পাতা:বিশ্বকোষ চতুর্দশ খণ্ড.djvu/৬২৮

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


মরিক তোমার অমুগামী হয়ে তোমার সহায়তা করিবে । তুমি যাহাদিগের প্রতি অস্ত্র নিক্ষেপ করিবে, ইহারা তাহাদিগের মন উচ্চাটন এবং জ্ঞানীদিগের জ্ঞানপথে সৰ্ব্বদা বিঘ্ন সম্পাদন করিবে। সকল প্রাণিগণ যাহাতে সংসারবন্ধনের অমুকুল কাৰ্য্য করে, বিশ্ন থাকিলেও ইহারা সৰ্ব্বতোভাবে তাহ করিবে । এই গণগণ মহাবেগশালী ও কামরূপী। তুমি এই গণের অধিনায়ক হইবে । এই গণ কৰ্ম্মীদিগের পঞ্চ যজ্ঞাংশভোজী ও উদকশায়ী। এই গণ তপোনিষ্ঠ, ইহারা সকলে সন্ন্যাসী ও উৰ্দ্ধরেত । ( কালিকাপু• ৬ অ• ) মারক (পুং) ম্ৰিয়তে প্রাণিন: বমিন্‌ যেনেতি বা, মু-ঘঞ, ততঃ সংজ্ঞায়াং কন্‌। ১ মরক, পৰ্য্যায় মারি, উৎপাত। (ত্রিকা) ২ পক্ষিবিশেষ। চলিত বাজপক্ষী। (ভুরিপ্র-) (ত্রি) ৩ মারণকৰ্ত্ত। জন্মস্থানাবধি অষ্টমস্থানাধিপতি গ্রহভেদ । জ্যোতিষ মতে, মারক গ্রহ স্থির করিতে হইলে অগ্রে মারকস্থান স্থির করিতে হয়, এই মারকস্থানের অধিপতি যে গ্রহ, সেই গ্রহের দ্বিতীয়, সপ্তম ও অষ্টমাধিপতি সাধারণত: মারক গ্ৰহ । কারণ দ্বিতীয়, সপ্তম ও অষ্টম স্থান মারকস্থান বলিয়া অভিহিত হইয়াছে, সুতরাং তদধিপতি গ্রহই মারকগ্রহ। “ভাগ্যঞ্চাধিপত্যেন রন্ধে শে মারকঃ স্বতঃ।” (পরাশর ) ভাগ্যপতি, ব্যয়পতি এবং রন্ধপতিও মারক। মারকগ্রহ দ্বারা ব্যাধি, মৃত্যু প্রভৃতি চিন্তা করিতে হয়। মারকওছের বিশেষ যোগ বা দৃষ্টিতে মৃত্যু, সামান্ত যোগ বা সামান্ত দৃষ্টিতে সামান্ত ব্যাধি হইয়া থাকে। মারকগ্রহের দশা, অন্তৰ্দ্দশা ও প্রত্যস্তদ শাতে উক্ত ফল হইয়া থাকে। অথবা ঐ মারকগ্রহের সহিত অদ্য কোন গ্রহের সম্বন্ধ হইলে সেই গ্রহের দশ বা অন্তৰ্দ্দশাদিতে তদনুরূপ ফল হইয়া থাকে। মারকগ্রহের সহিত সম্বন্ধ না হইলে পীড়াদি হয় না। * “श्रद्देषः श्tशू४:श्न१ षष्टेभनिष्ठैमं ष९ ।। তয়োরপি ব্যঞ্জস্থানং মারকস্থানমুচ্যতে ॥” (লঘুপরাশর ) জন্মলগ্নাবধি অষ্টম, সপ্তম ও দ্বিতীয় স্থান মারকস্থান । शङब्राइ aहे ङिनष्ठौ शन शश्ग्रा भुङ्का ७ #ीफ़ानि ब्र विबग्न अदধারণ করা আবশুক । পরাশর সংহিতায় ইহার বিষয় এইরূপ লিখিত আছেe— • “অধুনা সংপ্রবক্ষ্যামি মারকাখ্য' গ্ৰহং দ্বিজ। অল্পমধ্যমপূর্ণায়ু-প্রমাণমিছ যোগজম্। বিজ্ঞায় প্রখমং পুংসাং ততে মারকচিন্তলম্ ॥ মন্দশ্যেৎ পাপসংযুক্তে মারকগ্রহযোগতঃ। তিরষ্ণুতা এহাল সৰ্ব্বান নিছৰ পাপকৃৎ সম্ব। [ ७२b” ] মরিক - - জায়াপতি ও ধনপতি উভয়ই মায়ক । রবি ও চন্দ্র ভিন্ন মারerস্থানের অধিপতি সমস্ত গ্রহই মারকদোষযুক্ত হইয়া থাকেন, রবি ও চন্দ্র গ্রন্থরাজ বলিয়া উহাদের মারকত্ব দোষ হয় না । বিংশোত্তরী-মতে মারকগ্রহ নিম্নোক্তরূপে নিরূপণ করিতে হয়। মারকবিচারের পূর্কে যোগঙ্গায়ু বা ফুটায়ুঃ গণন দ্বারা পরমায়ুঃ স্থির করিয়া পশ্চাৎ মায়ক-নিরূপণ করিতে হয়। যদি শনি তৃতীয়, ষষ্ঠ বা একাদশাধিপতি হইয়া, অথবা উহাদিগের অন্ততমস্থানের অধিপতির সন্ধিত যুক্ত হইয়া কোন মারক গ্রহের সম্বন্ধী হয়, তবে সেই শনি অন্ত সকল মারকগ্রন্থকে অতিক্রম করিয়া প্রবল মায়ক হইয়া থাকে। জায়াপতি, ধনপতি, যষ্ঠপতি ও অষ্টমপতি ইহঁারা সকলেই মুখ্যমারক, কিন্তু জায়াপতি অপেক্ষ ধনপতি এবং যষ্ঠপতি অপেক্ষ অষ্টমপতি প্রবল। অতএব ইহাতে স্পষ্টই বুঝা যাইতেছে যে, ধনপতি প্রথম, জায়াপতি দ্বিতীয়, অষ্টমপতি স্তৃতীয় এবং যষ্ঠপতি চতুর্থ শ্রেণীর মারক। পাপ-সম্বন্ধবশে বলবান হইয়া কোন স্থলে বা ব্যক্তিবিশেষে তৃতীয় বা চতুর্থ শ্রেণীর মারক ও প্রথম শ্রেণীর কার্য্যকারিত দেখাইতে সমর্থ হইয়া থাকে। বৃহস্পতি ও শুক্র কেন্দ্রপতি হইয়। দ্বিতীয় বা সপ্তমস্থ হইলে উভয়েই প্রবল মারক হইয়া থাকে । ঐ সকল মারকগ্ৰহ দশার অপ্রাপ্তিস্থলে ব্যক্তিবিশেষে পাপগ্রহের সম্বন্ধী ব্যয়পতি ও তৃতীয়পতি উভয়ই মারক হইয়া থাকে । আত্মকারক গ্রহ ও লগ্ন হইতে দ্বিতীয়, তৃতীয়, ষষ্ঠ, সপ্তম, অষ্টম ও দ্বাদশ এই সকল স্থানস্থিত গ্রহের মধ্যে যে গ্রহই অধিক বলবান হইবেন, সেই স্থলে সেই গ্রহই মারক । যদি ঐ সকল গ্রহের মধ্যে পরম্পরের বলের সমতা হয়, তাহ। হইলে উহার মারকসংজ্ঞক গ্রহই মারক । যদি মধ্যায়ুঃ-যোগে জন্ম হয়, এবং ষষ্ঠস্থানে বহু পাপগ্রহের যোগাদি সম্বন্ধ থাকে, তাহা হইলে ষষ্ঠপতিই মুখ্যমারক । আর দীর্ঘায়ুঃযোগে জন্ম হইলে যষ্ঠপতি যে রাশিতে থাকেন, সেই স্লাগুধিপের দশায় অথবা ধঃস্থান বা ষষ্ঠ হইজে নবম বা পঞ্চমপতির দশায় মৃত্যু হইয়া থাকে। বৃশ্চিক বা মকরলগ্নজাত ব্যক্তির রাহুগ্ৰছ প্রৰল মারক । বলবান বহুগ্রহ মারক হইলে সেই সকল গ্রহের দশা এবং অস্তুর্দশায় মারকগ্রহসম্বন্ধী পাপকৰ্ত্ত শমিস্তদা। অতিক্রুমোতরা সৰ্ব্বান নিৰন্ত ভবতি জ্বৰ। জায়াকুটুম্বকাশে ৰাৰেতে মুখ্যমাকোঁ। शठेiहेcभरणौ cदौ भूषो धवtजो cझांडtब्रांडरबो ॥ এতেষাং লণ্ডষে বিপ্র ব্যয়াধীশোহপি মারকঃ । পাপসম্বন্ধমাত্রেণ-বিক্রমেশোহপি মারকঃ।” ইত্যাদি । (পরাশয়গং)