পাতা:বিশ্বকোষ ঊনবিংশ খণ্ড.djvu/২০

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


বিশালদেশ সামবিস্তার বিংশযোজন । বিশালনগরের অধিবাসিগণ অধিকাংশই ধৰ্ম্মিক । এই দেশের মধ্যে আরও তিনটী ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র দেশ আছে । তাহদের একটর নাম চম্পারণ, দ্বিতীয়ট শীলাময়, তৃতীয়ট দীর্ঘস্থার । এই শেষোক্ত দেশট অপেক্ষাকত ক্ষুদ্র হইলেও বিশালদেশের যাবতীয় ঘটনা এই নামেই উল্লেখ্য। ইহার অন্তর্গত একট প্রসিদ্ধ স্থান আছে, তাহার নাম কসময় । , দীর্ঘদ্বার দেশের সংক্ষিপ্ত বিবরণ এই---দীর্ঘশ্বারের অধিবাসিগণ সকলেই ধৰ্ম্মিষ্ঠ, পরদারে বিমুখ, ও কৃষিকাৰ্য্যে তৎপর ছিল । এখানকার ব্রাহ্মণগণ শাস্ত্রনিষ্ঠ এবং ধাৰ্ম্মিক । অধিবাসীদিগের মধ্যে সকলেরই ধৰ্ম্মকৰ্ম্মে প্রবল অনুরাগ । উহাদের পরম্পর বিবাদ বিসম্বাদ নাই। লোক গুলি কৃঞ্চবর্ণ, তাছাদের মধ্যে আবার স্থায়tশই গলগণ্ড ও গণ্ডমালারোগাক্রাস্ত । উচ্চার গগুকী নদীর জল ব্যবহার করিলে ও কলির প্রভাবে উহাদের রোগশোক আমি বার্য্য । শস্তমধ্যে এখানে প্রচুর ধান্তের উৎপত্তি হয়। এখানে তিন জাতিব বাস, ব্রাহ্মণ, কায়স্থ এবং কুড় মি । কলির প্রাবস্তুে দীর্ঘশ্বারে পর পর চারিজন রাজার রাজত্বকাল । দীর্ঘশ্বারের অৰ্দ্ধযোজন দূরে মহাদেবী অধিকার অধিষ্ঠান । রাজা বিশাল, ঐ দেবীর প্রতিষ্ঠাতা । দীর্ঘস্বারের অধিবাসিগণ উছার পূজাকাৰ্য্যে তৎপর। বিশালদেশস্থ দ্বিজাতিবর্গ বেদচর্চায় রত। জ্ঞানে, ধনে, শৌর্য্যে, সন্মানে সকল বিষয়েই ইহঁারা বিশাল নামের যোগ্য । দীৰ্ঘদারবাসিগণ কলির প্রারম্ভে নষ্ণক, ধনহীন, স্ত্রৈণ এবং মাত, পিতা, জ্ঞাতি, ভ্রাতা ও সুহৃৎ সজ্জন প্রভৃতিরও ধন হরণ করিয়া আত্মসুখ সাধনে রত হয় । এতদ্ভিন্ন থওমৰ্ত্ত, স্থানে যাহাদিগের বাস, রাজকীয় করদান ব্যাপারে তাহারা একেবারেই বিমুখ। কলির একাংশ অতীত হইলেই ঐ দেশে কেতুর উদয় হয়, কিন্তু একটা কেতু নয়, খেত, নীল ও রক্তবর্ণ ভেদে পর পর চারিট ভীষণ কেতুর উদয় অনিবাৰ্য্য। ইহার লোকনাশের হেতুভূত ; ফলিলও তাই—সেই সময় বিশালদেশবাপীদিগের সঙ্গে নেপালীসৈম্ভের গওৰ্কী নদীতীরে ঘোর যুদ্ধ হয়। এই যুদ্ধের স্থিত্তিকাল তিন বর্ষ । হরিহর শিবদেব তখন বিশালের রাজা। নেপালীদিগের সহিত যুদ্ধে বিশালদেশ বিধ্বস্ত ছয় । তৎপরে নেপালসৈন্ত কর্তৃক বিশালদেশে অবাধনুষ্ঠন, বালবৃদ্ধনিৰ্ব্বিশেষে বহু লোকের শিরশ্বেদন, পরে বিশালরাজ্য "নেপাল অধিকারে সংস্থাপন। এই সকল ঘটনা কলির প্রারম্ভে সংঘটিত হয়। নেপালীদিগের লুণ্ঠনে দেশ দরিদ্র হইয় পড়ে। দারিদ্র্য তাড়নায় বিশালবাসীরা দেশ ছাড়িয়া অস্কত্র গিয়া বাস করে । [ St. J l বিশালদেশ কাপ্তিক মাসে এখানকার গঙ্গা এবং গগুর্কী নদীর সঙ্গম ৰড়ই পুণ্য প্রদ। তাই স্নানতপণাদি করিয়া ৰাত্ৰিগণ এখানে প্রতি বর্ষে পাপ ক্ষালন করে । 4. এক্ষণে বিশালম্বেশস্থ প্রসিদ্ধ, প্রসিদ্ধ গ্রামগুলির বিবরণ সংক্ষেপে বলা বাইতেছে। বিশালরাজ্যের এক দীর্ঘদ্বার প্রদেশেই সাত হাজার গ্রাম। এই সপ্ত সহস্র গ্রামের মধ্যে ত্ৰিশট গ্রাম বিশেষ উল্লেখযোগ্য। প্রথম গ্রাম হরিহরছত্ৰ । এই গ্রাম গণ্ডকীতীরে বিরাজিত। এখানকার অধিবাসীদিগের মধ্যে ব্রাহ্মণের সংখ্যাই বেশী। শূদ্রাদি অন্যান্ত জাতির বাস তদপেক্ষা কম। এইখানে হরিহরদেবের এক অত্যুচ্চ মন্দির আছে। উছার দৃপ্ত বড়ই চমৎৰায়। প্রতিবর্ষে হরিহরদেবের সম্মুথে একটা মেলা বসিয়া থাকে। এই মেলায় গ্রাম্য এবং অরণ্যজাত বহু পশু বিক্রীত হয়। তদ্ভিন্ন অনেক মূল্যবান রত্নাদিরও এখানে কেনাবেচা হইয়া থাকে । ১৫ • e ধিক্রম সম্বতে আমের বা আমীরনগরীর অধিপতি মানসিংহ যবনরাজের আদেশে যশোরাধিপতিকে বিনাশ করিতে যাত্রা করিয়া গগুকীতীরে আসিয়া শিবির স্থাপন করেন । তিনি স্বব্যয়ে অত্রত্য প্রাচীন হরিহর মন্দিরের জীর্ণসংস্কার করাইয়া দেন এবং দেবসেবার্থ বিস্তর ভূসম্পত্তি দান করেন। আমে-গ্রামের দক্ষিণে দীর্ঘদ্বার প্রদেশের অন্তর্গত শঙ্করপুর একটা প্রসিদ্ধ গ্রাম। এই গ্রামে কল্যাণকারী নামে এক শিবলিঙ্গ ছিলেন, যবনাধিকারে তঁহীর অন্তর্ধান হয় । সঙ্গে সঙ্গে পাপস্রোতে এই গ্রামের সর্বসমৃদ্ধি বিলুপ্ত হয়। তৃতীয় ধল গ্রাম । এই গ্রামের সোমদত্ত নাঙ্ক এক ব্রাহ্মণের গৃহে একট কপিলা গাভী ছিল। এই জন্য ইহার অপর নাম কপিলগ্রিাম । প্রবাদ—ঐ গাভীর কৃপায় এ গ্রামে ভক্ষ্য ভোজ্য পেয়ারি কোনই অভাব ছিল না । গাভীর আদেশ-যদি গ্রামে গোহত্য হয়, তবেই এই গ্রামের ধ্বংস অবশুস্তাব । পরবর্তী গ্রামের নাম গঙ্গাজল। এ গ্রামটী বিশেষ সমৃদ্ধ। পুরাণখ্যানে প্রকাশএ গ্রামের সমস্ত বাহ্মণই ত্রিসন্ধা গঙ্গাঙ্গান করিতেন । কৰ্ম্মফলে হঠাৎ এক ব্রাহ্মণ পঙ্গু হইয়া পড়েন । গঙ্গাস্নান করিতে পরিবেন না বলিয়া ব্রাহ্মণ তখন চিন্তায় আকুল, স্নানাহার নাই, সমস্ত দিন উপবাসী ; রাত্রিতে স্বপ্ন হইল, ধাবৎ ব্যাধি আরোগ্য না হয়, গঙ্গাদেবী ব্রাহ্মণের গর্গর মধ্যে ততদিন থাকিবেন । সেই হইতে গ্রামের নাম গঙ্গাজল । গঙ্গাজলগ্রামস্থ ব্রাহ্মণগণের পাপাচারে গ্রামের ধ্বংসসাধন, সপ্তবর এই গ্রামে অগ্নিদাহন, তারপর কস্কিদেবের আবির্ভাৰ পৰ্য্যন্ত গছন অরণ্যে ইহার পরিণতি, ইহাই ভবিষ্যদ বাণী । গম্বাহার একটা প্রধান গ্রাম। কলিতে ইহা নৰনাধিকারে