পাতা:বিভূতি রচনাবলী (অষ্টম খণ্ড).djvu/২৪৬

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ఇbr বিভূতি-রচনাবলী বাপের বাড়ী গিয়ে বেশিদিন থাকতে পারিনে, পাছে বুড়ীর কষ্ট হয়। একদিন শাশুড়ী বুয়েন—চল মা, সাঙ্গাল মুশায়ের বাড়ী ভাগবত শুনে আসি– —সে কে মা ? —পাড়ার বুড়ো সান্তাল দাদা, ছাখোনি বুড়োকে ? সাঙ্গাল মশায়ের বাড়ী গেলাম। ওঁর অবস্থা বেশ ভালো বলে মনে হলো বাড়ীম্বর দেখে, শুনলাম স্থই ছেলে কলকাতায় চাকরি করে, তাদের স্ত্রী-পুত্র তাদেরই সঙ্গে কলকাতার বাসায় থাকে । সান্তাল মশায় বিপত্নীক। বয়স ছিয়াত্তর বছর, নিজেই বল্লেন। একটি বিধবা বোন বাড়ীতে থাকে ও রান্নাবান্না করে । আমাদের দেখে খুব যত্ন করলেন, আমাদের সামনে ভাগবত ব্যাখ্যা করে শোনালেন । সেই থেকে সান্তাল মশায়ের বাড়ীতে রোজ যাই । আমায় তিনি বড় ভালোবাসেন, যোগবাশিষ্ঠ ও ভাগবত র্তার প্রিয় বই । যদি দু’দিন না যাই, সান্তাল মশায় আমার শ্বশুরবাড়ী আসবেন । আমার শাশুড়ী তার বেীমা | ডেকে বলেন - ও বোমা ? বৃদ্ধ শাশুড়ী মাথায় কাপড় তুলে দিয়ে বলেন–কি দাদা ? —নির্মলা ( আমার ভালো নাম ) কোথায় ? ডেকে দাও । • আমি বের হয়ে এসে বলি-কি দাদু ? —দাছ কি রে, তোমার জ্যাঠামশাই হই । তোমার শ্বশুরের চেয়ে এগার বছরের বড় আমি । আমার ওখানে ক’দিন যাওনি কেন ? আজ অবিপ্তি যাবে। আবার নিয়মিত ভাবে যাই । সান্তাল মায় আজকাল আর কোন শ্রোত চান না, আমার মধ্যে কি যে দেখেচেন—আমাকে পেয়ে খুব খুশি । যোগবাশিষ্ঠ পাঠ জমে না আমি না গেলে । একৃদিন তাকে বল্লাম—জ্যাঠাবাৰু আমি তো মুখু মেয়েমান্বষ, আমার মধ্যে কি পেলেন আপনি ? —কি পেলাম কি জানি । কিন্তু তুমি গেলে মা আমার গীতা আর যোগবশিষ্ঠ জ্যাস্ত হয়ে ওঠে। ওঁদের শ্লোকের মধ্যে থেকে নতুন ভান্য বেরিয়ে আসে । আনন্দ যদি শাস্ত্রআলোচনার উদ্দেশ্য হয়, তবে সেটার বোল আনাই পাই তুমি আসলে মা । আমি হেসে বল্লাম—তাহলে বলুন জ্যাঠামশাই, আমার মত শ্রোতা আপনি অনেকদিন পাননি ? 蠟 —সত্য মা, এতদিন জানতাম না যে লোককে শুনিয়ে এত আনন্দ হয় । নিজেই চর্চা করতাম, এই পর্যন্ত । আজ কিন্তু অন্তরঞ্চম বুঝচি। উপযুক্ত শ্রোতা পেলে – আমারও ভুলো লাগে বলেই যাই। কেমন যেন মন বদলে যাচ্চে, যে মন আমার কোন কালেই সংসারে ছিল না—তা আরও নিরাসক্ত হয়ে পড়েচে । বন্ধনের মধ্যে কেবল বৃদ্ধ শাশুড়ী। বৃদ্ধ কাছেন, আমি বসে যোগবশিষ্ঠের উপদেশ শোনাই। কিন্তু তাতে তার