পাতা:বিশ্বকোষ চতুর্দশ খণ্ড.djvu/৭০৬

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


习廿两环 és শিবনিৰ্ম্মালা, কটুকী, শ্বেতসর্ষপ, নিম্বপত্র, ময়ূরপুচ্ছ, সাপের | খোলস, বিড়ালের ৰিষ্ঠ, গোপৃঙ্গ, মদনফল, বৃহতী, কণ্টকারী পাকাঠ, ধান্তের তুষ, ছাগৰিষ্ঠ, শৃগালের বিষ্ঠা ও হস্তিদন্ত, এই সকল দ্রব্য সংগ্রহপূর্বক ছাগমূত্রে ভাবনা দিয়া উদুখলে । কুটিয়া মৃৎপাত্রে স্থাপনপূর্বক ধুপিত করিবে। ঐ ধূপ ঐকা- ; ছিক, দ্বাহিক ত্র্যাহিক ও চতুৰ্থক প্রভৃতি সকল ਾਂ । শিষম জর প্রশমনকারী । ষে গৃহে এই ধূপ প্রদান করা যায়, - তথায় উহার গন্ধে সর্প পিশাচ প্রভৃতি কিছুতেই প্রবেশ । করিতে পারে না। ‘ওঁ নমো ভগৰতে রুদ্রায় উমাপতয়ে । সম্পন্নায় ননিকেশ্বরায়। ময়ে ধূপের মভিমন্ত্ৰণ করিবে । মাহেশ্বরী ( স্ত্রী ) মহেশ্বরন্তেয়ং অণ, ভীষ, । ১ ঘৰতিক্তা। ১ দুর্গ। । "ভগদেলামুজাতায়াং সৰ্ব্বাসাং ৰামলোচন । মাহেশ্বরী মহাদেৰী প্রোচ্যতে পাৰ্ব্বতী ছি স৷”(ভা৯১৪।৪৩১৫) ২ মাতৃভেদ। ৩ পীঠস্থানভেদ । ( দেবীভাগ• ৩২•৭২ ) ৪ নদীবিশেষ । মাহোয়ারী ( পাৱলী) মাসোয়ারী । মাস মাস। মাহ্মদ, ( সুলতান-উল-আজম মনীন উদৌল, নিজামੇ আবুল কাশিম, মাঙ্ক, গাজী )—ম প্রসিদ্ধ মুসলমানস্ত্ৰাটু ইহাঙ্গ পূৰ্ব্বে কোন মুসলমান শাসনকৰ্ত্ত বোগদাদের ! খলিফাগণের দ্বাৰা স্বলতান বলিয়া স্বীকৃত হন নাই। তাহার । পিতার নাম আমীর-উল-গাজী-নাসিরুদ্দীন উল্লা সৰক্তপীন। তিনি পায়স্কদেশের কোন উচ্চবংশোধৰ ব্যক্তি ছিলেন । মাহ্ম, ৩৬১ ৰিঞ্জিরায় ১•ই মহরম রাত্রিতে জন্ম গ্রহণ করেন। মাস্কদের জন্মের এক ঘণ্টা পূৰ্ব্বে তাছার পিতা । স্বপ্ন দেখিতেছিলেন যে, প্রকোষ্ঠাভ্যস্তরস্থ অগ্ন্যাধায় চষ্টতে একটা প্রকাও বৃক্ষ অক্তি সত্ত্বর বাড়িয়া উঠিল । । পরিশেষে বৃক্ষট গগনমণ্ডল ভেদ করিয়া এত উচ্চে উখিত হইল যে, তাহার ছায়। সমস্ত পৃথিবীকে অন্ধকারাচ্ছন্ন করিয়া ফেলিল । সবভাগীন তৎক্ষণাৎ জাগিয়া স্বল্পবৃত্তাস্তু আলোচনা করিতে লাগিলেন । এই সময় এক জন পরিচারক জামিয়। জ্ঞাপন করিল যে,--তাছার পত্নী এক পুত্র রত্ন প্রসব করিয়াছেন,—মৰক্তগীৰ আননো উৎফুল্প হুইয়৷ পুত্রের মাৰু, ( প্রশংসাভাজন ) নাম রাধিলেন। সেইদিন রাত্রিতে সিন্ধুভাত্নৰঞ্জী পশবের বা পুরুষপুরের দেৰমন্দির অকস্মাৎ ভূমিসাৎ হয়ে গেল। মহম্মদের জন্মসময়ের ভ্যয় মাস্কদের জন্মকালে গ্রন্থগণ উচ্চসংস্ক ছিলেন । তাহাতে সকলে बूक्षिप्राक्षिण्णन, डिनि कबिशप्ठ uकबन अगाथाब्रल ८णारू হইবেন। মাঙ্ক, অতিশয় হৃষ্ট পুষ্ট ও বলি থাকিলেও ॐाशग्न 4ननधetण G अछtश्व हॉप्न भ शैब्र दगएखञ्च क्रिहरू t १०७ ] মাহ্ম, ছিল, স্বাভাবিক সৌন্দৰ্য্য কিছুই ছিল না। এমন কি, তিনি নিজে একদিন দর্পণে মুখ দেখিয়া বলিয়াছেন, রাজার আকৃতি দেখিলে দশকের চক্ষু ঝলসিয়া যাইবে, কিন্তু ঈশ্বর অামার প্রতি এমনই নির্দয় যে, আমার মুখশ্ৰী লোকের অতৃপ্তিজনক । ৯৯৭ খৃঃ মধ্যে সবক্তিগীনের মৃত্যু হয়। মৃত্যুর অনতিকাল পূর্বে তিনি কনিষ্ঠ পুত্র ইসমাইলকে স্বীয় রাজ্য প্রদান করিয়া যান। মাহ্মদ ইসমাইল অপেক্ষা বন্ধোজ্যেষ্ঠ এবং তাহাতে আবার তিনি ঐ সময় খোরাসানের শাসনকর্তৃপদে নিযুক্ত ; কিন্তু এ সমস্ত সত্বেও যাহ্ম, জারজ সন্তান বলিয়। সবক্তিগীন ইসমাইলকে উত্তরাধিকারী করিয়া যান। কিন্তু মাহ্মদ সহজে ছাড়িবার লোক ছিলেন না। তিনি ইস্যু মাইলকে যুদ্ধে পরাস্ত করিয়া কারারুদ্ধ করিলেন এবং মুলতান উপাধি গ্রহণপূৰ্ব্বক গজনীর অধীশ্বর ইষ্টলেন । সুলতান মাহ্মদ ৩৩ বৎসরের অধিক কাল রাজত্ব করিয়াছিলেন । তিনি সপ্তদশবার ভারতবর্ষ আক্রমণ করিয়া মণিমুক্ত ও অনেক মূল্যবান জিনিস লইয়া গিয়াছিলেন। ১ম আক্রমণ—১••• খৃঃ অন্ধে তিনি পেশাবরের সন্নিহিত ভারতীমান্তে ক একটা দুর্গ অধিকার করিয়া বহু ধন রত্ন লুণ্ঠন করিয়া গঞ্জনীতে আনয়ন করেন। ২য় আক্রমণ-১০৯২ খৃঃ অব্দে সুলতান দশ হাজার অশ্বারোহী সৈন্য লইয়া পেশাবরে উপস্থিত হল, তথায় মহারাজ জয়পালের সহিত তাম্বার সংগ্রাম হয়। এই যুদ্ধে জয়পাল বিশেষ পরাক্রম প্রদর্শন করিঞ্জ। অবশেবে ১৫ জুন সামস্ত সহ বন্দী হুইয়াছিলেন। তুষারপাত ন হইলে জয়পাল কখনই পরাজিত হইতেন না । তাছাতে জয়পালের ৫••• সৈন্ত রণক্ষেত্রে হত হয় ; মাথ, অনেক অর্থ ও মণিমুক্তাখচিত জয়পালের কণ্ঠহার লইয়া ও কহিমুর লুণ্ঠন করিয়া গজনীতে ফিরিয়া আসেন। তবকাত-ই-মকৰন্ত্রীতে জয়পালের বীরত্ব-কাছিন উজ্জলবর্ণে চিত্রিত আছে। ৩য় আক্রমণ—tহন্দুরাজ স্বীকৃত কর না দেওয়ায় ১• •৪ খৃঃ জন্ধে স্বলতান ভারতবর্ষে পুনরায় আগমন করেন ; এবং মুলতানের ভিতর দিয়া ভাটিয়া নামক স্থানে উপস্থিত হন । এই নগরের চতুঃপাশ্বে উচ্চ প্রাচার এবং গভীর ও প্রশস্ত খাল থাকায় তথাকার রাজ বিজয়রাজ নিঃশঙ্কাচণ্ড ছিলেন । তিনি তিন দিন পর্য্যস্ত এরূপ সুকৌশলে নগর রক্ষা কারয়। ছিলেন যে, মুসলমানসেম্ভ এক প্রকার হতাশ হুহৰ পড়িয়াছিল। কিন্তু মাক্ষুদ্র বিরত হছৰাৱ লোক নছেন। তিনি प्टेनछभिटक “भाल्लग्न भाषम किरवा श्रृंत्रैौब्र श्रृंख्न' फे९मूोङ्बाक; যুদ্ধে চালাইলেন এবং তুমুল লংগ্রামের পর জয়লাভ করিলেন ।