পাতা:বিভূতি রচনাবলী (একাদশ খণ্ড).djvu/২২৪

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


२०8 বিভূতি-রচমাৰলী —ক্যাশের টাকাটা আমাকে দিতে হবে । আপনি বন্দোবস্ত করুন—দু’চার দিমের মধ্যে দরকার ! ভড়মশায় মুহূ প্রতিবাদ করিয়া বলিলেন—ক্যাশের টাকা দিলে মিলের অর্ডারী মাল কিনবো কি দিয়ে বাৰু? ক্যাশের টাকা হাতছাড়া করা উচিত হবে না। মিলওয়ালাদের দু'হাজার গাটের অর্ডার নেওয়া হয়েছে—মোকামে অত মাল নেই। নগদ কিমর্তে হবে। এদিকে মহাজনের ঘরে আর বছরের দেন শোধ হয় নি—তাদেরও কিছু দিতে হবে। —হাজার-পাঁচেক রেখে, হাজার-দশেক দিন আমায় । ভড়মশায় আর কিছু বলিতে সাহস করিলেন না, কিন্তু মনে-মনে প্রমাদ গণিলেন । ক্যাশের টাকা ভাঙিয়া বাবু কি সেই ছবিতোলার ব্যবসায়ে ফেলিবেন ? এবার যে ছবি তোলা হইল, তাহাতে যদি লাভ হইত, তবে পুনরায় টাকার দরকার হইবে কেন বাবুর ? এ কি-রকম ব্যবসা ? গুড়মশায় গিয়া অনঙ্গকে সব খুলিয়া বলিলেন। অনঙ্গ কাদিয়া বলিল—কি হবে ভড়মশায় ? তাও যাম যাক—আমরা দেশে ফিরে মুনভাত খেয়ে থাকবো। আপনি ওঁকে ফেরান । সেদিন অনঙ্গ স্বামীকে বলিল—দ্যাখে, একটা কথা বলি। আমি কোনো কথা এতদিন বলি নি, বা তুমিও আমার কাছে কিছু বলো নি। কিন্তু শুনলুম, তুমি টাকা নিয়ে ছবি তৈরির ব্যবসা করচো—তাতে লোকসান খেয়েও আবার তাই করতে চাইচে । এ-সব কি ভালো ? গদাধর বলিলেন—তুমি বুঝতে পারচো না অনঙ্গ। এ-সব কথা তোমায় বলেচে ওই বুড়োটা—না ? ও এ-সবের কি বোঝে যে, এর মধ্যে কথা বলতে যায় ! ছবিতে লোকসান হয়েচে সত্যি কথা—কিন্তু আর-একখানা দিয়ে আগের লোকসান উঠিয়ে আনবো । ব্যবলার এই মজা। ব্যবসাদার যে হবে, তার দিল চাই খুব বড়- সাহস চাই খুব । পুটি মাছের প্রাণ নিয়ে ব্যবসায় বড় হওয়া যায় না অনঙ্গ-হারি বা জিতি ! আমার কি বুদ্ধি নেই ভাবচো ? সব বুঝি আমি। এ-সবের মধ্যে তুমি মেয়েমান্থব, থাকতে যেও না । —বোঝে। যদি, তবে লোকসান খেলে কেন ! so - —হার-জিৎ সব কাজেরই আছে, তাতে কি ? বলেচি তো তুমি এ-সব বুঝবে না ! অনঙ্গ চোখের জল ফেলিয়া বলিল-আমাদের মেলা টাকার দরকার নেই—চলো, আমরা দেশে ফিরে যাই । বেশ ছিলাম সেখানে—এখানে এসে অনেক টাকা হয়ে আমাদের কি হবে ? সারাদিনের মধ্যে তোমার একবার দেখা পাই নে, সৰ্ব্বদা কাজে ব্যস্ত থাকো— দুটো খেতে আলবার সময় পৰ্য্যস্ত পাও না ! সেখানে থাকলে তবুও দু'বেলা দেখতে পেতাম তোমাকে—আমার মন যে কি হু-হ করে, সে কথা ••• গদাধর হাসিয়া বলিলেন—অত ঘরবোলা হয়ে ছিলুম বলেই সেখানে ব্যবসাতে উন্নতি করতে পারিনি অনঙ্গ। ও ছিল গেরস্ত আড়তদারের ব্যবসা । দিন কেনা, দিন বেচা— লোকসানও নেই, লাভও বেশী নেই। ওড়ে বড়মানুষ হওয়া যায় ন৷