পাতা:বিভূতি রচনাবলী (অষ্টম খণ্ড).djvu/১৭৬

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


S(tbr বিভূতি-রচনাবলী পুষ্প পাষাণমৃতির মত দাড়িয়ে সব শুনলে। আকাশ পৃথিবী তার কাছে অন্ধকার হয়ে গিয়েচে ততক্ষণে। জন্ম-জন্মান্তর যে জীবনের মাস, ঋতু ও বৎসর মাত্র, তাও যে শূন্ত, অন্ধকার। ভূম নয়, অল্পেই তার মুখ ছিল। করুণাদেবী সব জানেন । পুপকে তিনি বুঝিয়ে বল্পেন। আশার জন্যও স্বাৰ্থত্যাগ তাকে করতে হবে, যতীনের জন্যেও । এই জন্মে আশার সব ভুল মুছে দেওয়ার চেষ্টা তিনি করবেন। আচার্য রঘুনাথদাস আশার আত্মার জন্যে র্তার ইষ্টদেবকে জানিয়েছিলেন । ভক্তের ক্ষমতা বড় তুচ্ছ নয়। গ্রহদেবের আসন টলেচে । পুষ্প বল্লে-বুঝেচি । তিনি মহাপুরুষ, সেদিন যখন নরকে নিয়ে গেলেন আমায়, তখনই আমার মনে হোল নরক পবিত্র হোল। আপনারও আসন টললো—আমি ডাকলে আপনি ছাই আসেন । 尊 করুণাদেবী বালিকার মত সকৌতুকে খিলখিল করে হাসলেন। বল্পেন—তুই আমার ওপর রাগ করলি বুঝি ? ছিঃ–লক্ষ্মী দিদি — পুষ্পের অভিমান তখনও যায়নি। সে দুষ্ট মেয়ের মত ঘাড় বেঁকিয়ে চুপ করে রইল । দেবী বল্পেন—তোকে আমার কাছে নিয়ে যাবো পুষ্প— · —না। আমাকেও পৃথিবীতে পাঠিয়ে দিন না, দিন না দয়া করে। সত্যি বলচি স্বর্গে আমার দরকার নেই । —পৃথিবীতে পাঠিয়ে কি হবে ? এবার যে চেষ্টা করবো ওদের দুজনকে মিলিয়ে দিতে । পৃথিবীর মিলন না হোলে আশার প্রারব্ধ কিছুতেই কাটবে না। এ আত্মত্যাগ তুই করতে পারবি আমি জানি । ওরা জন্ম নিলেই তো সব ভুলে যাবে, কোনো কথা মনে থাকবে না এ জন্মের । আমি আবার দেখা করিয়ে দিই, যে যাকে চায় মিলিয়ে দিই। নতুবা জীবের কি সাধ্য ? . পুপ বল্লে—আমাকেও পাঠিয়ে দিন, সব ভুলে থাকি । করুণাদেবী ওকে কাছে নিয়ে এলেন আদর করে । পুষ্পের দেহ শিউরে উঠলো, কি অপূর্ব স্বগন্ধ দেৱীর সারাদেহে, কি অপূর্ব স্পর্শমুখ ! সে মেয়েমানুষ, তবুও এই রূপসী দেবীর স্কিন্ধ-পর্শে ওর সারাদেহে যেন তড়িৎসঞ্চার হোল । অমৃতম্পর্শে আত্মা যেন নিজের অমরত্ব, অনস্তত্ব অনুভব করলে এক মূহুর্তে । 尊 总 সক্ষেহে বল্পেন-পুপ, তোকে পৃথিবীতে আর জন্ম নিতে হবে না। শুক্ল গতির পথে তোর অনাবৃত্তি লাভ ঘটেচে। ওরা এখনও অপরিণত, শেখবার বাকি আছে, কর্ম এবার নষ্ট হয়ে যাবে হয়তো । পৃথিবীর জীবন বেশিদিনের নয়। আত্মার পক্ষে চোখের পলক মাত্র। আমি এবার ঘাই পুষ্প । পুষ্প ৰঙ্গে –আমায় পৌঁছে দিয়ে যান— —নিশ্চয়, চল যাই । যাবার সময় করুণাদেবী বলে গেলেন, তাকে স্মরণ করলেই তিনি আসবেন ।