পাতা:বিভূতি রচনাবলী (অষ্টম খণ্ড).djvu/৩৪২

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


૨8 বিভূতি-রচনাবলী লইয়া সব সময় ব্যস্ত রহিল। চা-পার্টি হইতে ফিরিবার পথে মূলো কি আমাদের ছাড়ে—সঙ্গে সঙ্গে আসিল । কিন্তু তাহার যা স্বভাব-মিস সোরাবজি সম্বন্ধে একবারও একটি কথাও বলিল না । চ-পার্টির-কথাই যেন তাহার মন হইতে মুছিয়া গিয়াছে এটুকু সময়ের মধ্যে। নবীনদা বাংলায় বলিলেন—বাদরের গলায় মুক্তোর মালা ! কলেজের বেশ ভাল মেয়ে বলে শুনেছি—র্যাডিশটার মধ্যে কি পেলে খুজে । দুদিন মূলে কি জানি কেন আমাদের বাংলোতে আসিল না। তৃতীয় দিন সকালবেলা একখানা মোটরগাড়ী বাসার সামনে দাড়াইতেই আমি আগাইয়া গেলাম—নবীনদ তখন বাসায় নাই । মোটর হইতে নামিলেন ডা: সোরাবজি। আমাকে ডাকিয়া বলিলেন—শুকরাম কি এখানে এসেছিল ? একটা জরুরী কথা আছে । আপনারা ওকে কতদিন জানেন ? —খুব বেশি দিন নয়। কেন বলুন তো ? * 朝 —ও আমার কাছে কিছু বলে না। কিন্তু আমার মেয়ের কাছে বিবাহের প্রস্তাব করেছে। আমি ওকে বাড়ী ঢুকতে দেব না। ওকে আপনার বারণ করে দেবেন। মূলোর হইয়া ওকালতি করিবার ইচ্ছা হইল। বলিলাম—ওকে কি উপযুক্ত পাত্র বলে বিবেচনা করেন না ? ডাক্তার সোরাবজি রাগের সঙ্গে বলিলেন, ও একটা লোফার—ওর সঙ্গে আমাদের মেয়ের বিয়ে হবে কেন ? ওরা হল ডোগরা-আমি আর্মিতে ছিলাম, ওরা সেখানে সাধারণ সেপাই-এর কাজ করে। সুবাদার হতে কাউকে দেখিনি। কেন জানেন ? বলিলাম—কি ? to —খুব সাহস আছে, যা বলবেন তাই করবে—কিন্তু— বলিয়া ডাক্তার সোরাবজি আঙুল দিয়া নিজের মাথায় দু-তিনবার টোকা দিয়া ঘাড নাড়িলেন। o —তাহলে বলে দেবেন দয়া করে । —আজ্ঞে ওটা বলা আমাদের পক্ষে একটু শক্ত, বুঝতেই পারেন। —আমি বললে একটু রূঢ় হয়ে যাবে। --কিন্তু একটা কথা বলি যদি কিছু মনে না করেন—মিস সোরাবজির মনোভাব কেমন মিঃ শুকরীমের ওপর, সেটা একবার— —সে বিষয়ে নিশ্চিন্ত থাকুন। ওর মত একটা বাঞ্জে অপদার্থ লোকের হাতে মেয়ে দেব ? ও কোনওকালে বি-এ পাশ করতে পারবে ? কোনদিন নয়। আমার মেয়ে অনাস ক্লাসের ছাত্রী, সকলের চেয়ে ভাল ছাত্রী—ওর সঙ্গে তার বিয়ে ! হাসির কথা । পরদিন সকালে মূলে আমার কাছে আসিয়া গোপনে বলিল, মি. রায়, সব ঠিক হয়ে গেল । so