পাতা:বিশ্বকোষ একাদশ খণ্ড.djvu/১০৪

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


T- -- - † পশ্বাচারী • * [ কোলাচার-প্রকৃত পক্ষে কোলাচারের কোন নিয়ম নাই । স্থ'নাস্থান, কালাকাল ও কৰ্ম্মাকৰ্ম্মের কিছু বিচার করিতে হয় না। মহামন্ত্র সাধনে দিক্ ও কালের নিয়ম নাই । তিথি ও লগাত্রাদিরও নিয়ম নাই । কোন স্থানে শিষ্ট, কোথাও ভ্রষ্ট, কোথাও বা ভূত পিশাচতুল্য এই প্রকায় নানা বেশধারী কেীল সমুদায় পৃথিবীতে বিচরণ করেন। কর্দম ও চন্দনে এবং পুত্র ও শক্রতে যাহার ভেদজ্ঞান নাই, শ্মশান ও গৃহে এবং কাঞ্চন ও তৃণে যাহার প্রভেদ নাই, সেই ব্যক্তি কেীল বলিয়। বর্ণিত হইয়াছে। शोभां-ब्रट्टश शिथिष्ठ रुहेब्रां८छ्, यैहिाँब्राँ अड८ग्न भांखा, ৰাহিরে শৈব এবং সভামধ্যে বৈষ্ণব, এইরূপ নানাবেশধারী ৰোগীই কৌল নামে পরিচিত । “অস্তঃশাক্ত বহিঃ শৈবাঃ সভায়াং বৈষ্ণব মতাঃ। নানারূপধরাঃ কেীল বিচরস্তি মহীতলে ॥” ( শুাষারন্থত ) বীরাচারী হইতে পশ্বাচারীর মদ্য-মাংসাদি ব্যবহার-বিষয়ে নিষিদ্ধ থাকিলেও, উভয় আচারেই পশুবলির বিধান আছে (১)। পশুবলিদান তন্ত্রোক্ত শক্তি উপাসনার একট প্রেধান অঙ্গ । তদনুসারে গে। ব্যাঘ্র মনুষ্য প্রভৃতি কোন জীবই পশুবলির অযোগ্য নয়। তন্ত্রাদিতে সাত প্রকার আচারের লক্ষণ ও ব্যবস্থা নিরূপিত হইলে ও শাক্তদিগের মধ্যে সচরাচর দুইটা মাত্র সম্প্রদায় দেখিতে পাওয়া যায়, তাহ দক্ষিণাচারী ও বামাচারী । যাহার। প্রকাশুভাবে বেদাচারের নিয়মানুসারে ভগবতীর অর্চনা করেন ও বামাচারীদিগের অঙ্গুষ্ঠেয় মদ্য-ব্যবহার ও শক্তি সাধনাদি না করেন, তাহারাই সাধারণতঃ দক্ষিণাচারী নামে প্রসিদ্ধ। তাহারা সুরা গ্রহণ করেন না বটে ; কিন্তু পখাচারের নিয়মীমুযায়ী ইচ্ছাক্রমে অল্প বা বহুসংখ্যক ৰলি দিয়া থাকেন । ( কাশীনাথপ্রণীত দক্ষিণাচারতন্ত্ররাজে ইহুদিগের কর্তব্যাকৰ্ত্তব্যের বিশেষ ৰিবরণ প্রকটিত হইয়াছে । ) মদ্যাদি দান ও সেবন বামাচারীদের অবগু কৰ্ত্তব্য, তাহ ১০২ ] (১) বলি দুই প্রকায়, রাজসিক ও সীৰিক । মাংস রক্তাদিবিশিষ্ট্র বলিকে রাজসিক, আয় মুদ্রগ, পাঙ্কস, যুক্ত, মধু ও শর্করাযুক্ত এবং রক্তমাংসাদি বর্জিত বলিকে সাত্ত্বিক বলি বলে । SBBBS BBBBSBS BBBBBBBBBBS BBBBBBBS কালিকাপুরাণে চণ্ডিকা তৈরবাদি শক্তি-উপাসনায় জীৰ বলিয়া উল্লেখ श्र"cए । यणिवांद्रा भूसिगtषम 4पर ५३ शनि चाब्र चर्ण नt५म श्ब्र BBBS BB BB BBB BDD DDS DDDDDD BBBS BB DDDDS "সম্বর্ষে শিব। কুৰ্ব্বস্তি তমসা জীবঘাত্তনম্। জকৰপকোটিলিয়য়ে তেষাং বাসে ন সংশয়ঃ।” (পয়পুরাণ) ו:tpחזי* না করিলে কোন প্রকারে সাধকের সিন্ধিলাভ হয় না। শুামরহস্তে লিখিত আছে—মদ্য, মাংস, মৎস্ত, মুত্র। (১) ও মৈথুন এই পঞ্চমকারে মহাপাতক বিনাশ করে । দিবসে এইরূপ ব্যবহার করিলে পাছে হস্তিাম্পদ হইতে হয়, এই নিমিত্ত রাত্রিযোগে ইহায় অনুষ্ঠান আদিষ্ট হুইয়াছে এবং তাহ গোপন করিবার জষ্ঠ কৌলদিগের কপট ব্যবহার করিবারও ব্যবস্থা cमeब्र! श्हेद्रांप्छ् । নিরুত্ত্বরতন্ত্রের প্রথম পটলে লিখিত অাছে,-সাধক রাত্রিযোগে কুলক্রিয়া এবং দিবাভাগে বৈদিকক্রিয়া করিবে । এইরূপে ভিন্ন ভিন্ন যোগ সাধনা করিয়া ষোগিব্যক্তি দিৰায়াৰ দেবীর অর্চনা করিবে। ( নিরুত্তরতন্ত্র ১ প” ) পূজা হুই প্রকার—বাহপূজা এবং অন্তর্যাগ। গন্ধ, পুষ্প, ভক্ষা, ও পানীয় প্রদানাদি দ্বারা যে পূজা হয়, তাহাই বাস্থপূজা এবং চিৎক্লপ পুষ্প, প্রাণরূপ ধুপ, তেজোরূপ দীপ, বায়ুরূপ চামর প্রভৃতি কল্পিত উপচারাদি দ্বারা যে আন্তরিক সাধন, তাহার নাম অন্তর্যাগ। যট্‌চক্রভেদ এই অন্তর্যাগের প্রধান অঙ্গ । { ঘটুচক্র দেখ। ] এইরূপ লিখিত আছে যে, সাধক নিজ গুরুর উপদেশাতুসারে শরীরস্থ বায়ুর যোগে অগ্নির গতি দ্বারা কুওলিনী শক্তিকে উত্তেজিত করিবে। পরে হ্র এই বীজমন্ত্র উচ্চারণপূৰ্ব্বক তাহাকে চেতন করিয়া চিত্ৰিণী নাড়ী মধ্যগত পথ দিয়া মূলtধার অবধি আজ্ঞা পৰ্য্যস্ত ছয় পদ্মকে এবং মূলাধার, অনাহত ও আজ্ঞা এই তিন পদ্মে অবস্থিত তিন শিবকে ভেদ করিবে । অনস্তর কুগুলিনীকে সহস্রদল কমলে স্থাপন করিয়া তন্ত্রস্থিত পরম শিবের সহিত সংযুক্ত করিবে । অতঃপর উভয়ের ংযোগে উৎপন্ন পরমামুত পান করিয়া পূৰ্ব্বোক্ত কুলপদ্ম দিয়া কুগুলিনীকে মূলাধারপরে আনয়ন করিতে হইবে, এইরূপ অন্তর্যাগ সাধনে প্রবৃত্ত যে সমস্ত বীরাচারী ব্যক্তি মদ্য-মাংসাদির দ্বারা ভগবতীর উপাসনা করেন, তন্ত্ৰমতে তাহারাই তাহার প্রিয়-সাধক (২) । ( কুলার্ণব ) বীরাচারীর মধ্যে মধ্যে চক্র করিয়া দেব দেবীর সাধন। করিয়া থাকেন, এ প্রদেশে ইহাই প্রসিদ্ধ। স্ত্রীচক্র কিরূপ নিম্নে লিখিত হইল,— 叙 (s) "ममा९ भात्मक भ९मा% भूजा प्रेमभूनप्मद छ । মকারপঞ্চকঞ্চৈব মহাপাতকনাশনম্।।” ( শুমারহস্য ) লোকে মদ্যের সহিত যে উপকরণ সামগ্ৰী ভক্ষণ করিয়া থাকে, তাহারই নাম মুদ্র । (২) শৈব, বৈঞ্চৰ, শাক্ত, সোঁয়, বৌদ্ধ, পাশুপত, সাংখ্য কলামুখগ্ৰস্ত, দক্ষিণাচার, দর্শনিক, ৰামাচার, সিদ্ধাস্তাচার এবং বেদাচারাদি সমুদtn