পাতা:বিভূতি রচনাবলী (তৃতীয় খণ্ড).djvu/৪৭১

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


8&ty विछूज्रि-ब्रह्ननावलौ মিছিলটাই বড় কিন্তু এমন কিছু দেখবার কি আছে বুঝলাম না। রাস্তার দু-পাশে, ছাদে, বারাদায়, পথের ধারে হাজার হাজার মেয়েমানুষের ভিড় । এ মেয়েদেরই দেখবার জিনিস । ওরা আজ এখানে আসে রামরাজাতলার সিদর দিতে ও মিছিল দেখতে। সবু মেয়েরই কপালে অনেকটা করে সিদর লেপা । ভিড়ের মধ্যে আমাদের গায়ের কিশোরী কাকার ছেলে সন্তোষ আর জীবনের সঙ্গে দেখা হোল । সন্ধ্যার সময় আবার ননীদের বাড়ি ফিরে এসে চা খেলাম। আজ ৩২শে শ্রাবণ বলেই মনটা মাঝে মাঝে অনেক দরে চলে যাচ্ছিল, অনেক দিন আগেকার এই সন্ধ্যা-গোধলির একটা ছবি পর-পর আমার মনে আসছিল। জতু দেখলাম মনে করে রেখেচে, সে ননীকে বললে—কোন গানটা গাওয়া যেত না বিভুতির সামনে, মনে আছে ? ননীরও মনে আছে । সে বললে—জানি ঃ "সে মুখ কেন অহরহ মনে পড়ে এই গানটা । আমি হাসলাম । এরা বেশ লোক । আমার জীবনের কতদিন আগেকার কথা এরা কেন মনে রেখেচে, কি দরকার এদের ! বিশেষ করে জতু মেয়েটি বড় ভাল, এত স্নেহশীলা । সন্ধ্যার পরে চলে এলুম, বাসে ভয়ানক ভিড়, মল্লিকের ফটক বন্ধ, বাস ঘরে এল জামতলা দিয়ে । সারাদিন পরে কলকাতার মুক্ত হাওয়ায় এসে এখন বাঁচলাম । জতু বার বার বললে—আজ রাতটা থেকে যান না, পপির ভাজবো এখন । আমার থাকবার জো নেই, লেখা আছে । Af বললাম—আর একদিন এসে রাত্রে থাকব। স্পেনের বিদ্রোহ কি ভীষণ মাত্তি ধারণ করচে । বাড়াজোজ শহর বিদ্রোহীরা অধিকার করেচে, রাস্তায় রাস্তায় barricade এবং প্রতোক barricade-এর গায়ে মতদেহ স্তপোকার হয়ে আছে, আর সীলোক ও বালক-বালিকারা মতদেহের স্তপ খুজে নিজেদের বাপ, ভাই ছেলে স্বামীর দেহ বার করতে ব্যস্ত । মানুষ এখনও কত আদিম-যুগে পড়ে রয়েচে তা এইসব ঘটনা থেকে বোঝা যায় । জাম্মানিতে বিদ্রোহের সময়েও ঠিক এই ধরনের নিষ্ঠুর কাণ্ড এই সেদিন ঘটে গিয়েচে, Ernest Toller-এর বই পড়লে তা জানা যায় । মানুষের প্রতি মানুষ এমন senseless নিষ্ঠুরতার অনুষ্ঠান কি করে করতে পারে ভেবেই পাই নে। এর মধ্যে বড় মানুষও জন্মেচে বৈকি ! Ernest Toller-এর ভাষায় বলি ৪— In the war there lined a man among millions Karl Liebkrecht; his was the voice of truth and of freedom. Even the prison groove could not silence that voice. grad ideal on fo of ox on I too socialist 3 communist-it #RTH বিরদ্ধে বিদ্রোহ করে গণতন্ত্র মহাপন করলে, খুব ভাল কথা । এ পয্যন্ত বুঝি। আবার এল Fascists-এর দল, এরা বিদ্রোহ করচে গণতন্ত্রের বিরুদ্ধে socialist-দের শাসনের বিরুদ্ধে, কিন্তু কি ভীষণ রক্তারক্তি আর নিষ্ঠুরতার মধ্যে দিয়ে অগ্রসর হচ্চে, ভাবলে বৰ্ত্তমান সভ্যতার ওপরে মানষের আস্হা থাকে না । দলে দলে যন্ধের বন্দীদের পড়িয়ে মারচে, বিষাক্ত গ্যাস পয্যন্ত ব্যবহার করচে । qTorfars affolio Koto-An easily realizable ideal quickly loses its power of stimulating, nothing lets a man down with such a pump into listless disillusionment as the discovery that he has achieved all his ambition and realized all his ideals. One actually seizes the peach which turns out to be a Dead Sea fruit. এ কথা স্বীকার করতে হবে যে কলকাতায় এবার গ্রামের ছয়টির পর এসে বিশেষ করে