পাতা:বাঙ্গালীর গান - দুর্গাদাস লাহিড়ী.pdf/৪৪০

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


\ხვხ হেরিবেন জীবন-শৃষ্ঠ দেহ ॥ হইলে শব বান্ধি গে। সব রাখিস তমালে; এলে কেশব বলিস ঐ শব, বন্ধ আমলের ডালে যদি কেশব, চাহে এ শব, তোরা তাহ দিবি কি সব, বলিস্ বান্ধ, আছে সে শব, যে শব কেশব তুমি চাহ ॥ মৃত্যঙ্গ ত্রিভঙ্গ যদি পুনরায় দেখে, তবে সঙ্গ পাব যদি এ অঙ্গ থাকে, যেরূপে মুতাঙ্গ হরে, লয়েছিল কান্ধে করে, স্থদন বলে, সেই প্রকারে, লবে এই মৃতদেহ ॥ ভৈরবী - ঢ়িম-কাওয়ালী | যোগী হতে কি বাকী, যোগে যাগে হলেম যোগী, সদা কুষ্ণতত্ত্বে মত্ত হয়ে মৰ্ত্ত্যে থাকি, তত্ত্বজ্ঞানী অনুরাগী । আর আমারে সাজাবে কি, সেজে যে আছি, (হাগো) ব্যাঘ্ৰচৰ্ম্ম বিনা শুষ্কচৰ্ম্ম পরেছি, ( সখি ) অস্থিমালার তরে অস্থি সার করেছি, ( সখি ) অস্থিমালা তার ভাবনা কি ৷ হরি সেঞ্জেছিলেন যোগী মান বিষাদে, আমারে সাজালেন যোগী পেড়ে প্রমাদে, মধুসূদন আনতে স্থদন হওনা উদূযোগী, আর কবে যোগী । கண்க জয়জয়ন্তী—টিমা-কাওয়ালী। দৃতী যদি যাবে মধুপুরে, আগে ভাই বলে না পুরে ভূপতি সে বনে আছেন পুরে। চিনবে না সে চিন্তামণি একে ত চিন্তামণি, তাতে পেয়েছে রমণী, যার মণি চরণনপুরে । যদি বলে চিনি নে রাই কোথা সে গোকুল, তবে বল যে গোকুলে চরাতে গোকুল, যখন ছিলে বৃন্দাবনে, বৃন্দা গিয়ে বস্ত বনে, জান না নিকুঞ্জবনে, সাধিতে হে যুগল করে ধরে যদি একবার না চায় ফিরে, না এলো ফিরে, বলে তারে ফিরে ফিরে, বাঙ্গালীর গান। যাতে সে ফিরে, সামুকুলে চাও হে ফিরে, চল হে গোকুলে ফিরে, রাই বাচায়ে এস ফিরে, স্থদনে দেও দেখা ফিরে । πumΕπωmη"φως" ভৈরবী—ঢ়িম-কাওয়ালী । দেখ না ও কে নারী, ঐ যে যমুনা কিনারী। দেখি নাইক এমন নারী, চেয়ে দেখ নারী, ও নারী চিনতে নারি ॥ যে নগর এসেছে তারি তরে এ নারি, এ নারী কেমন নারী বুঝিতে নারি, কুল ছেড়ে আকুলে ভাসে একা নারী, ও নারী কেমন নারী, মনে অনুমান করি, ব্রজনারী এ নারী হেবে পলাবে কুজা নারী, সূদন কয় চেন ন নারী, গোকুলে যে নারী সে নারীর দাসী এ নারী ॥ ாம்காறம் সিঞ্চিট—মধ্যমান । ভাব যে দহি এ নয় সে দহি । কেবল ব্ৰজগোপীর প্রাণ দহি ॥ কি হবে তোমাকে কহিলে, এই দহিতে প্রাণ দহিলে, তাইতে বলি দহিলে দহিলে ;— এলেম দহিতে দহিতে, আর না পারি সহিতে, দহিলে দহিলে দহি ॥ শুন বলি পদাতি এ সমান্ত দধি নয়, দেখিতে দধি খেতে অনল, খায় তারে খায়, খেয়েছিলাম দধি বলে, এখন দেখি অনল জ্বলে, সদা যে বলে দহিলে, দধি নয় সে এমি অনল গোকুলে, হচ্চে দাবানল সেই অনল এনেছি নয় দহি ॥ দহির কথা করে কহি, শুন ওরে তোরে কহি, দহির কথা কইতে আর অন্তর দহি, যার দহি তায় ফিরে দিব, আমাদের মন ফিরে লব, কেমন দহি তারে জানাল ; বলিব সে কানু ঘোষেরে, দধি খেলে মানুষ মরে স্বদন কয় দেখাব যে দহি ৷