পাতা:বিটকেলের দপ্তর - বিপিনবিহারী বসু.pdf/১১

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


বাঙ্গালি সাহেব । న যাইতে চাছিলেন। আমি দাড়াইয়া আছি দেখিয়া বন্ধু বলিলেন "বিট্‌কেল, দাড়িয়ে যে ? আমি বলিলাম “না—যাচ্চি। আপনি এখানে যে ?” বন্ধু বলিলেন, "ওকি ? “আপনি মশাই’ বলে কথা কওয কি রকম ? আমরা এখানে একজন ক্লায়েণ্টের বাড়ী এসেছিলুম।” আমি বলিলাম আমি আপনার বাড়ীতে যে দিন যাই সে দিন আপনাকে এক রকম দেখি আর আজ অার এক বকম দেখছি—আজি মনের কপাট একেবাবে খোল। “ছহু’ করছে। সেই বিষয় ভাবিতেছিলাম।” বন্ধু হাসিয়া বলিলেন “বিটকেল । চাই চাই চাই ওসব চাই, তা না হলে প্রোফেসন মাটি হবে । বিট্‌কেল । তুমি একদিন ‘এসিয়া মাইনরে আসিয়! আমাদের কারখানা দেখে যেও । সেখানে আমাদের দেখিলে ভয় পাবে, সহসী কাছে আসিতে সাহস হইবে না, ভক্তি করিতে ইচ্ছা হইবে, বুক গুর গুর করিবে, জরভার হইবে। ব্ৰহ্মশাপে আমব জাতিতে বাঙ্গালি, কিন্তু প্রকৃত পক্ষে, অর্থাৎ যদি বুঝে ও ঠাউরে . দেখ, আমরা সাহেব । আচার ব্যবহারে আমব কোথাও চামার, আবার কোথাও দেবতুল্য হইয়া দাড়াই -যেমন আপাততঃ দেখিতেছ )। এই বকম নানা কারণে আমাদিগকে কসমপলিটান করিয়া তুলিয়াছে।—তুমি পরশু আমার বাড়ী আসিতে চাও, তোমার নিমন্ত্রণ বইলেt — ন। পরশু নয়, সেদিন মুসলমান সাহিত্য সভায় যেতে হবে । তুমি সেখানে যাবে ?” আমি জিজ্ঞাসা করিলাম--‘সেখানে কি হইবে ? বন্ধু বলিলেন-বায়ুর ওপর বক্তৃত হইবে ।