পাতা:বিশ্বকোষ একাদশ খণ্ড.djvu/৩৫৯

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


পাশ্চাত্যদর্শন - - (Aristogratic) attooi &isito (Democracy)--it's: এণালীর দুরবস্থা দেখিয়া তিনি উক্ত শাসনতন্ত্রের বিশেষ পক্ষপাতী ছিলেন না। স্বীয় অনুমোদিত শাসনতন্ত্র প্লেটো বংশগত অভিজাত্যের উপর প্রতিষ্ঠিত করেন নাই। তাছার মতে, জ্ঞানী ব্যক্তি দার্শনিক ও যিনি প্রজ্ঞাচক্ষু, ইঞ্জিয়ের দাগ নহেন, তিনি শাসক হইবার সম্পূর্ণ উপযুক্ত পাত্র। মনস্তত্বে প্লেটে cû &f* (intellect), হৃস্তৃত্তি (feeling or heart) et, qe ইন্দ্ৰিয়বোধ (sense) এই তিন বিভাগের নির্দেশ করিয়াছেন ; তাহার শাসনতন্ত্রেও এই তিনবৃত্তির এক একটর আধিক্যাহুসারে প্রজার মধ্যে তিনটী শ্রেণীবিভাগ করিয়াছেন,—শাসকশ্রেণী, সামরিক সম্প্রদায় এবং শ্রমজীবিসম্প্রদায় । এই তিন শ্রেণী হইতে তিনটী ধৰ্ম্মবৃত্তি (Virtue৪) বিকাশ লাভ করিআছে। শাসকশ্রেণী জ্ঞানের (Reason) প্রতিভূ ; যোন্থসম্প্রদায় বীরত্বের (courage) প্রতিভূ এবং শ্রমজীবী সম্প্রদায় first5ft3: (Temperance) প্রতিভূ। অবশিষ্ট ধৰ্ম্ম-স্তায় (Justice) ঐ তিনটী ধৰ্ম্মকে নিয়ন্ত্রিত করিয়া রাজ্য মধ্যে শৃঙ্খলা স্থাপন করিয়াছে । প্লেটে এই সকল রাজনৈতিক নিয়মম্বারা জাতীয়মঙ্গলের সেতুস্বরূপ জ্ঞানের বিকাশের পথ প্রশস্ত করিয়াছেন। উপরি উক্ত প্রস্তাব হইতে দেখা গেল যে, প্লেটোর সময়ে দর্শনশাস্ত্ৰ সৰ্ব্বায়বসম্পন্ন হইয় উঠে । তিনি সক্রেটিসের দর্শনমতের অঙ্গুসরণ করিয়া উক্ত ভিত্তির উপর বিজ্ঞানসন্মত উপায়ে আপন দৰ্শন প্রতিষ্ঠিত করেন। সক্রেটিস যে সত্যের প্তাভাসমাত্র প্রদান করিয়াছেন, প্লেটোর প্রতিভা তাহা ভাস্বর ফরিয়া তুলিয়াছে। প্লেটোর মৃত্যুর পর হইতেই তাহার দর্শন-চতুষ্পাঠীর (Older Academy) অবনতির স্বত্রপাত হয় । তাহার শিষ্যগণ উত্তরোত্তর প্লেটোর মত পরিত্যাগ করিয়া পিথাগোরসের মত বিশেষতঃ তৎপ্রবর্ধিত সংখ্যাবাদ প্রভৃতি মত গ্রহণ করেন, তাহাদের মধ্যে অনেকে গ্রহপূজক হইয়া পড়েন। কিছুকাল পরে আবার প্লেটের মত জানিবার জন্ত আগ্রহ প্রকাশ পায়। দার্শনিক ক্রান্টর (Crautor) সৰ্ব্বপ্রথমে প্লেটের মত বিবৃতি করেন। প্রকৃতপক্ষে আৱিষ্টটলফেই প্লেটোর শিয্য বলা যাইতে পারে। vtfkEðe (Aristotle) t দার্শনিককেশরী আরিষ্টটল খৃঃ পূঃ ৩৮৪ অঙ্গে থ্রেস (Thrace) দেশের ষ্টাজির (Stagira) নগরে জন্মগ্রহণ করেন । প্তাহার পিতা নিকোমেকস্ (Nichomachus) মাকিদনের রাজ। আমিণ্টাসের (Amyuta৪) চিকিৎসক ছিলেন । অল্প [ ૭&d ] পাশ্চাত্যদর্শন • বয়সে পিতৃহীন হইয়া সপ্তদশকৰ यग्नईजीएमग्न जमग्न भाब्रिहेछेण আথেন্সে আলিয়া প্লেটোর শিষ্যত্ব গ্রহণ করেন এবং তাছার সাহচর্ঘ্যে বিংশতি বৎসর আথেন্সে যাপন করেন। গুরুশিষ্যের •ाब्र”ान्न किक्रम गषक श्णि, उ९न्चरक विछिप्न मङ अाप्श् । cकर বলেন, আরিষ্টটল প্লেটোর অত্যন্ত প্রিয় ছিলেন ; কেহ কেহ आब्रिटेनिप्क अइउल्लङाप्नाएब ८नाशै कब्रिटिश्न। याश्। श्डक প্লেটোর মৃত্যুর পর আৱিষ্টটল, জিনোক্রেটিসের সমভিৰ্যtহায়ে আটার নিউসের its! (Prince of Atarueus) झाँग्नमिब्रांtन्ब्र সভায় গমন করেন । এ স্থানে আসিয়া আরিষ্টটল অ'টারনিউসের (Atarueus) ভগিনী পাইথিয়াসের (Pythius) পাণিগ্রহণ করেন। গাইখিয়াসের মুতুর পর তিনি হারপিলাস নাম জনৈক রমণীকে আৰায় বিবাহ করেন, এই রমণীর গর্ভে তাছার নিকোমেকল (Nicomachus) also on ato q: ; oso ow মাকিদন-অধিপতি ফিলিপ আৱিষ্টটলকে তদীয় পুত্র আলেকসান্দারের শিক্ষকতায় নিযুক্ত করেন। জারিষ্টটল ফিলিপ ও আলেক্সানার উভয়েরই ভক্তি ও সন্মানের পাত্র ছিলেন । আলেক্সান্দার পারস্তবিজয়ে বহির্গত হইলে, আরিষ্টটল আথেন্সে আসিয়া লাইসিয়ম্ (Lyceum) নায়ক চতুষ্পাঠীতে অধ্যাপন কাৰ্য্য তারিস্ত করেন । ত্রয়োদশবর্ষ অধ্যাপনার পর আথেন্সবাসীরা তাহার উপর অসন্তুষ্ট হইলে তিনি আথেন্স পরিত্যাগ করিয়া চলিয়৷ যান। খৃঃ পূঃ ৩২২ অব্দে তিনি ইউবিয়ার অন্তর্গত কালসিস (Chalcis) নগরে দেহত্যাগ করেন। আরিষ্টটল প্লেটোর শিষ্য হইলেও উভয়ের দার্শনিক মত অভিন্ন নছে এবং উভয়ের দার্শনিক মতপ্রচার-প্রণালীতে বিশেষ বিভিন্ন তা দৃষ্ট হয় । আরিষ্টটলের গ্রন্থসমূহে প্লেটোর হার কল্পনাপ্রাচুর্য দৃষ্ট হয় না। প্লেটো প্রজ্ঞাশক্তিবলে (Direct vision through reason) ontoia wffs to No. 25th করিয়াছিলেন, আরিষ্টটল বুদ্ধিবলে অর্থাৎ চিত্ত ও তর্কশক্তি (tetection and logic) EtRl Eifetz *IS 2lfsein TFfRal fsiglছেন । প্লেটোর দর্শনের গতি মাধ্যাত্মিকতায় (Idealistu) দিকে, প্লেটো অধ্যাত্মিকতা স্বতঃসিদ্ধ স্থির করিয়া তাহ। হইতে ভাগুtষ্ঠ সমস্ত পদার্থের উৎপত্তি নির্দেশ (deduce) করিয়াছেন। আরিষ্টটল বাস্তবতার দিকে লোকের দৃষ্টি আকর্ষণ করিয়ছেন, বাহাদুগৎকে তিনি সত্য বলিয় স্বীকার করিয়া লইয়াছেন, বাস্থ্যজগতের বৈচিত্রা তাহার নিকট বাস্তব পদার্থ, জগতের কোন পদার্থই তাছার উপেক্ষার বিষয় ছিল না। বাহজগতের ব্যাখ্যা ক্যারিষ্টটলের দর্শনের প্রধানতঃ আলোচ্য বিষয়। আরিষ্টটলের দর্শনের এই সৰ্ব্বতঃপ্রসারিণী দৃষ্টিবশতঃ