পাতা:বিক্রমশিলা.djvu/৩১

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে চলুন অনুসন্ধানে চলুন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।

( ২৩ } পথের মাঝে থমকে দাড়িয়ে যাকে সামনে পায় জিজ্ঞাসা করে“বিক্রমশিলা কোথায় বলতে পার ?” কেউ হয় তা বলে-“অত শিলাটিলা বুঝি না বাপু, অন্য লোককে জিজ্ঞাসা কর।” আবার কেউ হয় তা বলে-“তোমাদের কিচিরমিচির ভাষাই বুঝি না। তা জবাব দোব। কি ?” কেউ দয়া করে বলে দেয়-“ঐ রাস্তা দিয়ে মেঠো পথ ধরে যাও, ঠিক পৌছতে পারবে।” এমনি করে জিজ্ঞাসা করতে করতে যাত্রীর পথ এগিয়ে চলেছে। সন্ধ্যার সময় তার হাজির হল এক গ্রামে । তারা ভাবলে গ্রামে কোথায়ও আশ্রয় নেবে। একজন বৃদ্ধিলোকের সঙ্গে দেখা হতে, দলের সরদার তাকে বল্লেন--“আজকের রাত্রের মত এ গ্রামে আমাদের আশ্রয় হতে পারে কি ?” বৃদ্ধ একটু ভেবে বল্লেন-“আপনারা কে ? আপনাদের কথায় বোধ হচেছ আপনারা বিদেশী । কোথা থেকে আসচেন আপনারা ?” “হঁ, আমরা বিদেশী। আমরা আসছি হিমালয়ের ওপার ভোট দেশ থেকে ।” “ও, এত দূর দেশে থেকে আসছেন। আপনারা । কোথায় যাবেন ?” “বিক্রমশিলার মঠে।” “সেও তা এখান থেকে অনেক দূর। আপনারা কতজন আছেন ?” “8 olde Taa ”