পাতা:বিশ্বকোষ চতুর্দশ খণ্ড.djvu/১৫৩

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


মন্ত্র - _ -שם-הרכספם-ש"ל ত্রয়যুক্ত করিয়া জপ করিলে মন্ত্রের দোষ-সকল বিনষ্ট হইয়া মন্ত্র বিশুদ্ধ হয় । ( তন্ত্রসার ) শৈব, শাক্ত ও বৈষ্ণব প্রভৃতি সকলেই নিজ নিজ কুলদেবতামুসারে স্ব স্ব শুভজনক মন্ত্র গ্রহণ করিবেন। [ কালী তারা"প্তৃতি শব্দে তত্তদেবতার মন্ত্র ও বীজ দ্রষ্টব্য। ] তন্ত্রশাস্ত্রে বৈষ্ণবমস্ত্রেরও যথাযথ বিধান আছে, অধুনা অনেকেরই মর্মের এইরূপ ধারণা যে, তন্ত্রে কেবল শৈব ও শাক্তমন্ত্ৰহ বিহিত, শ্বাস্তবিক তাহা নহে, তন্ত্রে শৈব, শাক্ত, বৈষ্ণব, সেীর, গাণপত্য প্রভৃতি সকল মন্ত্রেরই বিধান দেখিতে পাওয়া যায় এবং দীক্ষাগ্রহণকালে তদনুসারেই अत्र शृंशैड श्ब्रा थाहक । किख़ cशाश्वानां ब्रा cयथाcन भs প্রদান করেন, সেই থানেই কেবল এই নিয়মের ব্যতিক্রম দেখিতে পাওয়া যায়। তাছার হরিভক্তিবিলাস প্রভৃতির মতে মন্ত্ৰ দিয়া থাকেন । বৰ্ত্তমানকালে অনেক বংশে পুরুবেরা বৈষ্ণব এবং তাছাদের স্ত্রীগণ শকুপাসক, ইহারা তন্ত্রের মতাম্বুসারেই মন্ত্রগ্রহণ করিয়৷ থাকেন। মানব উপযুক্ত গুরুর নিকট মন্ত্রগ্রহণ করিয়া তাহার উপাসনায় ত্রিতাপরহিত হইয়া পরম পদ প্রাপ্ত হন । মন্ত্র সিদ্ধি হহলে পরমপুরুযর্থ লাভ হয় । মন্ত্র গ্রহণ পূৰ্ব্বক যোগাবলম্বন করিয়া যে জ্ঞান প্রাপ্ত হওয়া যায়, তাহা তত্ত্বজ্ঞানের কারণ। যোগ ব্যতিরেকে মন্ত্র দ্বারা কিংবা মন্ত্র ব্যতিরেকে কেবল যোগ দ্বারা কিছুই ফল হয় না । মন্ত্র ও যোগ উভয় সাধন ধায়৷ ব্ৰহ্মজ্ঞান লাভ হয়। অন্ধকারাবৃত গৃহে যেরূপ প্রদাপের সহায়তায় ঘট লক্ষিত হয়, সেইরূপ মায়াসমাবৃত আত্মা যোগসহকৃত মন্ত্র বলেই প্রত্যক্ষ হইয়। থাকেন । যাহার। বিষয়াসক্ত তাহাঙ্গিগের পক্ষে আত্মসাক্ষাৎকার দুলভ। যাহার। নিলিপ্ত ভাবে মন্ত্রযোগের অনুষ্ঠান করেন, র্তাহাদিগের পক্ষেই এই আত্মদর্শন সুলভ । -

  • মঞ্জা ভ্যাসেম বোগেন জ্ঞানং জ্ঞানায় কল্প্যতে । ল যোগেন বিন মস্ত্ৰে ন মন্ত্রেণ বিনা হি স: a বম্বোরভ্যাসসংযোগে ব্ৰঙ্গসংসিদ্ধিকারণম্। তমঃপরিবৃতে গেছে ঘটে। দীপেন দৃশুতে ॥ এবং মায়াবৃতে হাত্মা মমুন গোচরীকৃতঃ । এবং তে কথিতং ব্রহ্মন মন্ত্রযোগমস্থ স্তমম্। দুলভিং বিষয়াসজৈঃ মলভং তাদৃশ্যমপি " (তথ্রলার ) মন্তযোগ অভ্যাস করিয়া সাধক কিরূপে মুক্তি লাভ করিতে পারেন, তাহার বিষয় তন্ত্রে এইরূপ লিখিত আছে ।
  • হদানীং কখয়ে তেইহুং মন্ত্ৰবোগমকুত্তমম্। ৰিম্বং শরীরমিত্যুক্তং পঞ্চভূতাত্মকং মুনে ।

XIV I ১৫৩ ] 弱 - ళి: মন্ত্র চন্দ্রস্বৰ্য্যাগ্নিতেজোভিীধত্বন্ধৈক্যরূপকম্। তিশ্রঃ কোট্যস্তদৰ্দ্ধেন শল্পীয়ে নাড়য়ে৷ মতাঃ ॥” •(তন্ত্রলার ) এই পঞ্চভূতময় শরীর ব্ৰহ্মাও নামে অভিহিত, ইহাতে চন্দ্র, স্বৰ্য্য ও অগ্নির তেজোদ্ধার জীব ও ব্রহ্মের ঐক্য সম্পাদিত হয়। এই শরীরে সাৰ্দ্ধত্রিকোট নাড়ী আছে, তাহার মধ্যে দশটনাড়ী প্রধান, এই দশটার মধ্যে তিনটী নাড়ী প্রধানতম। চঞ্জ, স্বর্য) ও অগ্নিরূপে এই তিল নাড়ী মেরুদণ্ড আশ্রয় করিয়া অবস্থান করিতেছে। যে নাড়ী বামভাগে অবস্থিত, তাছ চন্দ্ররূপিণী, শুক্লবৰ্ণী, শক্তিরূপ এবং অমৃতময়ী, ইহার নাম হড়া। দক্ষিণদিকে অবস্থিত৷ স্বৰ্য্যরূপিণী দাড়িম্বকুজমবর্ণ, পুরুষরূপ এবং বিষময়-নাড়ীর নাম পিঙ্গল । যে নাড়ী মূলাধার হহতে আরম্ভ করিয়া মেরুদণ্ডের মধ্য দিয়া ব্ৰহ্মরন্থে, গমন করিয়াছে, তাহার নাম মুঘুম। এই নাড়া সৰ্ব্বতেজে+ রূপিণী ও বহুরূপিণী। এই স্বযুম্না নাড়ীর মধ্যে বিচিত্রা নামে এক নাড়ী আছে, এই নাড়ী অমৃতস্রাবণী ও সব্বদেবময়ী। এই বিচিত্রা নাড়ী বিসর্গস্থান হইতে আরম্ভ করিয়া বিন্দু স্থান পৰ্য্যস্ত ব্যাপিয়া মুহিয়াছে। মূলাধার পদ্মে একটা ত্রিকোণ আছে, ইহার তিন দিকে ইচ্ছাশক্তি,ক্রিয়াশক্তি ও জ্ঞানশক্তি। এই ত্রিকোণের মধ্য স্থলে কোটি স্বৰ্য্যসদৃশ স্বয়স্কৃলিঙ্গ বিস্তুমান আছেন এবং ত্রিকোণের উদ্ধ দেশে ক্লী এই কামবীজ রছিয়াছে। স্বয়ম্ভু লিঙ্গের উদ্ধ দেশে অগ্নিশিখাকার, ব্ৰহ্মরূপিণী কুণ্ডলিনী শক্তি অবস্থান করিতেছেন, ইহার বহির্দেশে চতুৰ্দ্দলে ব, শ, ষ, স, এই বর্ণচতুষ্টয় রছিয়াছে, মূল চক্রের উদ্ধ দেশে অগ্নির দ্যায় তেজোময় ও হীরকের স্বায়ু নিৰ্ম্মল ষড় দল পদ্ম আছে, ইহার নাম অধিষ্ঠানচক্র। ব, ভ, ম, ব, ব, ল এই ৬টা বর্ণ বড় দলে আছে। চতুৰ্দ্দলপদ্ম আধার-ঘটুকের মুল বলিয়া উহা মুলাধার নামে খ্যাত । তাহার উপরি অধিষ্ঠিত বলিয়। দ্বিতীয় চক্রের নাম স্বাধিষ্ঠানচক্র। ইহার উদ্ধ নাভিদেশে মণিপুর ; তথায় অক্টাব প্রভাসম্পন্ন দশম্বল পদ্ম আছে । ইহার বর্ণ মেঘের স্কার এবং তেজোময় । এই পদ্মের দশ দলে ড, ঢ়, ৭, ত, থ, দ, ধ, ন, প, ফ এই দশট বর্ণ রহিয়াছে। এই পদ্ম শিবের অধিষ্ঠান। সুতরাং ইহা বিশ্বের কারণ। এই মণিপুরের উৰ্দ্ধে হৃদয় মধ্যে উদ্যৎ প্রভাকরসদৃশ অনাহত পদ্ম রহিয়াছে, এই পক্ষ্মেবাদশ দলে ক অবধি ঠ পধ্যস্ত দ্বাধশ বর্ণ বিরাজিত, এই পদ্মের মধ্যে দশ সহস্ৰ দিবাক রসদৃশ তেজঃপুঞ্জ বাণলিঙ্গ অবস্থান করিতেছেন । এই বাণলিঙ্গ শব্দ ব্ৰহ্মময় । এই স্থানে অনাহুত শস্ব প্রত্যক্ষ হয় । এইজষ্ঠ মুনিগণ ইহাঙ্কে অনাহুত পদ্ম বলেন। এই পদ্ম পয়ম পুরুষ কর্তৃক অধিষ্ঠিত