পাতা:বাঙ্গালীর গান - দুর্গাদাস লাহিড়ী.pdf/৬১৩

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


i. শিবাজ ব্যাব। আজ, সে অঙ্গে রুধিরধারাঞ্চেমনে যায় ধৈর্য্য ধরা এই সব দেখাবে বলে গিরি কি আনলে উমা। ও মা, কৈলাসের সেই দুখের বাৰ্ত্তায়, সুখের সংবাদ দিলি ভাল, এমুখ চেয়ে সে দুখ আমার শতগুণে ছিল ভাল, বেতাদের এই কি কাজ, ছিছি একটু হয় না লাজ, ওদের,স্তবের মাথায় পড়ুক বাজ, পুর্ণ প্রবঞ্চনায়। আমার মেয়ে নইলে ওঁদের রাজ্য উদ্ধার হয় না, একৃবারে নয়, কুবারে নয়, বারে বারে এই লাঞ্ছনা কখনৃ কোন ঘোর সঙ্কটে, বাছার আমার কিবা ঘটে, ভাবতে হৃদয় ফাটে এ দুঃখ বলিবা কায় ॥ জন্ম-জন্মান্তরে কত শক্রতা আমার ছিল, সেই বাদ সাধিতে বিধি দেবতাদের বুদ্ধি দিল ; ভাগ্যে সঙ্গে সিংহ ছিল, নাগপাশে অসুর বাধিল তাই ত উমা ফিরে এল, নইলে কি হ’ত হয়। ] দেবতাদের রাজ্য গেগ, তোর তাতে কি ক্ষতি মা, তুই কেন তোর মায়ের মাথা, খেতে রণে গেলি উমা; তুই, দৈত্যের বুকে কোন সাহলে, ত্ৰিশূল হান্‌লি অনায়াসে, বল দেখি কি হ’ত শেষে, অমুর রুধিলে তার ॥ কি জানি তুই কি বিষাদে, সাধ করে বাস্ করিতে রণ, কারণ কিছু বুঝিনে ণ্ডার, কিন্তু দেখি আমার মরণ ; অথবা এ অম্বুরবধে মায়ের মরণ যাস্ সাধিতে, তোর প্রস্থতির যে দুৰ্গতি, প্রস্থতি জেনেছে তার। *ीं★ण इन शब्रिअ इन . জামাই আমার হির্বিকার, সেই জামাইয়ের সঙ্গে থেকে, তোর কি এত ক্ৰোধ বিকার, জে শিবচন্দ্র বলে,ডোর মেয়ের গুণ কেবা বলে, l { $ { t ...উনি লেই আমাদের বুকে চড়ে [ཙཱ་ :ཀ་དང་། གྲྭ་ག་། je zoo. . . * . " هـ ‘. . . . ... . f . , . . ●ቚ> গৌরী—ঙেভাল । সাধে কি মা আমি যাই সমরে । আমারে দেখিয়ে তোমার প্রাণ কেমন করে। আমার প্রতি যেমন তোমার, স্নেহসোহাগ গিরিদার । এই, ত্রিভুবন-সন্তানে মাগে, আমারও হয় তেমিধারা, দুৰ্দ্দাস্ত অসুরের ভয়ে, কাপে সন্তান সভয় হয়ে, আমি, শাস্ত হয়ে কৈলাসে মা, থাকি কেমন করে ॥ দুৰ্গমে পড়িয়া যখন দুর্গ বলে ডাকে লোকে, আমি, থাকৃতে নারি কৈলাসপুরে, কি বৈকুণ্ঠ ব্ৰহ্মলোকে ; এতে যে যা বল, বল, মা তোমার সে মায়ার ছল, আমি, নিজে হয়ে মহামায়া, সে মায়া ছাড়ি কি করে। শত্রু মিত্র কেহ আমার, নাই মা কভু কোন লোকে, যত দেখ যত্র অত্র, পুত্র আমার সব ত্রিলোকে ; · আমি কোলে করে আছি সবায়, কোল-ছাড়া কেউ নাই মা, হেথায়, আমি কারে ফেলে দিব কোথায়, আমিই যে সব চরাচরে ॥ তবে যে মহিষাসুরে বিঁধেছি মা এ সমরে, ওত বধ করি নাই কোলের ছেলে, কোলে নিয়েছি আদরে ; যেমন আমার কাৰ্ত্তিক গণেশ, তেমি মহিষ নাই মা বিশেষ, ওত শিরশেছদ নয় পশুপাশে, দিয়েছি মোচন করে। } নাগপাশ বেঁধেছি বলে, মনে কিছু ক'র না তা, সংসারের পাশ কটে যে জন, - আমার পাশের বন্ধতায় ; আমি, এইরূপেই তার ঘটাই বন্ধন, সৰ্প হয় সৰ্ব্বঙ্গে ভূষণ, o