পাতা:বিভূতি রচনাবলী (দ্বিতীয় খণ্ড).djvu/৩৩১

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


মৌরীফুল \రిe(t কর্ণসেন ভাবলেন—উ:, কি মুযোগই হারিয়েছি। আজ যদি আমার বাড়িখন ছেড়ে দিতাম তো এই রাত্রের সঙ্গে আমার প্রাণের একটা যোগ হোত। আমার সঙ্গে ভগবানের আর কোন সম্বন্ধই নেই, কারণ আমি স্বর্থপর, আমি তার প্রেরণার অবমাননা করেছি। আকাশের সে দুর-নক্ষত্রটির ভৎসন থেকে নিজেকে বাচাবার জন্তে কর্ণসেন জানালা বন্ধ ক" দিলেন ।--- হঠাৎ আতুরদের মৃত্যুচ্ছায়াচ্ছন্ন মুখগুলি আবার তার মনে এল—আহা, এই রাত্রে তারা সব আশ্রয় অভাবে পথে শুয়ে রয়েছে !.. কর্ণসেন ভাবলেন—দিই না বাড়িধান ছেড়ে । অবশ্ব এ দানে আমার আর কোনো গৌরব নেই, কিন্তু তা নাই বা হোল, এই নিরাশ্রয় লোকগুলো তো আশ্রয় পাবে ? এই শীতে তারা ষে সব পথে শুয়ে মরছে !... কর্ণসেনের মনের সে গোপন কক্ষটিতে এবার আর কোন ও সুর শুনতে পাওয়া গেল না । তার পরদিন নগরের লোকে শুনলে, কর্ণসেন তার বিরাট প্রাসাদ-তুল্য বাড়ি নগরের দুঃস্থ আতুরদের আরোগ্যশালার জন্তে ছেড়ে দিয়েছেন। এ ব্যাপারটা তখন আর নতুন নয়। কেউ কেউ একটু আধটু প্রশংসা করলে। কেউ ভাবলে, দেবার ইচ্ছে ছিল না, মানের দায়ে দিতে হোল । যথাসময়ে কর্ণসেনের মৃত্যু হোল । তিনি তার কৃতকর্মের ফলাফল শুনতে ধমরাজের থাস-দরবারে নীত হলেন। সামনে প্রকাও খাতা খুলে বসে চিত্রগুপ্ত। তিনি খাতা দেখে বললেন—দাভার স্বৰ্গ-ই হচ্ছে সমস্ত স্বর্গ থেকে শ্রেষ্ঠ । এক একটি দানে শত মন্বন্তর করে সে-স্বর্গে বাস করবার অধিকার জন্মায় । তোমার একশত মম্বস্তর দাভার স্বর্থে বাস করা মঞ্জুর হয়েছে। - কর্ণসেন একটু ভেবে মাথা চুলকে বললেন–বোধহয় হিসেবে ভুল হয়ে থাকবে, আর একবার না হয়—কারণ--- চিত্রগুপ্ত খাতার পাতে আর একবার চোখ বুলিয়ে বললেন—ন, ভুল হয় নি। তুমি একবার তোমার বসতবাটী অত্যন্ত মড়কের সময় তোমার দরিদ্র প্রতিবেশীদের উপকারের জন্যে ছেড়ে দিয়েছিলে—এই একটি ছাড়া তোমার অন্য কোনো দানের কথা তো খাতায় লেখা দেখছি নে বাপু । কর্ণসেন বেকুপের মত দাড়িয়ে রইলেন। যমরাজ অন্ত কি কাজে নিযুক্ত ছিলেন। • তিনি অন্তর্যামী ; কর্ণসেনের মনের কথা স্তার মনে গিয়ে পৌঁছলো। তিনি মুখ তুলে হেসে বললেন—বুঝেছি বাপু । কিন্তু তোমার অন্ত অল্প দানের পুরস্কার আমরা তো তোমাকে সঙ্গে সঙ্গেই দিয়ে দিয়েছি। তুমি দান করে কি একটা সুন্দর আত্মপ্রসাদ উপভোগ কর নি ? ه R--ه fR. g