বিষয়বস্তুতে চলুন

পাতা:বারীন্দ্রের আত্মকাহিনী - বারীন্দ্রকুমার ঘোষ.pdf/১০৮

উইকিসংকলন থেকে
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।

Abr বারীদ্রের আত্মকাহিনী ছত্রিশ মন্দরামে মিলিয়া মনের সুখে বক বকম কম করা যাইত, আর পুনশ্চ প্ৰভাতের নবমিলনের আশার স্বপন দেখিয়া কুঠুরীর মাঝে নিশা যাপন করা যাইত । দায়রায় বিচারকালে অতি দীর্ঘ দিবস, মাস এই আনন্দমেলা বসাইয়া বসাইয়া দিনগুলি মন্দ যায় নাই, অনেকেই আমরা মাথার উপর উদ্যত আসন্ন ন্যায়-দণ্ড আনন্দের আতিশয্যে চোখেই দেখিতে পাই নাই। বিশেষতঃ সেই ক’জন আমরা বহির্জগৎটাকে একেবারে মুলতুবী রাখিয়া আনন্দের ঘর গড়িয়াছিলাম। যাহারা সাধন ভজন লইয়া থাকি,তাম, তাহার মধ্যে সর্বাগ্রেগণ্য ছিলেন অরবিন্দ, আপন যোগে আপনি মগ্ন ; তাহার পর ছিলাম। আমি, দেবব্রত, বিজয় নাগ, নরেন বক্সী, শচীন সেন, ও আর দু’। একজন। বাকী সকলে ছিল হল্লাবাজ “কে-কার-কড়ি-ধারে’র দল ।