পাতা:বিশ্বকোষ ত্রয়োদশ খণ্ড.djvu/৩৫৫

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ভারতবর্ষ [ ৩৫৫ ] ভারতবর্ষ ইহার পর ১৮৭৩-৭৪ খৃষ্টাৰে বেছার অঞ্চলে ভয়ানৰ ছুর্ভিক্ষ দেখ দেয়। এই সময় গযমেণ্ট স্থানীয় প্রপীড়িত ব্যক্তিলগের কষ্ট দূরীকরণে বদ্ধপরিকর হন। অনতিৰিলম্বে ১৮৭৬ ৭৮ খৃষ্টাঙ্গে পুনরায় সমগ্র ভারতে একটা দীৰ্থৰ্যাপী দুর্তিক্ষের সঞ্চার হইয়াছিল। এরূপ লোমহর্ষণ ব্যাপার ভারতের অমৃষ্টে আর কখনও ঘটে নাই । ঐ সময়ে অনাহারে ও বিস্তুচিক। প্রভৃতি রোগে দক্ষিণ-ভারত প্রায় জনশৃষ্ঠ হইয়াছিল। ১৮৯৮৯৯ খৃষ্টাম্বে পুনরায় দক্ষিণভারতে ছঙিক্ষের প্রকোপ হয়। তখন ভারতের বড়লাট মহামতি লর্ড কজন ও তৎসহধৰ্ম্মিণী কৰ্ম্মক্ষেত্রে উপস্থিত থাকিয়া বিভিন্ন দেশবাসীর নিকট অথ যাদ্ধা করিয়া ছিলেন । তাছাদের প্রার্থনালন্ধ অর্থভাণ্ডারে দানদুঃখার উদরপূৰ্ত্তি হইয়াছিল। গবমেন্টের রাজকোষ হঠতে ও প্রজাবর্গের দুঃখমোচনার্থ অথব্যয় করা হইয়াছিল । বর্তমান ১৯৯২ খৃষ্টাকেও স্থানে স্থানে অন্নকষ্ট ও জলকঃ মম ভাবে রহিয়াছে । শাসন-প্রণালী । ইংরাজাধিকৃত ভারতবর্ষ সুশৃঙ্খলরপে শাসন করিবার দুষ্ঠ বিলাতের পালিমেণ্ট কর্তৃক পাচ বৎসরের জন্তু এক একজন রাজপ্রতিনিধি নিযুক্ত হইয় থাকেন। তিনি ও তদীয় মন্ত্রিসভা ভারতের মাবতকায় আইন প্রস্তুত ও শাসনকায্য-নিম্পন্ন করেন। কিন্তু কোন কোন বিষয়ে বড়লাট বাহাদুর মন্ত্রিসভায় পরামর্শ না লহয়া স্বমতে কাৰ্য্য করিবার ক্ষমতা প্রাপ্ত হইয়াছেন । উপরোক্ত মন্ত্রিসভায় বড়লাটবাহাদুর ব্যতীত আর ছয় সাতজন সুদক্ষ ও বিজ্ঞ ইংরাজকৰ্ম্মচারী আছেন । নিদিষ্ট সময়া স্তর এই সভার অধিবেশন হইয় থাকে । ভারতীয় মাইন ও শাসনসংক্রাস্ত যাবতীয় বিচার এবং বৈদেশিক রাজনীতি আলোচনা ও মীমাংসা উহার উদেশ্ব। এতদ্ধিয় আইন প্রস্তুত করিবার নিমিত্ত পূৰ্ব্বোৰু সভ্যগণ, বোম্বাই ও মন্দ্রিাজের শাসনকৰ্ত্তাদিগের প্রতিনিধি, এবং কতিপয় মনোনাত দেশায় ও বৈদেশিক মুধোগ্য সভ্য লইয়া একটা সভ। সংগঠিত হয়। যে প্রদেশে ঐ ব্যৰস্থাপকসভার অধিবেশন হয়, তথাকার শাসনকৰ্ত্ত ও সেই সম্ভার সভ্যশ্রেণীভুক্ত হইতে পারেন। এই স eার কার্য্যবিবরণী জনসাধারণের জ্ঞাত হুঃ বার কোন বাধা নাই । বিচারকার্ধ্যের মুৰিধার জন্ত বাঙ্গাল, বোম্বাই ও মাজাজ । এবং উত্তরপশ্চিম প্রদেশে হাইকোর্ট নামক এক একটা সম্বোচ্চ বিচারালয় আছে। তাছাতে প্রদেশয় ফৌজদার ও দেওয়ালীসংক্রাস্ত ধাৰতীয় মোকদ্দমার চূড়ান্ত নিস্পত্তি হইয়া থাকে। পদাৰে ভিন জন দঙ্গ লঙ্গয় একটি চিফ কোর্ট আছে । মধ্য প্রদেশ, অবোধ্যা ও ৰেয়ায় প্রদেশে শাসনকাৰ্য্য পরিচালন छछ *क oरक्षधम कमिलनग्न आटइन। जानादमब्र क्लिक्ष-रुभिBBDD BBBB BDDD DBS BBBB BBBDD BBDD ছোটলাট ও গ্রাদেশিক শাসনকর্তাগণের অধীনস্থ জজ ও সব জঞ্জ এবং প্রত্যেক মহকুমার ২৩ জন মুন্সেফ বিচার-কায্যে मिर्ूख अाए झन् । সমন্ত্ৰিক গধর্ণর-জেনারেল ভারতের সর্বময় কৰ্ত্ত হইলে ও প্রকৃতপক্ষে তিনি স্বয়ং সমস্ত কাৰ্য্য করেন না । শাসন কায্যের সুবিধার নিমিক্স ইংরাজাধিকৃত ভারত কয়েকট প্রদেশে বিভক্ত হইয়াছে। প্রত্যেক প্রদেশে লেফটনাণ্ট-গধর্ণয়, গৰগঁয়, চিফকমিশনার ৰা কমিশনার-উপাধিধারী এক একজন শাসনকৰ্ত্তা নিযুক্ত আছেন। উছার বড়লাটের কর্তৃত্বাধীনে থাকিয়া স্ব স্ব প্রদেশ শাসন করেন। লেফটেনাণ্ট গবর্ণর এৰং চিফ কমিশনরগণ সিবিলপাণ্ডিল হইতে এবং গষপয়গণ পালিমেণ্ট লগু। হইতে মনোনীত হইয় থাকেন। বাঙ্গালা, মাত্রাজ ও বোম্বাহ sBK BBB BBSBB BBTT BBBDBBBBB BBB DDD সংগঠনের ক্ষমতা নাই । আজমীর, কুর্গ ও ৰেন্সার সামান্য জেলার স্তায় হইলেও তথাকার ভারপ্রাপ্ত কণাচারিগণ প্রদেশীয় শাসন ক ৫াগণের দ্যায় বড়লাটের অধাম । প্রত্যেক প্রদেশ কমিশনার-অধীনস্থ কয়েকটা বিভাগে এৰং প্রত্যেক বিভাগ আধার কয়েটা জেলায় গঠিত। জেলায় মাজিষ্ট্রেট-কলেক্টরগণ বিভাগীয় কমিশনারের অধীন থাকিয় জেলার শাসনসংক্রাস্তু সমস্ত কার্য্য নিববাহ করেন। প্রত্যেক জেলায় কয়েকটা করিয়া ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র মহকুমা এবং প্রত্যেক মহকুমায় তদদীন পল্লীসমূহে শান্তিরক্ষার জষ্ঠ কতিপয় থান আছে । মঙকুমার ভারপ্রাপ্ত কৰ্ম্মচারিগণ জেলার মাঙ্কিষ্ট্রেটের পরামর্শ ও আদেশামুপারে মহকুমার শাসনক{য্য নিৰ্ব্বাহ করিয়া থাকেন । বাঙ্গালা এবং মাঞ্জ জি ও উ গুরপশ্চিম প্রদেশের কয়েকট জেলা ভিন্ন ভারতের কোন স্থানে চিরস্থায়ী বন্দো BB BDS DBB BB KKBBB BBB BBBBBS BB নিদিষ্ট হারে গবমেন্টকে রাজস্ব প্রদান করে। পরে মেয়াদঅস্তে পুনরায় জরিপ হইলে, নুতন বন্দোবস্তাত্নসারে খাজন। দিয়া পাকে । লবণের শুষ্ক হঠতে গবমেন্টের বিস্তর আয় হুষ্ঠয় থাকে। পূৰ্ব্বে লবণের শুক্ল সৰ্ব্বত্র সমান ছিল । পরে ১৮৭৮ সালে সরু জেমস ট্রাচি মহোদয় লবণের গুহু BBB BBD DDtDH BBBS BkBB BBBB BBBB BB প্রতি মণে /s পয়সার কিছু অধিক ।

  • िझछांष्ठ ॐ बी : অতি প্রাচীন কাল হইতে ভারতে শিঙ্কের চর্চা ছিল ।