পাতা:বিশ্বকোষ ত্রয়োদশ খণ্ড.djvu/২৯১

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


उल्लक মধুর গন্ধ পাটবামাত্রই ইহার সেই গাছ নিরূপণ করিয়া তদুপরিস্থ চক্র পাড়িয়া খাইয়া থাকে। ইহাদের নখ গাছে উঠিবার বা গৰ্ত্ত খুড়িবার যত উপযোগী, জীবদেহবিদারণে সেরূপ উপযোগী নহে। শীতকালে ইহারা নিরাহার ও নিশ্চেষ্ট থাকিতে ভালবাসে। ভলুকীগণ শীতকালেই শাবক প্রসব কল্পে । বিভিন্ন দেশে ভল্লুকজাতি বিভিন্ন নামে পরিচিত। ইংলণ্ডে–Bear, চীন-হিউজ, ইথিওপিয়া—দো, জারব— EA, IFfo-Ours, wofs-Arktos, Bär, fF–So., বরফ ক| রিখ ; ইতালী—Orso, লাটিন—Ursus, সুইডেন— Björn, সংস্কৃত—ঋক্ষ, কাশ্মীর—হরপুত, লাদক—দ্রিনমোর, বাঙ্গালা...ভল্লুক, ভালুক ; ভোট-থোম, লেপচা-সোনা, মহারাষ্ট্র.অসবৈল, তেলগু...ইলেগু, গুড়েলগু ; কণাড়ি... কডিড, করঢ়ি ; গোড়—খেরিদ, কোল-ভন্ন, পারস্ত—দীপ, স্পেন—Oso, তামিল—কড়ড়ি । ধূসরবর্ণের ag* Brown-Bear <i Ursus Arctos পৃথিবীর সর্বত্র দেখিতে পাওয়া যায়। কামস্কাটকাবাসীরা ভল্লুককে একটা উপভোগ্য-দ্রব্য মধ্যে গণ্য করে। সংসার সুখের আবশ্যকীয় অধিকাংশ পদার্থই তাহাদের ভল্লক হইতে সংগৃহীত হয়। তাহারা গাত্রবস্ত্র, জামা, দস্তান, মাথার টুপি, গলাবন্ধ, পায়জাম, জুতা এবং শীত হইতে রক্ষার্থ যাবতীয় উপকরণ এই লোম বহুল চৰ্ম্মস্বারাই প্রস্তুত করিয়া থাকে। বরফের উপর ভ্রমণকালে পাছে পদস্খলিত হয়, এই ভয়ে তাহার এই চৰ্ম্মে জুতা হইতে মস্তক পৰ্য্যস্ত এক প্রকার গাত্রাচ্ছদনী প্রস্তুত করিয়া লয়। ইহার কোমল মাংসপিণ্ড ও চৰ্ব্বি তাহাদের উপাদেয় খাদ্য। • এতদ্ভিন্ন ইহার নাড়াভুড়ি হইতে তাহার এক প্রকার মুখোস প্রস্তুত করে । উহ। বসস্তের প্রখর সুর্য্যরশ্মি ও শীতের প্রভাব হইতে মুখ ও চক্ষুকে রক্ষা করিতে সমর্থ। উহা এরূপ স্বচ্ছ যে তাহাতে দৃষ্টি-শক্তির কোন ব্যাঘাত জন্মে না। কখন কখন কাচের পরিবর্তে উহা জানালায় ব্যবহৃত হইয়া থাকে। লাপলগুবাসিগণ ইহাদিগকে ঈশ্বরের কুকুর জানিয়া বিশেষ ভক্তি করে। নরওয়েবাসীদের বিশ্বাস, এক ভল্লুকে ১০ জন মনুষ্যের বল ও ১২ জনের বুদ্ধি ধারণ করে। এই জন্ত তাহারা ভুলিয়াও তাহাদের ‘গোয়া’ (Guoughja=ভালুক সংজ্ঞাবাচক) নামে অভিহিত করে না। ভয়--পাছে তাহার এইরূপ অপমানে ক্রুদ্ধ হইয়া প্রতিশোধ – গ্রহণ করে। তয়েই হউক, জার ভক্তিতেই হউক, তাহার są w cifttre Moedda Aigja wsts catatxifrē বুদ্ধ মনুষ্য বলিয়া প্রীতি-সম্বোধন করিয়া থাকে। XIII סיף [ ২৮৯ ] उष्ट्रक পূৰ্ব্বেহ উল্লেখ করিয়াছি, নিৰ্জ্জনতাপ্রিয় এই ভল্লুক জাতি সস্তান-প্রসবের সময় বৃক্ষকোটর বা পৰ্ব্বতকৰ্ম্মরে আশ্রয় লয় । কিন্তু যখন তাহারা স্বভাবনির্দিষ্ট নিবাস-সদ্ধানে অক্ষম হয়, তখন তাহারা স্বীয় করাল নখর দ্বারা মৃত্তিকা মধ্যে গর্ত খুড়িয়া, অথবা ডালাপাল ও শৈবালদল সমাচ্ছাদনে এক কুটার নিম্মাণ করিয়া শীতের প্রারম্ভেই তন্মধ্যে প্রবিষ্ট হয়, জ্যৈষ্ঠ মাসের দারুণ গ্রীষ্মে ভল্লুকীগণ গঙ গ্রহণ করে এবং সেই সময়ে সানন্দচিত্তে বিহার ও আহারাদিতে পুষ্টদেহ হইয়৷ শীতাগমে স্ব স্ব নিদিষ্ট-নিলয় মধ্যে শয়ান থাকে। তথায় শাবক প্রসবাস্তে ভলুকী ও ভল্লুকগণ নিশ্চেষ্ট ও নিদ্রিত থাকিয়া অনাহারে দিন যাপন করে, প্রস্তাৰস্থায় তাহাদের শাবকগুলি কুকুর ছানার মত দেখায়। ভল্লুকে প্রায় ৩১ হইতে ৪৭ বৎসর পর্য্যস্ত বঁাচে । স্থূলকায় হইলেও তাহার। বিশেষ সন্তরণপটু। एठष्यतः श्रियः। निष्ण cश श्वॆौप्र ०थङ् चठिभए विशङ्गগুলি সহজে অভ্যাস করিতে পারে। ইহাদের বোধশক্তি এরূপ তীক্ষ্ণ যে,একবার কোন কথা তাহাদিগকে শিক্ষা দিলে, কখনই তাহা ভুলিয়া যায় না। কিন্তু যখন তুর্ক,দ্ধিতাবশতঃ অবাধ্য হয়, তখন তাহার প্রস্তু লাঠী মারিয়াও তাহাকে সোজা করিতে পারেন। ভলুকের ক্রীড়। অতীব কৌতুহলোদ্দীপক। কঠোর পরিশ্রমের পর ভল্লুক ক্রীড়া সন্দর্শন চিত্তবিনোদের একটা প্রধান উপায় । ইহাদের মৃত্য, ও অপরাপর শিক্ষিত বিষয়ের অমুকরণ এবং প্রতিক্ষণে জর, কম্প প্রভূতি বড়ই হাস্যকর। কেবল যে বাঙ্গালায় ও ভারতের অন্তান্ত স্থানে এইরূপ ভল্লুক । ক্রীড়া প্রদর্শিত হইয়া থাকে, তাহা নহে, সুদূর ইংলওে মহারাজ্ঞী এলিজাবেথের রাজত্বসময়ে এইরূপ ভল্লুক-ক্রীড়ার সমাদর ছিল । তৎকালে এই ক্রীড়া দেখিবার জন্য লর্ড, আরল প্রভৃতি বড়লোকে ভল্লুক পুযিতেন। বিশ্রামের সময় তাহারা ক্রীড়াস্থলে উপনীত হইয়। আমোদ উপভোগ করিতেন • । প্রাচীন রোমানদিগের মধ্যেও ভ সাদর ছিল । তাহারা দুষ্ট ব্যক্তিদিগকে বস্তভল্লুকের সহিত । দিত । এরূপ কঠোর দও তৎকালে অপর কোন সত্ত র মধ্যে ছিল কি ন সন্দেহ । ঐ ব্যক্তি যদি পগুটী নিহত করিয়া সুস্থ বা ক্ষতবিক্ষত দেহে ফিরিয়া আসিতে পারিত, তাহা হইলে সে প্রাণদণ্ড হইতে অব্যাহতি পাহত + ।

  • Eng Cyclo. Nat. Hist. Vol. I. p. 408, + মর্শাল ওজৰী ভাষায় এই বীভৎস ব্যাপারের চিত্র জঙ্কিত করিয়াছেন। লেীয়েওলাল নামক জনৈক দোষী ব্যক্তিকে ভীষণদর্শন এক ভল্লুকের প্রতিদ্বশী কল্পিম্বা একস্থালে রাখা হইয়াছিল ।