পাতা:বিভূতি রচনাবলী (সপ্তম খণ্ড).djvu/১১১

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


অনুবর্তন এবেল পরীক্ষা দেওয়া রহিত হইয়া গেল। বাড়ীতে তাহাজের অভিভাবকদের কাছে পত্র গেল। নারাণবাৰুর ছাত্র চুনি বাড়ী যাইতেছিল, নারাণবাবু ডাকিয়া পাঠাইলেন।—ই্যা চুনি, তুমি নোট লিখে এনেছিলে ? চুনি চুপ করিয়া রহিল। —কেন এনেছিলে । কার কাছ থেকে লিখে এনেছিলে ? ও লিখে আন কি তোমার উচিত হয়েছে ? —না স্তার। —তবে আনলে কেন ? —আর কখনও আনব না। —তা তো আনবে না বুঝলাম। এদিকে একটা পেপার পরীক্ষা দিতে পারলে না। পাসনম্বর থাকবে কী করে, তাই ভাবছি।-চুনি, থিদে পেয়েছে ? কিছু খাবি ? অায় আমার ঘরে। নিজের ছোট ঘরটাতে লইয়া গিয়া নারাণবাৰু তাহার পিঠে হাত দিয়া কত ভাল ভাল কথা বুঝাইলেন—মিথ্যা দ্বারা কখনও মহৎ কাজ হয় না, ইত্যাদি। গীতার শ্লোক পড়িয়া শোনাইলেন। ছোলা-ভিজা ও চিনি এবং আধখানা পাউরুটি খাওয়াইলেন। চুনি যাইবার সময় বলিল, স্যার, একটা কথা বলৰ ? বাড়ী গিয়ে কোন কথা বলবেন না যেন— —না, আমার যেচে বলবার দরকার কী ! কিন্তু হেডমাস্টারেব চিঠি যাবে তোমার বাবার নামে । চুনির মূখ শুকাইল। বলিল, কেন স্যার । -उाहे जारश्रदत्व नििग्नश । —আপনি হেডস্তারকে বুঝিয়ে বলুন না। আপনি বললেই— —যা, বাড়ী যা এখন। দেখি আমি। চুনি চলিয়া গেলে নারাণবাৰু ভাবিতে লাগিলেন, চুনির এ অসাধু প্রকৃতিকে কী করিয়া ভিন্ন পথে ঘুরাইবেন । আজ যেভাবে বলিলেন, ও ঠিক পথ নয়। গীতার শ্লোক বলা উচিত হয় নাই—অতটুকু ছেলে গীতার কথা কী বুঝিবে ? .তাহার নোটবুকে টুকিয়া রাখিলেন —চুনি-মিথ্যা ব্যবহার, হাউ টু কারেক্ট, অমুকুলবাবু হইলে কী করিতেন ? নারাণবাৰু গভীর দুশ্চিন্তায় মগ্ন হইলেন। চায়ের দোকানে বসিয়া সে দিন যদুবাৰু আস্ফালন করিতেছিলেন : এক পয়সার মুরোদ নেই স্কুলের–আবার লম্বা লম্বা কথা ! ডিউটি, ট্রথ! আরে মশাই, পূজোর ছুটির মাইনে ছু টাকা এক টাকা করে সে দিন শোধ হল। গরীব মাস্টারেরা কী থার বল তো ? ক্ষেত্রবাৰু হাসিয়া বলিলেন, না পোষায়, চলে যেতে পারেন দাদা। সাহেবের গেট ইজ ওপ ন – রামেন্দুবাৰু আর নতুন টীচার নন-ই-তিন বছর হইয়া গেল এ স্থলে, তিনি পূব দিন এ মজলিসে থাকেন না, আজ ছিলেন। বলিলেন, জাহুয়ারি মাস থেকে মাইনে কাটা হবে,