পাতা:বিভূতি রচনাবলী (অষ্টম খণ্ড).djvu/৪৪৪

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


&% বিভূতি-রচনাবলী করতে লাগলো, ওই তেতো, কড়া, বোটকা গন্ধ নাকে এলে, যেন মনে হল,তার জর হলো । আরও ক্রোশ খানিক পথ হাটলে ওরা। এবার রামনগরের বাজার পড়বে সামনে । রাস্তার ধারে ফুলনের বাজার বলেচে, পাপড় ভাজা, মাটির ছোব, পুতুল। পিপি বাঁশি । মুড়ি-মুড়কি, ফুলুরি, তালের বড়া । হাড়ি, কলসী, সরা। তালপাখা, ঘুমসি, ফিতে চিরুনি। বিড়ী পান দেশলাই । লোকে লোকারণ্য। রামনগরের ঝুলনের মেলা এদেশের বিখ্যাত ব্যাপার । আশেপাশের অনেক গ্রাম থেকে লোক এসে জুটেচে । রামধন ও ফণি তাড়াতাড়ি আসরের দিকে চললো । দূর থেকে একটা হটগোল শোনা যাচ্চে, আর শুধু দেখা যাচ্চে লোকের মাথা । বড় বড় হাজাক লণ্ঠনের আলো জলচে আসরে । রামধন বললে—ও বাবা ফণি, ক্যামন আসর সাজিয়েচে দেখ। চল শীগগির এগিয়ে চল । g so কিন্তু যাত্রার আসরের গেটে ওদের দু-জন শার্ট-পরা ভদ্রলোক আটকে ফেলে বললে—কোথায় যাচ্চ ? রামধন ভয়ে ভয়ে বললে---আসরে । —হবে, না, ফিরে যাও — —আজ্ঞে, অনেক দূর থেকে আসচি–বড্ড কষ্ট করে। —যাও যাও । একি মামার বাড়ীর আবার-ভাগে— রামধন হাত জোড় করে বললে—বাবু একটু জায়গা পাবে না ? ওদের মধ্যে একজন রেগে বললে—না ন! I হবে না । ভদর লোকের আর মেয়েদের আগে—তারপর তোমাদের । —বাবু —গলা ধাক্কা দিয়ে তাড়িয়ে দাও তে পরেশ ? ওকে বসতে না দিলে চলচে না আর— ভাগে এখান থেকে । তার চেয়েও দুর্ঘটনা ঘটে গেল । রামধনের ছেলে যুবক এবং তার রক্ত গরম। সে প্রতিবাদের উত্তরে কি বোধ হয় বলেছিল গেটের ওপাশে । \ & হঠাৎ কিল চড়ের শৰে মুখ ঘুরিয়ে দেখলে রামধন, ওর ছেলেকে ঘিরে ফেলে কারা মারধর করচে। সে ছুটে গিয়ে, লোকজনের পায়ে পড়ে ভিড় থেকে বার করে নিয়ে এলো । 魯 ফণির চোখের কোণ দিয়ে রক্ত পডচে। মাথার চুল উলকো-খুসকো—বড্ড মার খেয়েচে লে। 臺