পাতা:বিভূতি রচনাবলী (দ্বিতীয় খণ্ড).djvu/১৪৭

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


অপরাজিত Σ ΕΣ বলেছি, মা আসছেন—কি করছেন কলকাতায় ? রিপনে ?—বা, তা এতদিন আছেন, একদিন এখানে আসতে নেই ? বাল্যের সেই লীলা –একজন অত্যন্ত পরিচিত, অত্যন্ত আপনার লোক যেন দূরে চলিয়। গিয়া পর হইয়া পড়িয়াছে। ‘আপনি বলিবে না ‘তুমি বলিবে, দিশহারা অপু তাঙ্গ ঠাহর করিতে পারিল না। বলিল,—কি ক’রে আসব ? আমি কি ঠিকানা জানি ? লীলা বলিল—ভাল কথা, আজ এখানে হঠাৎ কি ক’রে এসে পড়লেন ? অপু লজ্জায় বলিতে পারিল না যে, সে এখানে থাকিবার স্থানের সুপারিশ ধরিতে আসিয়াছে। লীলা জিজ্ঞাসা করিল—ম ভাল আছেন ? বেশ–আপনার বুঝি সেকেণ্ড ইয়ার ? আমার ফাস্ট ইয়ার আর্টস্। একটি মহিলা ঘরে ঢুকিলেন। অপু চিনিল, বিস্মিতও হইল। লীলার মা মেজ-বৌরানী, কিন্তু বিধবার বেশ । আট দশ বৎসর পূর্বের সে অতুলনীয় রূপরাশি এখনও একেবারে নিশ্চিহ্ন হইয়া না গেলেও দেখিলে হঠাৎ চেনা যায় না। অপু পায়ের ধূলা লইয়া প্ৰণাম করিল। মেজ-বৌরানী বলিলেন—এসে বাবা এসো, লীলা কালও একবার বলেছে, কে এক জন বসে আছে মা, ঠিক বধর্মানের সেই অপূর্বর মত—আজ আমাকে গিয়ে বললে, ও আর কেউ নয় ঠিক অপূর্ব—তখুন আমি ঝিকে দিয়ে ডাকতে পাঠালাম—বসে, দাড়িয়ে কেন বাবা ? ভাল আছ বেশ ? তোমার মা কোথায় ? অপু সঙ্কুচিতভাবে কথার উত্তর দিয়া গেল। মেজ-বেীরানীর কথায় কি আন্তরিকতার স্বর ! যেন কত কালের পুরাতন পরিচিত আত্মীয়ভার আবহাওয়া। অপু কি করিতেছে, কোথায় থাকে, মা কোথায় থাকেন, কি করিয়া চলে, এবার পরীক্ষা দিয়া পুনরায় পড়িবে কি না, নানা খুঁটিনাটি প্রশ্ন । তারপর তিনি চা ও খাবারের বন্দোবস্ত করিতে বাড়ির মধ্যে চলিয়া গেলে—অপু বলিল—ইয়ে, তোমার বাবা কি— লীলা ধরা গলায় বলিল—বাবা তো, এই তিন বছর হ’ল—এটা মামার বাড়ি— অপু বলিল—ও ! তাই ঝি বললে দিদিমণি ডাকছেন –মানে উনি—না ?--মি: লাহিড়ী কে হন তোমার ? —দাদামশায়—উনি ব্যারিস্টার, তবে আজকাল আর প্রাকৃটিশ করেন না—বড় মামা হাইকোর্টে বেরুচ্ছেন আজকাল । ও-বছর বিলেত থেকে এসেছেন। চা ও খাবার থাইরা অপু বিদায় লইল। লীলা বলিল—বড় মামার মেয়ের নেমূ-ডে পাটি, সামনের বুধবারে। এখানে বিকেলে আসবেন অবিপ্তি অপূর্ববাবু।–ভুলবেন না যেন—ঠিক কিন্তু ভুলবেন না। 尊 পথে আসিয়া অপুর চোখে প্রায় জল আসিল। ‘অপূর্ববাবু — লীলাই বটে, কিন্তু ঠিক কি সেই এগারে বছরের কৌতুকময়ী সরলা স্নেহময়ী লীলা ।. সে লীলা কি তাহাকে অপূর্ববাবু বলিয়া ডাকিত ? তবুও কি আন্তরিকতা ও আত্মীয়তা . আর মিজের আপনার লোক জ্যাঠাইমাও তো কলিকাতায় আছেন—মেজ বৌরানী সম্পূর্ণ