পাতা:বিশ্বকোষ চতুর্দশ খণ্ড.djvu/৫৯৫

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


মানস মানস তাপ—

  • কামক্রোধভয়দ্বেষলোভমোহবিষাদলঃ । শোকাস্থয়াজমানের্ধ্যা-মাৎসর্য্যাদিভয়স্তথা। মানলোহপি জিশ্রেষ্ঠ তাপে ভবতি নৈকৰ ॥” (বিষ্ণুপু•৬৫) কাম, ক্রোধ, ভয়, দ্বেষ, লোভ, মোছ, বিষাদ, শোক, অস্থয়া, অপমান, ঈর্ষ ও মাৎসর্ঘ্য প্রভৃতি মানস তাপ । ‘মনোগ্রাহং সুখং দুঃখং মুখ বা দুঃখ এই দুইই মনোগ্রাহী অর্থাৎ মনেই এই সকলের অনুভব হইয়া থাকে। কামক্রোধাদি দ্বারা মনে দুঃথোৎপত্তি হয়, এইজন্স উহাদিগকে মানস তাপ কহে । সাখ্যদর্শনে লিপিত আছে “হঃখং দ্বেধা শারীরং মানসঞ্চ কামক্রোধাদিনিমিত্তং মানসং”(সাংখ্যতত্ত্বকো")

প্রথমতঃ দুঃখ তিন প্রকার, আধ্যাত্মিক, আধিদৈবিক এবং আধিভৌতিক। তাহার মধ্যে আৰায় আধ্যাত্মিক হুঃখ দুই প্রকার, শারীর এবং মানস । বায়ু, পিত্ত এবং শ্লেষ্মার বৈষম্য জন্ত শারীর এবং কামক্রোধাদি নিবন্ধন মানস দুঃখ হইয়া থাকে । [ দুঃথ শব্দ দেখ ] ত্রিবিধ মানসকৰ্ম্ম— - “পরদ্রব্যেঘভিধানং মনসানিঃচিন্তনম্। বিতথাভিনিবেশশ ত্ৰিবিধং কৰ্ম্ম মানসম্।।” (তিথিতত্ত্ব) পরদ্রধ্যবিষয়ে অভিধান, মনঃ দ্বারা অনিষ্টচিন্তা এবং মিথ্যাভিলিবেশ এই ত্ৰিবিধ মানস কৰ্ম্ম। মানস রোগ “কামক্রোধলোভ-মোহ-ভয়াভিমানদৈন্তপৈশুন্তবিষাদের্যাস্কয়ামাৎসৰ্য্যভূতয়:, অথবা উন্মাদাপম্মারমুচ্ছ ভ্রমতম: সংন্তাসপ্রভূতয়:” ( ভাবপ্র০ ) কাম, ক্রোধ, লোভ, মোহ,ভয়, অভিমান, দৈন্ত, পৈশুন্যবিষাদ, ঈর্ষা, অস্থয়া, মাংসৰ্ঘ্য প্রভৃতি মানস রোগ অথবা উন্মাদ, অপহ্মার, মূছ1, ভ্রম,ফ্লম ও সন্ন্যাস প্রভৃতি রোগকে মানস রোগ কহে। মনসা সঙ্করেন'কুতমিতা, । ৩ সরোবরবিশেষ । “কৈলাসপৰ্ব্বতে রাম মনসা নিৰ্ম্মিতং পরম্। ব্রহ্মণ। নরশাৰ্দ্দল তেনেদং মানসংসর ” (রামা ১২৪) কৈলাসপৰ্ব্বতে ব্ৰহ্মা মনঃসঙ্কল্প দ্বারা স্বে সরোবরনিৰ্ম্মাণ করেন, তাহার নাম মানস সরোবর। [ মানসরোবর দেখ । ] (পুং) ৪ নাগবিশেষ । (ভারত ১৫৭১৬) ৫ শান্মলী দ্বীপের বর্ষবিশেষ । ( মৎস্তপুe ৫৩২৭ ) ৬ পুষ্কর দ্বীপস্থ পৰ্ব্বতবিশেষ । “ৰাপান্ধত পরিক্ষিপ্তঃ পশ্চিমে মানসে গিরি” (মৎস্তপুa৩ল) ৭ সহাজিৰণিত জনৈক রাজা । ( সন্থা • ৩৩৫০ ) মানস, আসাম-প্রদেশে প্রবাহিত একটা নদী। ভোটানের भिब्रिमाणाद्र मथा श्रछ फेथिङ श्ब्र*मभिशांछिभूष ( יוני [ (సి( ) মানসতীর্থ ২৬-১৫ উঃ এবং জাৰি- ৯১°১৪’ পূর্কে) গোৱালপাড় নগরেঙ্গ সন্নিকটে ব্ৰহ্মপুত্র নদে আলিয়া মিশিয়াছে। গোৱালপাড়ার অপর পারে অর্থাৎ মদীর পুঞ্জলে প্রসিদ্ধ কামরূপ রাজ্য ও তীর্থ। যোগিনীতন্ত্রে এই নদীর মাহাত্ম্য কীৰ্ত্তিত হইয়াছে। আই, বুড়িজাই, গবুর, কাণামাকড়া, দোলানী ও চাউলখোয়া নামক,কএকটি শাখানদী ইহার কলেবর বৃদ্ধি কল্পিতেছে। সকল সময়েই এই নদীর বক্ষ দিয়া নৌকাৰোগে थांडाग्रांज्र कब्र शाब्र । गमङणरभएका हेशग्न शठि निब्रप्ठहे পরিবর্তনশীল । মানসচারিন (ত্রি) মানল চর-ণিনি। মানস-সরোবরে বিচ রণকারী ছংসভেদ। মানসস্তুপ ( পুং ) মানসেন কুতো জপঃ । বুদ্ধি দ্বারা বর্ণমালার উচ্চারণ। মনে মনে জপ । এইরূপ জপ অগুৰিধ হইতে শ্রেষ্ঠ । ইহাতে কোন নিয়ম নাই, অর্থাৎ অল্পজপে শুচি হইয়। জপ করিতে হয়, কিন্তু মানসজপে তাদৃশ কোন নিয়ম নাই । এই জপে বৰ্ণ, স্বর, পদাত্মিক অক্ষর-শ্রেণী অর্থাৎ মন্ত্রস্বরূপ বর্ণ সকল মনে মনে মন্ত্রার্থ সকল উপলব্ধি করিয়া যথাযথক্রপে বুদ্ধি দ্বারা উচ্চারণ করিয়া যে জপ কর। হয়, তাহাকে মানসজপ কহে । এই জপ শয়ন, উপবেশন, গমন প্রভৃতি সকল সময়ই করা যাহতে পারে। [ জপ দেখ ] “ধিয়া যদক্ষয়শ্রেণীং বর্ণস্বরপদায়িকাম্। উচ্চরেদথমুদ্দিন্ত মানস: স জপ: স্বত: । তজ্জপে নিয়মে। নাস্ত্যেব, তথা চ— - অশুচিবর্ণ শুচিব পি গচ্ছংস্তিষ্ঠন্‌ স্বপন্নপি । মন্ত্রৈকশরণে বিদ্বান মনলৈব সমভাসে২। ন দোষো মানসে জাপ্যে সৰ্ব্বদেশেইপি সৰ্ব্বদ ॥” (তন্ত্রসার) মানসতীর্থ ( ক্লী) মানসং তাঁথমিব, রাগাপ্তভাবাত্তথাস্থ । রাগাদিরহিত মন, যে মন হইতে রাগ দ্বেষ প্রভৃতি অসদগুণ অপনীত হইয়াছে, যে মনের সত্ত্বগুণ বৃদ্ধি হষ্টর রজঃ এবং তমোগুণ অভিভূত হওয়ার রাগধেষাদির উৎপত্তি হয় না, তাদৃশ মনই তাথ স্বরূপ, ইহাই মানসতীর্থ। "তার্থানি কথিতাম্ভেব ভেীমানি মুনিসত্তম । মানসানীহ তথানি ফলদানি বিশেষতঃ । মনে নিৰ্ম্মলতীৰ্থং হিরাগাদিভিরনাবিলম্ব।”(নরসিংহপু• ৪৬জs)" তত্ত্বদশিগণ এই মানসতীর্থে সৰ্ব্বদা অবগাহন করিয়া থাকেন।• • “জগাধে বিমলে শুদ্ধে সততোরে বৃতিস্থলে । প্লাতব্যং মানসে তীর্থে সত্যমালম্বা শাশ্বত । মনসা চ প্রদীপ্তেম ব্ৰহ্মজ্ঞাসঙ্গলেন চ । o BB BS BBB BB DD BB DDDBBDS DDB BBBBS