পাতা:বিভূতি রচনাবলী (একাদশ খণ্ড).djvu/১৭৯

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


দলপতি Şo নেষ্ট, জন নেই। আর সে অনেক ঘর-দোর, আমরা এই ক'টি প্রাণী সে-বাড়ীতে টিমৃটিম করবো—লোক-লশকর, চাকর-বাকর নিয়ে যদি সেখানে বাস করা যায়, তবেই থাকা চলে । অনঙ্গ বলিল—সেখানে বাস করবার জন্যই ও বাড়ী কিনছিলে নাকি ? তা কি ক’রে হয় ? এখানে সব ছেড়ে কোথায় মঙ্গলগঞ্জে বাস করতে যাবো ! এমন বুদ্ধি না হ’লে কি জার ব্যবসাদার ? আমি ভেবেচি, কুঠীবাড়ী সস্তায় কিনে রাখবে ! তা ভালোই হয়েচে, তোমার যখন মত হয় নি, দরকার নেই। গদাধর ভাবিয়া-চিন্তিয়া কথা বলেন ! হঠাৎ কোনো কাজ করা তাহার স্বভাবসিদ্ধ নয়। রাত্রে তিনি স্ত্রীকে কলিকাতায় যাওয়ার কথাটা বলিলেন । অনঙ্গ বিস্ময়ের স্বরে বলিল—কলকাতায় যাবে। এসব ছেড়ে দিয়ে কলকাতায় স্থবিধে হবে ? —কেন হবে না 7 ব্যবসা সেখানে ভালো জমবে । —বাসও করবে সেখানে ? —এখানে বাড়ীম্বন্ধ ম্যালেরিয়ায় ভূগে মরচি, বছরে তিনচার মাস সবাই ভুগে মরি । ছেলেদের লেখাপড়া শেখা, মাজুষের মত মানুষ হবার স্ববিধা, আমার মনে হয়, সেই ভালো । কাল আমি কলকাতায় ওদের আড়তে চিঠি লিখি, তারপর দু'এক দিনের মধ্যে নিজে গিয়ে একবার দেখে আসি । —যা ভালো বোঝে, করে । কিন্তু আমার কি মনে হয় জানো ? —কি ? —এ গ্রামের বাস ছেড়ে আমাদের কোথাও যাওয়া ঠিক হবে না। বাপ-পিতেমোর আমলের বাস এখানে••• —বাপ-পিতেমোর ভিটে আঁকড়ে থাকলে চলবে না তো ! সবদিকে স্থবিধে দেখতে হবে। এখানে টাকা থাকলেও, খাটাবার স্ববিধে নেই। ছেলেরা বড় হলে ওদের লেখাপড়া শেখানে—তাছাড়া অন্যরকম অসুবিধেও আছে। আমার মনে লেগেচে নিৰ্ম্মলের কথাটা । সেই প্রথমে এ কথা তোলে। , —নিৰ্ম্মল-ঠাকুরপোর সব কথা শুনো না—এ আমি তোমায় অনেকদিন ব'লে দিয়েচি। বড্ড ওর পরামর্শে তুমি চলে । —কই আর শুনলুম, তাহলে তে ওর কথায় কুঠীবাড়ীই কিনে ফেলতুম। মিথ্যে অপবাদ দিও না, বলচি । अनत्र एांजिब्रl cफजिल । বছর কাটিয়া গিয়া বৈশাখ মাস পড়িল । বছরের শেষে পাট ও তিসির দরুণ হিসাব করিয়া দেখা গেল যে, প্রায়নিটু ছ'হাজার টাকা লাভ দাড়াইয়াছে। ভড়মহাশয় হিসাব করিয়া মনিবকে লাভের অঙ্কট বলিয়া দিলেন ।