পাতা:বিভূতি রচনাবলী (তৃতীয় খণ্ড).djvu/৪৪৯

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


88& বিভূতি-রচনাবলী থাকলেই আমি দেখি । “To those who have some feeling that the natural world has beauty in it, I would say, cultivate this feeling and encourage it in every way you can. Consider the seasons, the joy of spring, the splendour" of the summer, the sunset colours of the autumn, the delicate and graceful bareness of winter tress, the beauty of snow, the beauty of light upon water, what the old Greek called the unnumbered smiling of the sea.” “In the feeling for that beauty, if we have it, we possess a pearl of great price.” —Lord Grey of Falloden এ দিনটি প্রথম এক বাণিডল পরীক্ষার কাগজ সমনীতিবাবর বাড়ি নিয়ে গিয়ে দিয়ে এলাম। কথা ছিল মণিকুন্তলারা আজ রাজপরে যাবে পিকনিক করতে, ৮t৫৪ লোকাল ট্রেনে। আমিও ওদের সঙ্গে যাব, কিন্ত স্টেশনে যেমনি পা দেওয়া অমনি ট্রেন গেল চলে। পরের ট্রেনে গেলাম । বেগমনের মা খুব রান্না-বান্না করেছেন গিয়ে দেখি । মণিকুন্তলাকে বললাম—দ-দিন তোমার ওখানে গিয়ে দেখা পাই নি, এখানে এসেচ ভালই হয়েচে । আমরা খুব আনন্দ করে চা ও কলার বড়া খেলাম। মণির বোন রেণুর সঙ্গে আলাপ হোল, বেশ মেয়েটি, বৃদ্ধিমতী খাব ৷ রেণ যে ভাল নাচতে পারে, এ আমি এই প্রথম শনলম মণির মুখে । রেণ আমার কাছে এসে বললে–গলপ বলন। ছেলেমানষে—দু-একটি ভুতের গল্প শোনালমে। তারপর সে আর আমার কাছছাড়া হয় না । যেখানে আমি যাব সে সেইখানেই আছে উপস্হিত । বললে—আপনাকে আমার বড় ভাল লাগচে । তারপর সবাই মিলে বোসপুকুরে নাইতে গেলাম। থকাঁকে ডেকে নিলাম ওর বাড়ি থেকে । বোসপুকুরে সাঁতার দিয়ে পার হয়ে গেলাম । তারপর আর একটা পুকুরে নাইলাম । রেণ বললে—এক একজনকে কেমন হঠাৎ বড় ভাল লাগে, আপনাকে যেমন লেগেচে । দেখচেন না সব সময় আপনার সঙ্গে সঙ্গে আচি । তারপর বাড়ি এসে আমার আঙুলগুলো মটকাতে লাগল। বললে আর-জন্মে আপনার সঙ্গে সঙ্গবন্ধ ছিল । আমি বললাম—আমি তোর বাবা হব, আমার মেয়ে হবি ? সে বললে—তাহলে মেয়ের মতই দেখন। বলে—পাশে এসে আমার কাঁধে মাথা রেখে বসল । মণিকুন্তলা গান গাইলে আর ও নাচলে। ‘মোর ঘুমঘোরে এলে মনোহর নমো নমো, নমো নমো" বাবার শোকে রেণ নাকি পৰব'জন্মে আত্মহত্যা করেছিল, ওকে কে বলেচে নাকি । অদ্ভুত মেয়ে । ওর দিদি জ্ঞানবাবরে বাড়ি গেল—ও গেল না । বললে—ওরা মোটরে যাক, আপনি আর আমি যাব হে'টে। ബ সারা পথ ট্রেনে দ-বোনে গান গাইলে । বালিগঞ্জে জোর করে আমায় নামিয়ে নিলে । একটা গন্ধরাজ ফুল কোথা থেকে তুলে নিয়ে এসে আমায় দিলে । চেয়ারের পাশে জ্যোৎস্নায় বসে রইল সব সময়। বললে—ঠিকানা দেবেন, বাড়ি গিয়ে পত্র দেব। দুঃখ এই যে শীগগির