পাতা:বিভূতি রচনাবলী (অষ্টম খণ্ড).djvu/৪৫

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


দেবযান २१ যতীন কৌতুকের হাসি হেসে বল্লে—লোকগুলো কানা নাকি ? খুজচে যাকে, সে তো এখানেই দাড়িয়ে । পুপ খিল খিল করে হেসে বল্লে—যাকৃ, ভালই হয়েচে তোমায় চিনতে পারে নি। চিনতে’ পারলে বলতে, মুখুয্যেদের বাড়ীর জামাই ভূত হয়ে লোকের আনাচে কানাচে ঘুরে বেড়াচ্ছে । বৌদিদি শুনলে কষ্ট পেতো। লোকে বলতে গতি হয় নি। কেমন, শখ মিটলো তো ? নিরীহ লোককে আর ভয় দেখিয়ে দরকার কি, চলো পালাই । · br বুড়োশিবতলার ঘাটে অশ্বথতলায়, যতীন অন্যমনস্ক হয়ে বসে ছিল । পুষ্প মাঝে মাঝে কোথায় যায়, আজও বেরিয়েচে । তার নানা কাজ, কোথায় কখন ঘোরে । পুপকে যতীন খানিকট বোঝে, খানিকট বোঝে না । পুষ্পের ভালবাসায় সেবাযত্নে তার বহুদিনের বুভূক্ষু প্রাণ তৃপ্ত হয়েচে বটে কিন্তু সঙ্গিনী হিসাবে যতীনের মনে হয় পুপ অনেক অনেক উচু। সে পুপকে ভালবাসে, শ্রদ্ধা করে, এমন কি কিছু কিছু ভয়ও করে। তার সঙ্গে কিন্তু মন খুলে কথা বলা যায় না, বলতে চাইলেও মুখে অনেকটা আটকে যায়। এমন মুখ, শান্তি, আনন্দের মধ্যেও যতীন নিজেকে খানিকটা একা মনে না করে পারে না । আশা, আজ যদি আশা •• এই সব স্বন্দর দিনে, সুন্দর প্রাকৃতিক দূতের মধ্যে বসে আশার কথাই মনে হয়। আরও মনে হয় সে বড় হতভাগিনী, তার এত ভালবাসা আশা বোঝেনি ; আশা যদি বুঝতে, তার মূল্য দিত, হভভাগিনী নিজেই কত তৃপ্তি পেতো। তার ইচ্ছা হয় যখন তখন আশার কাছে যায়। কিন্তু পুপ তাকে যেতে দেয় না । এর কারণ যতীন জানতে না। আশার জীবনের অনেক ব্যাপার পুপ যা জানে যতীন তা জানে না। পাছে সে সব দেখলে যতীনের মানসিক যন্ত্রণ বেড়ে যায়, সেজন্যে পুষ্প প্রাণপণে সে সব জিনিস ওর দৃষ্টি থেকে লুকিয়ে রাখতে চায়। যার কোনো প্রতিকার করবার ক্ষমতা নেই, তা ওকে জানতে দিয়ে কোনো লাভ নেই। যতীন জানড়ো আশা খেয়ালের বশে অভিমান করে বাপের বাড়ী গিয়ে উঠেছিল এবং অভিমানের দরুনই তার সঙ্গে দেখা করে নি। * তার নিষ্ঠুরতা, সেও অভিমানপ্রস্থত। আশার চরিত্রের আসল দিক পুপ কত কৌশলে ঢেকে রেখেচে যতীনের কাছে তা একমাত্র জানতেন &যতীনের মা। পাছে ওর চোখেও সে সব ধরা পড়ে যায়, এই ভয়ে নিজে সঙ্গে না নিয়ে যতীনকে এক আশার কাছে যেতে দিত না । যতীনের এক যাবার প্রবল ইচ্ছা সত্ত্বেও এক পৃথিবীতে যেতে সে তেমন সাহস পায় না—একদিন যাবার চেষ্টা করে খানিকটা গিয়েছিলও, হঠাৎ মধ্যপথে কে যেন ওকে চৌকো কাঠের বাক্সের আকারের ঘর তৈরী করে তার মধ্যে বন্দী করবার চেষ্টা করতে লাগলো। ও এগিয়ে যায়, একটা ঘর ফুড়ে বার হয়, আবার