পাতা:বিবিধ প্রবন্ধ (ভূদেব মুখোপাধ্যায়) প্রথম ভাগ.djvu/৪০

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে চলুন অনুসন্ধানে চলুন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।

లిపి বিবিধ প্রবন্ধ } অতএব সীতাকে বিবাসিত করির রাম মনে মনে জানিতেন যে, তিনি পাপকৰ্ম্ম করিয়াছেন। তাহার মনে সেই ভাবের উদয় মাত্রেই বনদেবী বলিলেন- 3. * - - অয়ি দেব ! কিমিতি দারুণ খৰলি ? ত্বং জীবিতং ত্বমসি মে হৃদয়ং দ্বিতীয়ং ত্বং কৌমুদী নয়নয়োরমৃতং মঙ্গে। ইত্যাদিভিঃ প্রিয়শতৈরছুক্লধ্য মুগ্ধং তামেৰ শান্তমখব কিমিহোত্তরেণ । इडि মুচ্ছতি। হে দেব, তুমি কি কঠিনহৃদয় । ভূমি আমার জীবন, তুমি আমার দ্বিতীয় হৃদয় স্বরূপ, তুমি আমার নয়নের জ্যোৎস্ন, তোমার স্পর্শ আমার অঙ্গের অমৃত, ই ভ্যাদি শত শত প্রিয়বাকা দ্বারা যাহাকে প্রীত করিতে, সেই মুগ্ধাকেই— দুর হউক, সে কথায় আর প্রয়োজন নাই। এই বলিয়া মূচ্ছিত হইলেন। এই কবিতাটা যে কত মিষ্ট তাহ বলা বাহুল্য। বোধ হয়, উত্তরচরিত পাঠক এমন কেহই নাই, যাহার এই শ্লোকট, অন্ততঃ ইহার প্রথম চরণ তিনটা কণ্ঠস্থ নাই। চতুর্থ চরণটার অধিকাংশই পাদপুরণার্থ প্রস্তুত, এবং যখন কবি বাসন্তীকে মুছত করিতেছেন, তখন তাহার মুখ দিয়া কেবল পাদপুরণার্থ শস্ব প্রয়োগ না করাইলেই ভাল হইত। বাসন্তী চতুর্থ চরণের “তামেব পৰ্য্যন্ত বলিয়াই মূচ্ছিতা হইলে কবিতাপূরণ রামের মুখ দিয়াই হইতে পারিত। যথা— বাক্যবিরতি পতনঞ্চ যুক্তম্। এই সামান্ত কৌশল যে ভবভূতির অপরিঞ্জাত ছিল, এমভ নহে। তিনি বহুল স্থলে ভিন্ন ভিন্ন ব্যক্তির উক্তি প্রত্যুক্তিার কবিতার পূরণ করিয়াছেন। কিন্তু বোধ হয় এ স্থলে মহাকবির বিশেষ দৃষ্টি অন্য দিকেই ছিল। তিনি যে বাসষ্ঠীকে মানুষীভাব দিয়াই সাজাইতেছিলেন, তাহ।