিন দিনের কারণ, নহে খেদ-নিবারণ, আশু ল’য়ে যায় গে৷ মা ! আগুতোষ আসি ॥ তুমিতে আপন বশ নও জনি মা অভয়ে । হর-বাসে হুর-বশে হর কাল হরপ্রয়ে! শ্মশানেতে ল’য়ে যাবে সে শশান-নিবাসী ॥ | ঝিশ্মিট - একতাল।। গিরি! যার তরে হে আমি পুজিলাম গুম।। কৈ মোর শশিধর-প্রিয়ে উধা-শশী, ষোড়শী অতসী কুসুম সম । তুমিতে সেই দুঃখ–ভঞ্জিনীর চাদমুখ, নিরখিয়ে দৃখ হয়েছে তব ভঞ্জন, হে রাজন। বল কি দোষ পেয়ে, আমার সে নিদয়া মেয়ে,— হয় তোমারে সদয়া আমারে বাম। দাশরথি বলে দেখবি যদি মেয়ে, দুনয়ন—মুদিয়ে হৃদি-পদ্মাসন কর অন্বেষণ, ঠারে অন্বেষণের তরে, কাজ কি অন্ত ঘরে, অস্বরে বিহরে সে হররম।