পাতা:বিশ্বকোষ একাদশ খণ্ড.djvu/৫৬৫

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


পুরাণ হইয়াছে, সেই সকল পুরাণের নাম কিরূপে বিষ্ণুপুরাণ মধ্যে আসিল ? অপরাপর পুরাণ-সম্বন্ধেও এইরূপ । কেবল নামোল্লেখ নহে ; এক পুরাণ হইতে পুরাণাস্তরের বিবরণাদি উদ্ধৃত দেখা যায়। যথা বামনপুরাণে— “শৃণুম্বাবছিতো ভূত্ব কথামেতাং পুরাতনীম। প্রোক্তামাদিপুরাণে চ ব্রহ্মণ ব্যক্তরূপিণী।” ( ৩ অঃ ) এখানে বামনপুরাণে আদিপুরাণ হইতে কথাসংগ্রহ। এইরূপ বরাহপুরাণে— “রবিং প্রপচ্ছ ধৰ্ম্মাত্ম পুরাণং স্বৰ্য্যভাষিতম্। ভবিষ্যৎপুরাণমিতি খ্যাতং কৃত্বা পুনর্নবন্ধ ॥" ( ১৭৭৫১ ) এইরূপ নারদীয় ৬ষ্ঠ ও মৎস্ত ১৬শ পুরাণ মধ্যে গণ্য হইলেও এই দুই পুরাণে অষ্টাদশ পুরাণেরই প্রতিপাদ্য বিষয়াদির উল্লেখ আছে । এইরূপ পুরাণের অবস্থা দেখিয়া পাশ্চাত্য পণ্ডিতগণ ও দেশীয় পুরাবিদগণ বর্তমান পুরাণসমূহের নিতান্ত আধুনিকতা স্বীকার করিয়াছেন। অষ্টাদশ পুরাণ কত দিসের ? বিষ্ণুপুরাণের প্রসিদ্ধ অনুবাদক উইলসন সাহেব প্রচলিত ১৮ খানি পুরাণের আলোচনা করিয়া এইরূপ সিদ্ধাস্তে উপনীত झईग्रांtछ्न "১ম ব্রহ্মপুরাণ–উৎকলের জগন্নাথমাহাত্মা কীৰ্ত্তন করাই ব্ৰহ্মপুরাণের উদেণ্ড । পুরাণের পঞ্চলক্ষণ ইহাতে নাই । উৎকলের মন্দিরাদির বিবরণ দৃষ্টে বোধ হয় যে এই পুরাণ খৃষ্টীয় ১৩শ ও ১৪শ শতাব্দীর পূৰ্ব্বে রচিত হয় নাই। ২য় পদাপুরাণ–এই পুরাণের সকল খণ্ড পাঠ করিলে কোন খানিতেই পুরাণের প্রকৃত লক্ষণ অাছে বলিয়া বোধ হয় না। কোন কোন খণ্ডে জৈনদিগের আচার ব্যবহারের কথা, ভারতে মেচ্ছের প্রাণ্ডুৰ্ভাব ও আধুনিক বৈষ্ণবদিগের চিহ্নাদি ধারণের এমন কথা আছে, যাহা পাঠ করিলে কখনই প্রাচীন পুরাণ বলিয়া বোধ হয় না। পদুপুরাণের ক্রিয়াযোগসারখানি পাঠ করিলে আধুনিক বাঙ্গালীর রচনা বলিয়া বোধ হয়। পদ্মপুরাণের কোন খণ্ডই খৃষ্টীয় দ্বাদশ শতাব্দীর পূর্ববর্তী বলিয়া বোধ হয় না। এমন কি ইহার শেষ খণ্ড খৃষ্টীয় ১৫শ বা ১৬শ শতাব্দীতে রচিত হইতে পারে । ৩য় বিষ্ণুপুরাণ–এই পুরাণে বৌদ্ধ ও জৈনপ্রসঙ্গ আছে। বৌদ্ধগণ ভারতে খৃষ্টীয় ১২শ শতাবী পর্যঃ বর্তমান ছিল । সম্ভবতঃ তৎপূৰ্ব্বে এই পুরাণ রচিত হইয়াছে। কুরুপাওবের মহাসমর হইতে ( ভবিষ্য ) রাজবংশ পর্যন্ত যেরূপ রাজ্যকাল নির্ণীত হইয়াছে, তাহাতে কলির ৪১৪৬ বর্ষ = ১০৪৫ খৃষ্টাব্দ পাওয়া যায়। ঐ সময়ে বিষ্ণুপুরাণের রচনাকাল অনুমান করা অসঙ্গত নহে। XI >8X لان & ] 1 পুরাণ । - - * बlइ५ब्रां५-७षम cष नकल गूजां* ७धहनिष्ठ अ८िइ, छकारथा এই বায়ুই সৰ্ব্বপ্রাচীন ও মূল পুরাণের সর্বলক্ষণযুক্ত বলিয়া ५ब्रt शांग्न । • জীভাগবত-কেহ কেহ এই পুরাণকে বোপদেবের রচনা বলিয়। মনে করেন। মোটের উপর এই পুরাণ খুষ্টীয় ১২শ শতাব্দীর রচনা বলিয়া ধরা যায়। -- ৬ মারীয়পুরাণ-ইহাতে পুরাণের লক্ষণ নাই, আলোচনা করিলে আধুনিক ভক্তিগ্রন্থ বলিয়। মনে হয়। ভারত মুসলমান-করতলগত হইবার পর এই পুরাণ রচিত হইয়াছে । ইহার শেষাংশে লিখিত আছে—যেন গোধাতক ও দেবনিপদকের নিকট কেঙ্ক এই পুরাণ পাঠ না করে। সম্ভবতঃ এই পুরাণ খৃষ্টীয় ১৬শ বা ১৭শ শতাব্দীর সংগ্রহ । दूझ्नांब्रौिग्न नांtग भांद्र ७क४ांनेि शूब्रां* *ाँsग्नां शांग्र । ইহাও পূৰ্ব্বোক্ত নারদীয় পুরাণের সমশ্রেণীর গ্রন্থ। এই পুরাণের অধিকাংশ বিষ্ণুর স্তুতি ও বৈষ্ণবদিগের কৰ্ত্তব্যাকৰ্ত্তব্য নির্ণয়েই পূর্ণ। দেখিলেই আধুনিক গ্রন্থ বলিয়। বোধ इम्न । ৭ মার্কণ্ডেরপুরাণ–এখন আমরা ষে মার্কণ্ডেয়পুরাণ পাই, তাহা সম্পূর্ণ নহে। ব্রহ্ম, পদ্ম ও নারদীয় অপেক্ষ এই পুরাণ অতি প্রাচীন। মোটামুটী এখানি খৃষ্টীয় নবম বা দশম শতাব্দীর সংগ্ৰহ বলিয়া মনে হয় । ৮ অগ্নিপুরাণ–বহুশাস্ত্রবিষয়ক এই পুরাণের আলোচনা করিলে এখানিকে মূল পুরাণ বা বেশী প্রাচীন সংগ্ৰহ বলিয়াই মনে হয় না। ইতিহাস, ছন্দঃ, ব্যাকরণ ও তান্ত্রিক পূজাদি গ্রচলিত হইবার পরে এই পুরাণ সঙ্কলিত হইয়াছে। তবে অাধুনিককালে সঙ্কলিত হইলেও ইহাতে বহু পুরাণকথার সমালোচনা থাকায় এই গ্রন্থখানি অতি মূল্যবান।

  • ভবিষ্যপুরাণ–এখন যে ভবিষ্যপুরাণ প্রচলিত দেখা যায়, তাহা ‘পুরাণ' বলিয়। গ্রহণ করা যায় না। প্রথমাংশে অতি ংক্ষেপে সৃষ্টিতত্ত্ব বর্ণিত হইলেও অবশিষ্ট অংশ প্রায় ব্ৰতপূজার বর্ণনায় পরিপূর্ণ। ভবিষ্যপুরাণেও কেবল ব্রতপুজাদি दर्शिङ हहेब्राप्झ् ।

১. ব্রহ্মবৈবৰ্ত্তপুরাণ-মৎস্তপুরাণে ব্ৰহ্মবৈবর্তের যে লক্ষণ নির্ণীত আছে, তাহার সহিত এখনকার ব্রহ্মবৈবর্তের কিছুমাত্র মিল নাই, বর্তমান ব্রহ্মবৈবর্তের আলোচনা করিলে ইহাকে কিছুতেই পুরাণ বলিয়া মনে করা যায় না । ১১ লিঙ্গপুরাণ-পুরাণ না বলিয়৷ ইহা একখানি কৰ্ম্মগ্রন্থ বলিয়। श्रीभा झहरङ *ां८व्र । ८°ोब्राणि कडी ब्रक्रीब्र छछ ऐहांब्र मtश्वा शूब्रां५-कथं नश्tगांछिऊ श्हेब्रांtइ। ऐश्रीब्र भएषा अtनरु भूब्रांडम