পাতা:বিশ্বকোষ একাদশ খণ্ড.djvu/৩৭৩

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


পশ্চাত্যদর্শন ( రీసిసి 1 --ബ বাকলি বলেন, এই বিশ্বাসের মূল অনুধাবন করিয়া দেখিলে ইহার অসারত্ব প্রতিপন্ন হইবে। wofo (Perception) यगिएउ आँमग्न कि बूकि ? अश्ङ्गठि कि अोमार्गब्र बानग्न খাবস্থা-বিশেষ নহে। তবে বাহাজগতের অস্তিত্ব কোথা হইতে আসিল লক প্রভৃতি দার্শনিকগণ বলেন, বাহাজগৎই আমাদের | জ্ঞানেশ্রিয়সমূহের বিকার সাধন করিয়া অামাদের মনে বাহা জগতের জ্ঞানের উন্মেষ করিয়া দিয়াছে। বার্কলি এই মতের यिङ्गाक झट्रेणै श्रां°द्धि छेथां★न पब्रिग्रांप्राइम । दांशजश्रृं९ cय আমাদের ইন্দ্রিয়জ্ঞানের উদ্বোধ করিয়া দিয়াছে, এরূপ কাৰ্য্যকারণ-সম্বন্ধ-স্বীকার বার্কলির মতে অসম্ভব । ” বাহ্যবস্তু যাহা মনোরাজ্যের পরপারে তাহা কিরূপে মনের উপর কার্যকারী হুইৰে। বার্কলি তাহা বুদ্ধির অতীত বলিয়। বিশ্বাস করেন। জড় ও মনের (Matter and mind) কাৰ্য্যকারণ-সম্বন্ধু-জ্ঞান মায়োপহিত জ্ঞান। বাহ্যজগৎ বলিতে লোকে যাহা বুঝে, প্রকৃতপক্ষে দেখিতে গেলে তাহ মনের ব্যতিরিক্ত কোন বস্তু নহে ; উহা মনের ভাববিশেষ ; সুতরাং মনোজগতের বস্তু। বোধের বিষয়মাত্রই মনোরাজ্যের বস্তু } বাহ্যজগৎও অtমাদের বোধের বিষয়, সুতরাং ইহাও আমাদের মনোরাজ্যের অন্তর্হিত । দ্বিতীয়তঃ বার্কলি বলেন যে, লোকের প্রচলিত বিশ্বাস এইরূপ যে, দর্পণে প্রতিবিম্বের ভায় আমাদের মনে বাহ্যজগতের প্রতিকৃতি পড়ে। দর্পণে প্রতিবিম্ব যেরূপ তদীয় বস্তুর অনুরূপ ; বাহ্যজগতের মানসিক চিত্রও তদ্রুপ বাহা জগতের অনুরূপ। বার্কলি বলেন, লক্ তাহার এই মত প্রতিপন্ন করিতে গিয়া নিজের মতেই sawficato (Contradiction) cotto offsät of atton I লকু সেকেণ্ডারি বা অবাস্তর গুণগুলি (secondary qualities) মনের অবস্থাবিশেষ বলিয়া গিয়াছেন। কিন্তু otests; *l wison e-leftco (Primary qualities) ev भप्नब्र अवश मांज बाणन नहेि, भैसणिरक बांश्वलद्र यथांयर्थ প্রকৃতি বলিয়া নির্দেশ করিয়াছেন। বাকলি প্রাইমারি গুণগুলির অস্তিত্ব স্বীকার করেন না, তিনি বলেন আমরা যে গুলিকে বান্ধবস্তুসমূহের গুণ বলিয়া বিশ্বাস করি, সেই গুণ-মাত্রই মলের অবস্থা বিশেষ, ইহাদের মধ্যে প্রাইমারি ও সেকেণ্ডারি এরূপ পার্থক্য নির্দেশ লুর ধার না। আর প্রাইমারি বা আদিম গুণগুলি বস্তুর যথাযথ প্রতিকৃতি প্রদান করে, এরূপ নির্দেশের প্রকৃত পক্ষে কোন অর্থই হইতে পায়ে না । জাই, ডিয়া বা মানসিক ভাবগুলি কিরূপে বাহবন্তর প্রতিকৃতি হইতে পারে ? এই বাক্যের স্বরূপ উপলব্ধি করা যায় না। মনের ক্রিয় মনের উপরই সম্ভব, বাহবন্তু আইডিয়া বা মানসিক XI ఫిలి তাৰ ইহাদের মধ্যে কিরূপে যথাযথ সাপ্ত (Resemblance) থাকিতে পারে। উক্ত একার যুক্তি সকল গ্রয়োগ করিয়া বার্কলি প্রতিপন্ন করিয়াছেন যে, বাংজগৎ ও মম এই ছুই ৰিভিন্ন-প্রকৃতিক পদার্থের মধ্যে কোনরূপ ক্রিয় হইতে পায়ে না। সুতরাং মোমের উপর কঠিন পদার্থের ছাপের ভীয় জামাদের মমের উপর বাজগতের সংস্কার পড়ে, এইরূপ প্রচলিত বিশ্বাস ভিত্তিহীন । তবে বাহুজগতের এই পৃষ্ঠপট কোথা হইতে আসিল, আমাদের অনুভূতির উৎপত্তি কোথায় ? এই প্রশ্নের মীমাংগা বার্কলি করিয়া গিয়াছেন। বার্কলি বলেন, বাহ্যজগতের জ্ঞান মন হইতে আপনি উদ্ভূত হয় নাই, মন নিজে এগুলির স্বাক্টকর্তা मप्श्, अभन्न ८कांन भश्खङ्ग मम शहैtउ चांमब्रl uहैं नकल झांन ctधं श्रॅहै । ईश्ब्र मन्ब्र नांभ छेईब्र । दांश्ञशं९ वगिइ शांश। श्रांगांप्लद्र दिशांन, झेश्वtद्र ऊांश भाँहेफिप्रांश्वक्रgथं दिब्रांछ कब्रिতেছে, তিনি ইঞ্জিয়গণের উন্মেষ (Seasation) দ্বার। আমাদের মনে এই আইডিয়ার উদ্বোধন করিঙ্গ দেন । সুতরাং বার্কলির মতে বাহুজগৎ বস্তুতঃ কল্পনার সামগ্ৰী নহে, ইহার গুরুত অস্তিত্ব আছে, তবে এই অস্তিত্ব প্রচলিত বিশ্বাসসঙ্গত অস্তিত্ব site, *el vitartfww wfsw (Ideal existence) | “यिक्र° मोनिक ग७tष्ट्रमोरङ्ग वस्त्रम्न वक्र” नृषएक किङ्ग• मण्छ হইবে, তাহ সহজেই অনুমান করা যাইতে পারে। বার্কলি arma qw* w**ι wv* w**(Esse is percipii) , •vérs বস্তুর কোনরূপ অতিমানল অস্তিত্ব (Extra-mental existence) Rf | f4fn zña দৃষ্টিতত্বে (Theory of vision) প্রচলিত বিশ্বাসের অসারত্ব সপ্রমাণ করিয়াছেন। লৌকিক विधान यहेक्र* cए, झूर्छिनसिहे वशग्न पूबर श्रांझछि यहूडिब्र জ্ঞান জন্মাইরা দেয়। বার্কলি দৃষ্টিশক্তির উপর এতদূর জাস্থ। স্থাপন করিতে সতর্ক করিয়৷ দিয়াছেন । তিনি বলেন, বর্ণবোধ (Colour-sensation) ব্যতীত সৃষ্টিশক্তি জার কোন বিষয়ে সাক্ষাৎ লম্বন্ধে কিছু বলিতে পারে না। তবে যে আমরা टिट्राणि श् िनिर्गतः क्रि,:उांश् चश्चांग्मश्च (Inference) উপর নির্ভর করিয়া। প্রকৃতপক্ষে মাংসপেশী সকলের ক্রিয়াগুলি জামাদের দূরত্বের বোধ কতক পরিমাণে জন্মাইয়া দেয়। ve-for coro se fruteform (Muscular exertion) স্থতির উল্লেক করিয়া দেয় মাত্র। এইরূপ যে কোন ইঞ্জিয়জ্ঞানে আমরা বস্তুত্বের আরোপ করি না কেম, তথাপি অমিয়। মসের গণ্ডির ভিতরই রছিয়াছি। ধার্কলি এইরূপে একটী মহৎ অধ্যাঞ্চ-দর্শনের স্বষ্টি কল্পিয়াছেন, ইহাতে জড়ের কোন স্থান লাই। কেবল পয়মাঞ্চ।