পাতা:বিভূতি রচনাবলী (একাদশ খণ্ড).djvu/৭১

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


अश्लेष छण (t ) রাগের স্বরে বললাম—যাও, কি সব বাজে কথা বলো— গোবিন্দ দা টেবিল চাপড়ে বললে—একটুও বাজে কথা নয়। মা কালীর দিব্যি। আবদুল হামিদকে তো জানেন ? ঘোড়েল লোক ! ও যতবার সে ছুড়ির সঙ্গে দেখা করবার চেষ্টা করেছে, ততবার সে হাকিয়ে দিয়েছে । আমি একবার গিয়েছিলাম কখন আসর হবে জিজ্ঞেস করতে। আমাকে বললে—ডাক্তারবাৰু আজ আসবেন তো ? আমি যেমন বলেছি, তা তো জানি নে আসবেন কি না, অমনি মুখ দেখি কালে হয়ে গেল । আমার বুকের ভেতর যেন টেকির পাড় পড়চে । গোবিন্দ দা হ্যাবাক জিংকের ব্যবসা করে, মনের খবর ও কি জানবে । জানলে এ সব কথা কি বলতো ? মুখে বললাম—ও সব কথা আমায় শুনিয়ে লাভ কি ? যাও ! গোবিন্দ দাকে হঠাৎ একটা কথা জিজ্ঞেস করতে বড় ইচ্ছে হল। কিন্তু জিজ্ঞেস করাট উচিত কি না বুঝতে না পেরে একটু ইতস্তত করচি, দেখি ধূৰ্ত্ত গোবিন্দ দা বললে—কিছু বলবেন ? —একটা কথা। কাল রাত্তিরে ওকে তোমরা এনেছিলে কেন ? ঠিক কথা বলবে ? --আমি বললে আপনি বিশ্বাস করবেন না। ও আমাকে বললে, ডাক্তারবাৰু কোথায় থাকেন ? আবদুল হামিদও ছিল আমার সঙ্গে । তাই নিয়ে এসেছিলাম, হয় না হয় জিজ্ঞেস করে দেখবেন আবদুল হামিদকে। একবার নয়, ও ক’বার জিজ্ঞেস করেচে, আপনি কোথায় থাকেন। তখন বললাম—কেন ? ও বললে—হাত দেখাবো, অম্লখ করেচে। । —ও কি করে জানলে আমি ডাক্তার ? ও আসরে ছাড়া আমায় দ্যাথে নি ? –তা আমি জানি নে সত্যি বলচি কাউকে হয়তো জিজ্ঞেস করে থাকবে। কি একটা কথা বলতে যাবো এমন সময় বাইরে কে ডাকল—কে আছেন ? কম্পাউণ্ডার তখন আসে নি, আমি নিজেই বাইরে গিয়ে দেখি একজন লোক দাড়িয়ে আছে। বললাম—কোথেকে আসচো ? মনে হোল ওকে আমি খেমটা নাচের দলেই তবল! বাজাতে দেখেছি । . . লোকটা বললে--ডাক্তারবাৰু আছেন ? বললাম—কি দরকার ? —দরকার অাছে। কি মনে হোল, বললাম-না, আসেন নি । —ও ! আসবেন কি ? —তা বলতে পারি নে । গোবিন্দ দা লোকটাকে দেখে নি, ঘরের মধ্যে ঢুকতেই আমায় জিজ্ঞেস করলে -কে । নেই বলে দিলেন কেন ? হয়তো শক্ত রোগ।