পাতা:বিশ্বকোষ একাদশ খণ্ড.djvu/৩৩৮

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


পাশুপতত্রত [ ००8 ] পাশুপতদর্শন হয় না। এই ব্ৰতামৃষ্ঠাতার সকল পাপ বিদূরিত এবং অস্তিমে স্বৰ্গলাভ হয় ।* ( অগ্নিপু পাশুপতত্রত দানাধ্যায় )। শিবপুরাণে বায়ুসংহিতায় লিখিত আছে— “রহস্তং বঃ প্রবক্ষ্যামি সৰ্ব্বপাপনিকুন্তনম্। ব্ৰতং পাশুপতং শ্রেীতমথধ্বশিরলি শ্ৰুতম্।।” (শিবপু" )। চৈত্রমাসের পৌর্ণমালীতে এই ব্ৰত করিতে হয়। যথাবিধানে সংকল্প করিয়৷ সেই অনুসারে শিবপূজা ও ছোমাদি করিতে হইবে । ছোমাৰমানে ছোমের ভষ্ম গাত্রে মাখিবে । এই ব্ৰত সকল পাপনাশক। শিবপুরাণের বায়ুসংহিতার পুর্ব খণ্ডে ২৯ অধ্যায়ে এই ব্রতের বিশেষ বিবরণ লিখিত আছে, বাহুল্যভয়ে তাহা লিখিত হইল না। ২ যোগবিশেষ । এই যোগ আশ্রয় করিলে অচিরে মুক্তিলাভ হয়। শিবপুরাণে লিখিত আছে, "ঋষিগণ ৰায়ুর নিকট জিজ্ঞাসা করিয়াছিলেন, শ্রেষ্ঠ তত্ত্ব কি ? যাহার অনুষ্ঠানে মোক্ষলাভ করিতে পারা যায় । ইহাতে বায়ু বলিয়াছিলেন, পাশুপত যোগই শ্রেষ্ঠ, পাশুপত যোগী সকল বন্ধন হইতে ‘মুক্তিলাভ করেন। পশুপতি শিবই একমাত্র পরম তত্ত্ব। ইনি সাক্ষাৎ মোক্ষ প্রদ। ক্রিয়া, তপস্তা, জপ, ধান ও জ্ঞান এই পঞ্চ কৰ্ম্মদ্বারা উহাকে লাভ করা যায়। ক্রিয়াদি পঞ্চকৰ্ম্মদ্বারা ইহাকে লাভ করিতে পারিলেও ইনি একমাত্র জ্ঞানগম্য। এই জ্ঞান পরোক্ষ ও অপরোক্ষভেদে দুই প্রকার । এই মতে শ্রুতি প্রতিপাদিত পরম ও অপরম ভেদে ধৰ্ম্মও দুইপ্রকার। তাঁহার মধ্যে যোগই পরম ধৰ্ম্ম, তদ্ভিন্ন ধৰ্ম্ম অপরমপদবাচ্য । আগম দুইপ্রকার শ্রেীত ও অশ্রোত। ইহার মধ্যে যাহা শ্রুতিসারময়, তাহ শ্রেীত, তদ্ভিন্ন অশ্রেীত । কুরু, দধীচ, অগস্ত্য ও উপময় এই চারিজন পরমর্ষি যুগাগমে পাশুপত জ্ঞানের উপদেশ প্রদান করেন। মহাদেব স্বয়ংই ঐ সকল রূপে আবিভূত হইয় তাহদের দ্বারা এই শাস্ত্রের উপদেশ দেন । এই জন্য এই পাশুপতযোগ সৰ্ব্বশ্রেষ্ঠ । {

  • "স্বtধগুমেকস্তত্ত্বশী ত্রয়োদগুণমযtfচতম্। চতুৰ্দ্দপ্তাং তথা নক্তমুপবাসং পরেইহুনি । গে।কৃষঞ্চৈব হৈরণ্যং রৌপ্য তাজময়ং তথা। গোবর্ণ্যং কারয়েৎ পত্রং গুaাশীতা পৃথক পৃথক্ । ७११ अङभित्र९ कूङ्ग। शृश्१ झना९ विशाउरम । বসমার্গ মহাঘেরং ন পখতি কদাচন।" ( অগ্নিপু পাশুপতত্রত )

+ "সংক্ষিপ্যাস্ত প্রবক্তার চত্বারঃ পরমর্ধয়: | স্বরুMধীচেহিগস্ত্যশ্চ উপমমু্যৰ্মহাযশী । - এই পাশুপতযোগ নামষ্টিকময় । ইহা স্বয়ং শিব কর্তৃক কীৰ্ত্তিত হইয়াছে। এই যোগানুষ্ঠানে শৈলী প্রজ্ঞ উৎপন্ন হয় । প্রজ্ঞা জন্মিলে অচিরে জ্ঞানলাভ হয়। যখন শিব তাছার প্রতি প্রসন্ন হন। তখন যোগী মুক্ত হইয়। শিবসম হইয়। থাকেন। শিব, মহেশ্বর, রুদ্র, বিষ্ণু, পিতামহ, সংসারবেদ্য, সৰ্ব্বজ্ঞ ও পরমাত্মা এই ৮ট শিবাষ্ঠক । ইহাই পরম যোগ, এই যোগদ্বারা মোক্ষ হয়। ( শিবপুং বায়ুস- ২৯ অ' ) পাশুপতদর্শন, ভারতীয় দর্শনসমূহের অন্তর্গত দর্শনভেদ। মাধবাচার্য সৰ্ব্বদর্শনসংগ্রহে এই দর্শনের এইরূপ সারসংগ্ৰহ করিয়াছেন— এই দর্শন মতে জীমমাত্রই পশুপদ বাচ্য। জীবগণের অধিষ্ঠাতা পশুপতি শিব। পশুপতি শিবই পরমেশ্বর। পশুপতি সম্বন্ধীয় বলিয়া এই দর্শনের নাম পাশুপত হইয়াছে। ইহার অপর নাম নকুলীশ-পাশুপত-দর্শন । সাধারণ জীব যেরূপ হস্তপদাদির সাহায্য ব্যতীত কোন কার্য্য করিতে পারে না, অর্থাৎ যে কোন কাৰ্য্য করিবে, তাহা হয় হস্ত, না হয় পদ প্রভৃতি সাহায্যে করিবে । জীবের ইচ্ছা যাত্রে কার্য্য সম্পাদন করিবার ক্ষমতা নাই। সাধন বাতীত কোন কাৰ্য সম্পন্ন হয় না । ভগবান পশুপতি অঙ্ক কোন বস্তুর সহায়তা অবলম্বন না করিয়াই এই জগৎ নিৰ্ম্মাণ করিয়াছেন । এই জন্ত পশুপতি শিব স্বতন্ত্র কর্তা । অন্মদাদি দ্বারা যে সকল কাৰ্য্য সম্পন্ন হইতেছে, তাহার কারণও পরমেশ্বর ; এই জগু তাহাকে সৰ্ব্বকার্য্যের কারণও বলা যাইতে পারে । এস্থলে কেহ কেহ আপত্তি করেন যে, যদি সকল কার্যের কারণই পশুপতি শিব হন, তাহা হইলে এককালে ভূত ভবিষ্যৎ ও বর্তমান এই তিন কালের কার্য না হয় কেন? যেহেতু কারণস্বরূপ জগদীশ্বর সর্বদাই সৰ্ব্বত্র বিরাজমান রহিয়াছেন এবং কি জন্ত জনসমূহ মুক্তি ইচ্ছা করিয়া ঘোরতর তপস্তা ও পারলৌকিক সুখাভিলাষে যজ্ঞাদির তামুষ্ঠান করিয়া থাকে ? যখন ভগবানের ইচ্ছা ব্যতীত কোন কৰ্ম্ম হইবার যো নাই, তখন ভে চ পাশুপত জ্ঞেয়া: সংহিতানাং প্ৰবৰ্ত্তকাঃ । তৎসস্তুতীয় গুরবঃ শতশোহথ সহস্রশঃ ॥ নামtঃকমথে যোগ শিষেন পরিকল্পিতঃ। ণ্ডেন যোগেন সংস। শৈী প্রজ্ঞ। প্রজায়তে ॥ প্রজ্ঞয়া পয়মং জ্ঞানমচিরায়ভতে স্থিরমূ । প্ৰসীদ্ধতি শিবস্তস্য যস্য জ্ঞানং প্রতিষ্ঠি গুম্ ॥ শিবে মহেশ্বরশ্চৈব রাষ্ট্রে বিঝুঃ পিতামহ । সংসারবৈদ্য: সৰ্ব্বজ্ঞ: পরমাত্মেতি মুখ্যত: । নামাংক্ষমিবং নিত্যং শিবগ প্রতিপাদকম্।" (শিবপু ৰস ২.জ )