পাতা:বিভূতি রচনাবলী (একাদশ খণ্ড).djvu/৩৯

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


जटैष जण $o —গতি হয় না। —ৰেশ তো, ধ্যা দাদা, আমি ম’লে তুমি গয়ায় পিণ্ডি দিয়ে আসতে পারবে না জামায় নামে ? বেঁচে থাকতে না পারে। পোড়ার মুখী বোনের উপকার সাহায্য করতে—ময়ে গেলে কোরো । শাস্তির কথা শুনে আমার বড় মমতা হোল ওর ওপর। কেমন এক ধরনের মমতা ! স্বর নরম করে বললাম—ও সব কিছু করতে হবে না শাস্তি— —ত হোলে বলে তুমি উপকার করবে ? —তোমার উপকার করা মানে মহাপাপ করা । তুমি যে উপকারের কথা বলছে, তা কখনও ভাল ডাক্তারে করে না। আমি নিরুপায়। —সত্যি দাদা, সাধে কি ভক্তি হয় আপনার ওপর । আপনার ধূলির যোগ্য কেউ নেই এ গায়ে । --আমার কথা ছেড়ে দাও শান্তি । আর একজন আছে এ গায়ে—লে সত্যিই কোনো স্থনীতি দেখতে পারে না সমাজের। সনাতনদী। শাস্তি অবিশ্বাসের স্বরে বললে—তুমি এদিকে বড্ড সরল, শশাঙ্কা, ওকে তুমি বিশ্বাল করো ? —কেন ? —সনাতনদী এসেছে কাজ বাগাতে তোমার কাছে ৷ খোশামোদ করা ছাড়া ওর অন্ত কোনো কাজ নেই— —যাকগে, ও কথার দরকার নেই, আমার কাছে কথা দিয়ে যাও তুমি আত্মহত্যার কথা ভারবে না । —আমার উপায় হবে কি তবে ? —সে অামি জানি নে। তার কোন ব্যবস্থা আমায় দিয়ে হবে না। —তা হলে আমার ব্যবস্থা আমি নিজেই করি, তুমি যখন কিছুই করবে না— শাস্তি চলে গেল বা ওকে আমি যেতেই দিলাম। আর বেশীক্ষণ ওর সঙ্গে এখানে দাড়িয়ে কথা বলা আমার উচিত হবে না। হয় তো কেউ দেখে ফেলবে, তখন পাঁচজনে পাচ কথা বলতে শুরু করে দেবে, শাস্তির যা স্বযশ এ গায়ে ! বাড়ী ফিরে স্বরবালাকে কথাটা এবার আর বললাম না কি ভেবে, কিন্তু সারা রাত ভাল ঘুম হোল না। সত্যি, শাস্তির উপায় কি ? এক মেয়েমান্থব, কি করে এ দারুণ অপৰশ থেকে নিজেকে রক্ষা করবে,—আর হয়তে ছমাস পরে সে বিপদের দিন ওর জীবনে এলে পড়বেই। আমার দ্বারা তখন সাহায্য হতে পারে, তার পূর্বে ময়। কিন্তু সকালবেল বা কানে গেল তার জন্তে আমি প্রভত ছিলাম না। বেলা সাড়ে আটটা। সবে চায়ের পেয়ালায় চুমুক দিয়েছি, এমন সময় সনাতন আর