পাতা:বিভূতি রচনাবলী (সপ্তম খণ্ড).djvu/৯২

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


বিভূতি-রচনাবলী স্বার্থাম্বেষী, প্রিন্সিপল-বিহীন ধাহারা(যেমন যন্ধুবাবু), মিঃ আলমের দলে যোগ দিয়াছেন ; ক্ষেত্রবাবু ও শ্ৰীশবাৰু মনে মনে মি: আলমের দলে আছেন, মুখে কিছু বলেন না। কেবল নারাণবাবু ও নতুন টীচার রামেন্দু দত্ত নিরপেক্ষ, কোন দলেই নাই। ইহাদের মিটিং প্রতি দিন ছুটির পর ভেতলার ঘরে;হয়—নতুন টীচার ও নারাণবাৰু সেখানে থাকেন না । এই অবস্থার মধ্যে আসিল পূজার ছুটির সপ্তাহ। শনিবারে ছুটি হইবে। ছেলের ক্লাসে ক্লাসে ছুটির দিন শিক্ষকদের জলযোগের ব্যবস্থা করিতেছে। শিক্ষকদের মধ্যে কেহ কেহ গোপনে তাহাদের উসকাইয়া না দিতেছেন এমন নয় । —কী রে, পড়াশুনা কিছুই হয় নি কেন ? গ্রামার মুখস্থ ছিল, টাস্ক ছিল, কিছু করিস নি ? খাওয়াতে ব্যস্ত আছিল বুঝি ? কি ফর্দ করলি এবার } ফর্দ শুনিয়া যদুবাৰু উদাসীন ভাবে বলিলেন, এ আর তেমন কী হল—এবার থার্ড ক্লাসে যা করবে, শুনে এলুম— ক্লাসের চাই বালকেরা সাগ্রহ কলরবে বলিয়া উঠিল, কী স্যার-কী স্তাবৃ—? —আইস্ক্ৰীম, লুচি, আলুর দম, হরি ময়রার কড়াপাকের সন্দেশ– —স্তার, আমরাও করব আইসক্রিম। —হরি ময়রার সন্দেশ স্তার, কোথায় পাওয়া যায় । —সে আমি তোদের এনে দেব, ভাবন কী ! পয়সা দিস আমার হাতে। —কালই দেব চাঁদা তুলে। —স্তার, আপনার হাতে আমরা দশ টাকা দেব, আপনি যাতে থার্ড ক্লাসের চেয়ে ভাল হয়, তা কিন্তু করবেন। থার্ড ক্লাসে গিয়া যদুবাৰু বলিলেন, ও, ছুটির টাস্কটা সবাই লিখে নে, ভূলে গিয়েচি একেবারে । তোদের এবার কী বন্দোবস্ত হচ্ছে রে ? কিন্তু এবার ফোর্থ ক্লাসে ষা হচ্ছে, তার কাছে তোরা পারবি নে। . শ্ৰীশবাবু ও জ্যোতিবিনোদ অক্ট অন্য ক্লাসে উস্কাইলেন। প্রতি বৎসর ক্লাসে ক্লাসে টেক দিবার চেষ্টা করে । ছুটির পর হেডমাষ্টারের ঘরে নতুন টীচার গিয়া টেবিলের সামনে দাড়াইলেন। —স্তার, আপনার সঙ্গে গোপনীয় কথা আছে-কখন আসব। —ও, মিঃ দত্ত ! তুমি সন্ধ্যার পর এসো—আজ আর টুইশানিতে যাব না। —বেশ । ছুটির পর প্রায় দেড় ঘণ্টা মাস্টারের৷ থাকিয়া ছেলেদের সেকেও টার্মিনাল পরীক্ষার ফল লিপিবদ্ধ করিলেন, প্রোগ্রেস-রিপোর্ট লিখিলেন, বাধিক পরীক্ষার প্রশ্নপত্র সিজিল-মিজিল করিলেন—বড় একটা ছুটির আগে অনেক কাজ। অথচ সকলেই জানে, ছুটির মাহিনা কেহ পাইবে না। এই শারদীয় পূজার সময়ে সকলকে শুধু হাতে বাষ্ঠী যাইতে হইবে-উপায় নাই।