পাতা:বিভূতি রচনাবলী (অষ্টম খণ্ড).djvu/২৯৯

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


উপলখও br? রমজান মণ্ডলকে ইচু ডাক দিলে –ও চাচ, গর্দারের বাড়ী তামুক খাব চল । নোৱালি সর্দারের তামুক খাওয়ানোর আসল উদ্বেগু মজুরির রেট সম্বন্ধে দরদপ্তর করা। ইচু রমজানের পুত্রের বয়সী—স্বতরাং দরদপ্তর লম্বন্ধে রমজান নেতা হয়ে কথাবার্তা চালালে। —সাত লিকের কম পারব নি গে, এতে তুমি রাগ করো না সর্দার। —রমজান চাচা, তার চেয়ে আমার গলায় পা দিয়ে মেরে ফেল না কেন ? —অনেয্য তো কিছু বলছি নে । —অনেয্য নয় চাচা ? যা ছেল চোদ আনা তাই সাত সিকে ? এটা ভেবে চিস্তে কথা বল । পাচ সিকে কর, আর চাল ডাল মাছ পেটিয়ে দেবানি তোমরা রান্না করে খেয়ো । মোদের রান্না তো তোমরা খাবা না । আমার পুকুরি এবার এই এত বড় বড় চ্যাং মাছ— নোয়ালি সর্দার হাত দিয়ে কাল্পনিক মৎস্তের দৈর্ঘ্য নির্দেশ করলে, যদি লোভ দেখিয়ে এদের কাজে টানা যায় । রমজান ঘাড় নেড়ে বললে—ও হবে না সর্দার । সাত সিকের কম করলি— —আর এক কলকে ধরাও চাচা ! হাদে, গাছের জালি শলা গোটাকতক নিয়ে যাও। ছ' জনে খেয়ো । —শসা পুতেছিলে ? মাচার শসা, না মেঠে ? —মেঠো কোথায় পাব চাচা, এই উঠোনটাতে মাচা করে দিয়েলাম—সিম বয়বটি শসা–কিনে খাবার তো ক্ষ্যামতা নেই মোদের, তরিতরকারির আগুন দাম । —সে কথা আর বলে না । হাটে বাগুন কেনতাম পয়সায় দু সের তিন সের—তাই এখন বলে আট আনা সের । খাদ্য-খাদক উঠে গেল। ঝিঙে আছে ? —তা তোমার বাপ-মায়ের আশীর্বাঙ্গে-টো কটা দেবানি তুলে, খেয়ো । —যাক গে, পাচ লিকেই দিও সর্দার, কারও কাছে পেরকাশ করো না যেন এ কথা । ইচু ও রমজান তামাক খেয়ে ঝিঙে ও শলা নিয়ে উঠে চলে এল। নোয়ালি সর্দারের উদ্বেগু সিদ্ধ হয়েছে। সে জানে রমজান জন-মজুরের নেতা, ওর কথায় দরদপ্তর ঠিক হয়। ওকে খুশি রাখলেই হোল । o ইচুর বাড়ী ফিরতে রাত হয়ে গেল। নিমিকে বললে—ভাত বেধিছিস । —এ বেলা শরীরডে খারাপ। পানি দেওয়া ভাত আছে, খাও। —তরকারি ? —কিছু নেই। –এই ঝিঙে কটা রোধে দে । . —রাধব কি দিয়ে, তেল কনে ? পাচ পলা ধার করে এনেলাম আছিরন বিবির কাছ থে । এখনও শোধ দিতি পারিনি—আবার কি ধার করতি ছোটব ? --CPt নিমি খিলখিল করে হেলে উঠে মুখে আচল চাপা দিয়ে বললে—ও মা, মুই কনে বাৰ গো ! f、研 bー〉?