পাতা:বিভূতি রচনাবলী (একাদশ খণ্ড).djvu/২৫৯

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


cजTांडिग्निछ* રૂપ છે এই সময় তারা এগিয়ে এসে স্বামীর হাতে ধরে বললে, কেন পাগলামি করছ? ৰস । এখনও অন্ধকার রয়েছে। এখন কোথায় বাৰে ? ছিঃ -झांy एांज्र- R বাটকা মেরে ভবতারণ হাত ছাড়িয়ে নিলে । 2 —তোমার মত ইতরের সঙ্গে আমি কথা বলি নি । আমি খোকনের সঙ্গে কথা বলছি। --রাগ করে না—ছিঃ– —ফের আবার ? এইবার কিন্তু ভাল হবে না বলছি। খবরদার, আমার গা দুয়ো না— —আচ্ছা ছোব না । বল ওখানে । —ফের কথা বলে ! খোকন, ও খোকন—যাবি আমার সঙ্গে ? আয়—আর কখনও যদি এ ভিটেতে পদার্পণ করি তবে আমার— করুণা মায়ের পেছনে গিয়ে লুকিয়ে আছে। তার কোনও সাড়া পাওয়া গেল না— সকাল বেলা । বেশ রোদ উঠেছে। তারা স্বামীকে দুখানা পেঁপের টুকরো হাতে দিয়ে বললে, খাও। পেট ঠাও হৰে। ভবতারণ এই ঘুমিয়ে উঠেছে। চোখ ভারি-ভারি। পেঁপের রেকাবি হাতে নিয়ে ৰললে; উনি কোথায় ? --ওপরে | —াবেন না ? —ভা কি জানি । —খাবেন ? —উনি কবে খান ? কাল সঙ্গের সময় এলেন, বললাম ভাত রেখে দিই। উনি বললেন, না । —পেঁপে আর আছে ? দিয়ে এস না ওপরে। —সে তুমি বললে তবে দেব ? " সে দিয়ে এসেছি, তুমি তখন ঘুমিয়ে। -निe । बूफ बांशष।' —সে তোমাকে শেখাতে হবে না । —খোকন—ও খোকন—শোন— —ও খেয়েছে। ওকে ডাকছ কেন ? তুমি খেয়ে ফেল। তোমার পেট ঠাও হবে পেঁপে খেলে ৷ এখন কেমন মনে হচ্ছে ? ' —এখনও গোলযোগ স্বায় নি। ভাতে জল দিয়ে জুন নেবু দিয়ে তাই খাব। তেল ভাও, নেয়ে আলি। করুণা বাপের কাছে এলে বললে, কি বাৰা ?