পাতা:বিভূতি রচনাবলী (তৃতীয় খণ্ড).djvu/৪৪০

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


উমি মখের 80ο সন্তি নদ্যো দন্ডকেষ তথা পঞ্চবটী বনে। সরয বিচ্ছেদ শোকং রাঘবস্তু কথং সহেৎ ॥ পশুবটি ও দণ্ডকারণ্যে তো কত নদনদী বৰ্ত্তমান, কিন্ত সরয বিরহ দুঃখ কি রামচন্দ্র সহ্য করতে পারেন ? আমার মনে হয় বারাকপুরের ওদিকের বনশোভা নেই এই অঞ্চলে । মাঠে এদিকে চাষ অত্যন্ত বেশী, পোড়ো জমি কোথায় যে যদাচ্ছবিস্তৃত বনভূমি গড়ে উঠবে ? আরণ্য-প্রকৃতি এখানে মানযের সংস্পশে এসে ভীতা, সঙ্কুচিতা তার সে উদাম বাধীনতা নেই।. রান্না শেষ হবার কিছর আগে আমরা নদীর ধারে রৌদ্রে বসে তেল মেখে সাঁতার দিয়ে স্নান করলাম। আমি তো তেল মাখলাম বোধহয় তিন বৎসর পরে। সাঁতার দেবার সময়ে খবে আনন্দ হোল । ওপারে কচি মটরের ক্ষেতে কেমন সন্দের ফুল ফুটেচে—এই দলের মধ্যে མྰ་སྦྲུ”ཨ ভালবাসে দেখলাম কেবল একমাত্র সাবরেজিসট্রার। আর কারো সেদিকে খেয়াল নেহ । বেলা তিনটের সময় আমরা সবাই খেতে বসলাম । নিশিবাব ও সরেনবাব পরিবেশন করলেন। সকলের সঙ্গে আমোদ করে খাওয়া হয়ে গেল কিছ বেশী । সন্ধ্যার সময় সেই ঝোঁকে আমরা গল্প করতে করতে ফিরলাম । সন্ধ্যার সময় যতীন ডাক্তারের দোকানে, আমার বাল্যবন্ধ নিতাই পাড়াইয়ের সঙ্গে যতীনদার দোকানের অংশ নিয়ে খুব ঝগড়া হোল । নিতাই নিজের জিনিসপত্র লেপ বালিশ, দাঁড়িপাল্লা নিয়ে ছোট ছেলের হাত ধরে অন্ধকার রাত্রে বাড়ি চলে গেল ৷ যতীনদা ওর প্রাপ্য টাকা দিলে না, আরও বললে, তুমি দোকানের তালের মিছরি খেয়েচ, তোমার ছেলে দধ খেয়েচে,–টাকা আমার যখন খুশি হবে তখন দেব । কার যে দোষ তা দ-পক্ষের কেউই ববতে দিলে না—এ বলে ওর দোষ, ও বলে এর দোষ । বাঙ্গালীর ব্যবসায় এই রকম করেই নন্ট হয়ে যায় । র্যাস্কোর পল ভারলেনের জীবনী পড়ছিলাম। নিচের লাইন কটি বড় চমৎকার । Et je m'en vais And I going Au vent man vais Born by blowing Qui us” emporte Wind and grief Deac, deta Flutter here and there Parcil a la As on the air Feville morte The dying leaf. শেষের ছত্ৰ কয়টির ছন্দ ও সরে এর্ত মধর যে বার বার পড়লেও তৃপ্তি হয় না। ওর প্রথম দুটো stanzas " Le Sanglots longs Long sobbing wind Des violins The violins of a autumn drove De l’automre Wounding my heart Doune Languer With languor as smart MonotOne. In monotone. Fout suffo quant Choking and hale Et leteme, quand When on the gale Sonne l’heune The hours sound deep Je me Son viens I call to mind