পাতা:বিভূতি রচনাবলী (অষ্টম খণ্ড).djvu/৩৩৭

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


বিধু মাষ্টার సిని DBD DBB BBB BBD BB BBBS DDDD BBBBBS BBS BBS BBS ইডিয়াম মিঃ শুকরাম। ভাল জিনিসকে বাংলায় আমরা মূলে বলি। –তাই নাকি ? হাউ ইণ্টারেস্টিং ! আমি বাংলায় বলিলাম,—তোমার মুণ্ডু—বোকারাম কোথাকার । নবীনদা বলিলেন,—মূলো আর সাধে বলে ! একেবারে হল র্যাডিশ । রামটেকের পাহাড় বাদিকে রাখিয়া কিছু দূর গিয়া রিজার্ভ ফরেস্টের নিবিড় ছায়াভর বীথিপথে চড়াই-উৎরাই ভাণ্ডিয়া মোটর অপেক্ষাকৃত ধীরে চলিতেছে। শরৎ অপরায়ের অপূৰ্ব্ব শোভা বনতলে। কোথায় যেন পাকা আতার গন্ধ, দু-একটা বনফুলের সুবাসের সঙ্গে যেন শেফালীর পরিচিত্ত সুবাস ভাসিয়া আলিতেছে বাতাসের ঝাপটায়। এমন শোভার মধ্যে বসিয়া আমরা কিছুক্ষণের জন্ত ইন্‌সিওরেন্সের দালালি বিস্বত্ত হইয়া গেলাম। খিনসি হ্রদে উঠিবার সময় পাহাড়ের পাশে ঘুরিয়া ঘুরিয়া পথ। অনেক দূর উঠিয়া গেলে শৈলবেষ্টিত হ্রদের শান্ত জলরাশি দৃষ্টিগোচর হয়। চতুর্দিকের শৈলসায় ঘন বনে সমাকীর্ণ, স্থানটা নিতান্ত নির্জন । একদিকে অপরাহের ছায়, অপর পারের পাহাডের গায়ে হলুদ রঙের রোদ । হ্রদের এপারের ডাকবাংলোয় গিয়া আমরা চৌকিদারকে ডাকিয়া চেয়ার বাহির করাইয়া বসিলাম। চৌকিদার আমাদের নির্দেশমত চায়ের জল চড়াইতে ছুটিল । নবীনদা ও আমি হ্রদের জলে স্নান করিবার জন্ত নামিলাম। বনের মধ্যকার সরু পথ ধরিয়া ধরিয়া কতদূর নামিয়া গেলাম দুজনে। মূলে এসব ভালবাসে না, সে ডাকবাংলোর বারানাতে বসিয়াই রহিল। জলের উপরে বুনো শিউলি ফুলের রাশি সকালের রোদে ঝরিয়া পড়িয়াছে—দু তিন দিনের জমানে ফুলের রাশ। আমরা জলের ঢেউ দিয়া একপাশে সরাইয়া স্বান করিলাম । নবীনদা বলিলেন,—বাঘ নেই তো ? বডড জঙ্গল চারিধারে— —আশ্চৰ্য্য নয় কিছু। —মূলোটাকে বাঘে না নিয়ে যায়। একা বসে আছে— —কেন, ড্রাইভার ? —ও চৌকিদারের সঙ্গে গিয়েছে। বলে গেল ফিরতে আধঘণ্টা দেরি হবে, দুধ আনতে গেল।-ভয়ে ভয়ে উপরে উঠিয়া দেখি মূলে নিৰ্ব্বিকীরচিত্তে খবরের কাগজপড়িতেছে। নাগপুর হইতে আনা বম্বে ক্রনিক্ল, আগের তারিখের। আমাদের দেখিয়া বলিল—আমেদাবাদের ইটাে মিলে স্ট্রাইক হয়েছে বড় জোর— নবীনা আমার দিকে চাহিয়া বলিলেন,—মূলোর কাও শোন—এমন একটা জায়গায় এসে গুর এখন আমেদাবাদের মিলের কথা বড় দরকারী হোল । কিছুক্ষণ থাকিতে ইচ্ছা ছিল কিন্তু ড্ৰাইভার তাড়াতাড়ি করিতে বলিল। পাহাড়ের পথ, তাহার গাজীর আলোটা ভাল নাই—আমরা দেরি করিলে শেষে মুশকিলে পড়িতে হইবে।