পাতা:বিশ্বকোষ একাদশ খণ্ড.djvu/৩৫

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


পর্তুগীজ এই দারুণ সংবাদ পাইয়া উৎকোচগ্রাহী সেনাধক্ষকে গুংগন কল্পিয়ছিলেঙ্গ । এই সময় কোচিনরাজ পর্তুগীজগণের কূটনীতির বশীভূত হইরা রাজ্যের সমুদয় শুদ্ধ আদায়ের ভার পর্ভ গীজদিগের হস্তে অর্পণ করিলেন । উহাতে কোচিনের সমস্ত প্রজ বিদ্রোহী হুইয়া প্রাণপণে স্বাধীনতা রক্ষায় অগ্রসর হইল। এসময়ে বহুসংখ্যক পর্তুগীজ বিনষ্ট হইয়াছিল। কোচিনরাজও মহা বিপদে পড়িয়াছিলেন । শেষে গোয় হইতে বহু পর্তুগীজসৈন্ত আসিয়া বিদ্রোহ নিবারণ করে । এই সময় শঙ্খেড়ের নায়কও পর্তুগীজদিগের হাতে যথেষ্ট নিগ্রহভোগ করিয়াছিলেন। ডম্ব ছুয়ার্ভে-ডি-মেমেজিল । ১৫৮৪ খৃষ্টাব্দে ডমৃ য়ার্তে রাজপ্রতিনিধি হইয় অসিলেন। তিনি প্রথমেই কোচিনের প্রজাদিগকে শাস্ত করিতে উদ্যোগী হইলেন । ক একজন সন্ত্রাস্তু নগরবাসীকে শুষ্ক আদায়ের তত্ত্বানুসন্ধান করিবার ভার দিলেন। পরে নিজে কোচিনে আসিয়া প্রজাদিগের ইচ্ছা-পূরণ করিলেন । তিনি গোয়ায় ফিরিয়া মাসিয়া দস্থ্যদলপতি শঙ্খেড়ের নায়ককে দমন করিতে অগ্রসর হইলেন । এই সময়ে আদিল শাহ স্থলপথে নায়ককে শাসন করিবার জন্য পণ্ডার সুবাদার রোস্তি থার অধীনে ৪ • • • • সৈন্য পাঠাইলেন। এদিকে তাহাদের সুবিধার জন্তু পর্তুগীজের জলপথে নায়ককে আক্রমণ করিল, দুইদিকের আক্রমণে নায়ক পরাজিত হইল, অধিকাংশ দসু্যপতি ,গোলার আঘাতে ধরাশায়ী হইল । শেষে নায়ক অমুনয় বিনয় করিয়া উভয় পক্ষের সহিত সন্ধিস্থাপন করিলেন । ডম্ হুয়াৰ্ত্তে শাসনকৰ্ত্ত হইলেও তাহার খুল্লতাত-রাইগনসালভেস্-ড়ি-কামারাই সৰ্ব্বেসৰ্ব্ব ছিলেন । এ সময়ে [ , లిలి ] অনেক কাৰ্য্যই তাহার হুকুমে চলিত। তিনি সামরীরাজের অধিকারভুক্ত পোনানি নামক স্থানে তুর্গনিৰ্ম্মাণের ইচ্ছ। করিলেন ও তজ্জন্ত সামীরাজকে উপযুক্ত স্থান দেখাইয়া দিবার জন্য বলিয়া পাঠাইলেন । সামরীরাজ ইতস্ততঃ করিতে লাগিলেন। তিনি পর্তুগীজ-দূতকে বলিয়া দিলেন যে, তাহার ব্ৰাহ্মণের ভাল দিন পাইতেছেন না, সেই জন্য র্তাহার যাওয়া ‘হুইতেছে না। খুর্ব পর্তুগীজ-সেনাপতি ব্রাহ্মণদিগকে উৎকোচ দিয়া শীঘ্রই শুভদিন বাহির করিলেন। অগত্য সামীಗ আসিয়৷ গোপরোগী স্থান দেখাইয়া দিতে বাধ্য হইলেন। ছাঁ নিৰ্ম্মিত হইল। তাছাতে পর্তুগীজদিগের চারিদিকে লুটপাটের সুবিধা হইল। ১৫৮৬ খৃষ্টাব্দে ভম্‌ ছিরোম্‌-ফুটিহে গোয়ার সৰ্ব্বোচ্চ আদালত স্থাপনের জন্ত স্নাজাদেশ লইয়া উপস্থিত হইলেন। XI ఏ পর্তুগীজ এই সময় ইংরাঙ্গরাজের পক্ষ হুইতে সন্থ ফ্রান্সিস ড্রেক্‌ জলপথ আবিষ্কারে নিযুক্ত হন । ভারত ছষ্টতে একখানি পর্তুগীজ জাহাজ আজোর্সের নিকট র্তাহার করতলগত হয় । ১৫৮৭ খৃষ্টাব্দের পূৰ্ব্বে ইংল্পাঞ্জ ও অপর বিদেশীয় যুরোপীয়গণের বিশ্বাস ছিল যে, পর্তুগীজদিগের মত নেীযোদ্ধা ও তাছাদের মত যুদ্ধজাহাজ অপর কোন জাতির নাই ; কিন্তু ড়েক সাহেব এখন সেই জাহাজখানি লুটিয়া বুঝিলেন যে পর্তুগীজের সেরূপ নেীযোদ্ধাও নহে, অথবা তেমন জাহাজও প্রভত করিতে জামেস । তিনি সেই জাহাজে প্রায় ১০ লক্ষ টাকার সামগ্রী পাইয়াছিলেন। তাষ্টে ইংরাজগণের ভারতের উপর সর্বপ্রথম লোভ পড়িল । ওলন্দাজের সেই জাহাজ লুটের সংবাদ প্রখমেই পাইয়াছিল। এখন তাহারা ভারতে বাণিজ্য করিবার জষ্ঠ বন্ধপরিকল্প হইল। সেই সঙ্গে পর্তুগীজদিগেরও পড়তা ফিরিল। ডম ছুয়ার্তে মেনেজিগের সময় মলাক্কা দ্বীপ ও সিংহলে পর্তুগীজদিগকে যথেষ্ট কষ্ট পাইতে হুইয়াছিল। এই সময় ঐ সকল দ্বীপের রাজা পর্তুগীজ ধ্বংসের আয়োজন করিয়াছিলেন। ৰহু যুদ্ধের পর বহু ক্ষতিগ্রস্ত হইয়া পর্তুগীজ প্রতিনিধি সন্ত্রম রক্ষা করিতে সমর্থ হুইয়াছিলেন । তৎকালে কোচিনরাজ নানা প্রকারে সাহায্য করিয়া সিংহলের পর্তুগীজদিগকে রক্ষা করিয়াছিলেন । ১৫৮৭ খৃষ্টা পৰ্যন্ত ভারতীয় বাণিজ্য পর্তুগালরাজের একচেটিয়া ছিল ; কিন্তু ঐ বর্ষে এক দ্বষ্ট সন্ত্রান্ত পর্তুগীজ বণিককেও বাণিজ্য করিবার অধিকার দেওয়া হয়, এই দলের atw Coinpanba Portugueza das Indias Orientas অর্থাৎ পুৰ্ব্বভারতীয় পর্তুগীজ-সমিতি ; কিন্তু সমিতি অধিকদিন স্থায়ী হয় নাই । ইহারা বাণিজ্য করিতে গেলে গোয়াবাসী সকলেই ইহান্ধের বিরুদ্ধে উত্তেজিত হইয়া উঠে । রাজপ্রতিনিধিও গোপনে ইহাদের স্বার্থনাশের চেষ্টায় থাকেন। কাজেই অল্পদিন মধ্যে এই সমিতির অস্তিত্ব লোপ পায় । ১৫৮৮ খৃষ্টাব্দে মে মাসে, ডম্‌ চুয়ার্কে সিংহল-জয়ের সংবাদ পাইবার পরই কালগ্রাসে পতিত হইলেন। ইহার শাসনকালে সমস্ত ভারতীয় দ্বীপপুঞ্জ পর্তুগালের শাসনে আনিবার চেষ্ট হয়, তাছাতেই ভারতীয় বাণিজ্যলব্ধ অধিকাংশ আয়ই বায়িত হয় । ডম্ব দুয়ার্তের পর মামুএল-ডি-স্থল কুটিল্ছে গোয়ার শাসনভার গ্রহণ করিলেন । তাছার শাসনকালে ভারতসমুদ্রে অনেক বাধা বিঘ্ন ঘটলেও পর্তুগীজদিগের সহিত ভারতবাসীর কোনরূপ সংঘর্ষ হয় নাই।