পাতা:বিভূতি রচনাবলী (একাদশ খণ্ড).djvu/৪০১

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


কুশল পাহাড়ী Qory حدود * লোক, আমার সঙ্গে সেই রকম কথা বলে, আমি সব করতে রাজী । তা বলে— প্রতুল বল্লে—হরিপদদ, হারাধন ছেলেমানুষ । তুমি আমি যা করবে। তাই হবে । ওর কথায় চটুতে আছে--ছিঃ ! / দিন সাতেকের পরে একদিন ক্যাশ বুঝিয়ে দিতে গিয়ে হরিপদ বল্পে একটু নীচু স্বরে— সাতানব্বই টাকা তেরে আন ক্যাশ । আমার কতো, তোমার কতো ? —মানে ? হরিপদ চোখ টিপে বল্লে—মনে তুমিও জানে, আমিও জানি । তুমি কি আর এখানে পঞ্চাশ টাকা মাইনেতে খাটতে এসেছ, ন৷ আমি খাটতে এসেছি ! যা হবে সে তো তুমিও— —ন দাদা, নাবালকের সম্পত্তি । আমি এসেছি ওর ডেকেছে বলে । ওদের জিনিস বজায় রাখতে হবে, তবে তোমারও দু'পয়সা । --সে পয়সাটা আসছে কোথা থেকে ? SSBBBB BB S BB BBBB BB BBS BBg K BB S BB BB BBB পাওয়া যেতো কর্তার আমলে । এখন তুমি যা বলে । --আরে তুমিও বুঝলে না । নিজের হাতে কলকাটি, আবার পরের খোশামোদ করতে যাবে কেন ? কমিশন-টমিশন, পসেণ্টেজ-ফার্সেণ্টেজের কে ধার ধারছে ? যা করবো তুমি আর আমি । গিন্নিমা আবার এর মধ্যে আসছেন কোথা থেকে ? - হরিপদর এ অদ্বৈতবাদ প্রতুল বুঝতে পারলে না । কি জানি কেন গিন্নিমার অসহায় কান্না ওর অন্তর স্পর্শ করেছিল । নইলে সে বোকা নয়, দু'জনে মিলে লুটেপুটে খেলে যে কমিশনের চেয়ে বেশি পয়সা হয় তা সে জানে । প্রতুল ক্রমে ক্রমে হরিপদর মনের ভাব বদলে দেবার চেষ্ট। করলে। কিছু টাক। রোজ দিতে লাগলো রাম চাটুযোর স্ত্রীর হাতে । অনেকদিন টাকার মূপ দেখতে পান নি তিনি । একদিন প্রতুল বল্পে হরিপদকে-আচ্ছা দাদা, চকিদা-বনগা পূর্ণ তোমার কেমন মনে হয় ? 變 —নতুন রূঢ় । কেউ তো এ পর্যন্ত চালায় নি। প্যাসেঞ্জার হবে কি না-হবে— —করে দেখতে দোষ কি ? . লাগিয়ে দিই দরখাস্ত, কি বলে ? ও রুটে কম্পিটিশন নেই। যে আগে অ্যাপ্ল্যাই করবে তারই হবে । —দেখতে পারে । —তুমি অনেক অভিজ্ঞ আমার চেয়ে এ কাজে । তুমি কি বলে ? —নতুন দুখানা বাস কিনতে হবে, টাকা পাবো কোথায় ? কমসে কম চল্লিশ হাজার লাগবে । —ডিসপোজালের চ্যাসিস কিনে এঞ্জিন কিনে বডি তৈরী করে নিলে সস্তায় পড়বে। ভালো আমেরিকান লরীর ফ্রেম যদি কিনি—তুমি কি বলে ?