পাতা:বিশ্বকোষ ত্রয়োদশ খণ্ড.djvu/৪৯

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


वैिश्च [ • 8१ ] पेिक्ष ৰণচাঞ্চলই ৰিণি গুণদায়ক। প্রাক্ষা, ৰিৰ ও হরিতকী গ্রন্থ- “পুণ্যবৃক্ষ মহাভাগ জালগ্ন জীঞ্চল প্রস্তে । fতর ঞ্চল গুগ্ধেই গুণাধিক্য হইয়া থাকে । ( ভাষ প্র” ) মহেশপুজমাখায় তৎপত্রাণি চিমোমাছং।” ৰিম্ববৃক্ষের উৎপত্তি সম্বয়ে বৃহদ্ধৰ্ব্বপুরাণে লিখিত আছে– । কমলা এভিনি সহস্রপদ্মার মানেৰেয় পূজা করিতেন। ; একদা সহস্রপুষ্প ২৩ বার গণনা করিয়া পুজার সময় দেখিলেন দুইটী পল্প কম হইয়াছে । তখন লক্ষ্মী নিতান্ত কাতর হইয়। মনে মনে স্থির করিলেন, ভগবান বিষ্ণু আমার ; স্তনদ্বয়কে পদ্ম বলিয়া উল্লেখ করিয়া থাকেন, অতএব এই স্তনপর কর্তন করিয়া মহাদেবের পূজা সমাপন করি । তিনি ইছাই স্থির করিয়া অস্ত্রদ্বারা প্রথমে বামন্তন ছেদন করিয়া মহাদেবের মস্তকে প্রদান করিলের । যখন কমলা দক্ষিণস্তম কাটিতে উদ্যত হইলেন, তখন মহাদেব স্বয়ং স্বর্ণলিঙ্গ হইতে আবির্ভূত হইয়া কহিলেন, তোমার দ্বিতীয়স্তম ছেদন করিবার আবগুক নাই। আমি তোমার ভক্তিতে নিতান্ত প্রত হইয়াছি। তোমার যে ছিন্ন স্তন মদীয় লিঙ্গোপরি সক্ষপিত হইয়াছে, উছা অবনী- } তলে শ্ৰীফল নামে পুণ্যপ্রদ বৃক্ষরূপে সমুৎপন্ন হউক। শ্ৰীফল বৃক্ষই তোমার মূৰ্ত্তিমতী ভক্তিতুল্য জানিবে। যতদিন চক্সস্বৰ্য্য থাকিবে, ততদিন তোমার এই কীৰ্ত্তি থাকিবে । এই বৃক্ষ আমার অতিশয় প্রিয় হইবে । এই বৃক্ষপত্র ব্যতীত কখন श्रामात्र भूछ इ?tर ना । णौ हेर उनिब्र निडाड चैड। হইলেন । বৈশাখমাসের শুক্লাতৃতীয়ার দিন বিশ্ববৃক্ষের আবির্ভাব হয় । শ্ৰীফলবুক্ষ সমুৎপন্ন হইৰামাত্র ব্রহ্ম, নারায়ণ, ইজাদি দেবগণ ও দেবপত্নীর সকলে তথায় সমাগত হইলেন। তখন সকলে দেখিলেন, এই বৃক্ষ স্নিগ্ধ, শিবস্বরূপ ও খ্ৰীয়তেজে দেদীপ্যমান। ঐ বৃক্ষ ত্রিপত্রে পরিশোভিত। ' ভগবান বিষ্ণু তখন কহিলেন, এই বৃক্ষের বিষ, মালার, শ্ৰীফল, শাণ্ডিল্য, শৈল , শিব, পুণ্য, শিবপ্রদ, দেবাৰাস, তীর্থপদ, পাপঘ্ন, কোমলচ্ছদ, জয়, বিজয়, বিষ্ণু, ত্রিনয়ন, বর, ধুম্নাক্ষ, শুক্লবৰ্ণ, সংযমী ও শ্রাদ্ধদেবক, এই একবিংশ নাম হইল। এই বৃক্ষের মূলদেশ হইতে শতধন্থ-পরিমিত স্থান পরমতীর্থস্বরূপ। ঐ বৃক্ষের তিনটা পত্র তিনটী তীর্থঙুল্য। উৰ্দ্ধপত্র শিব, বামপত্র ব্রহ্মা এবং দক্ষিণপত্র সাক্ষাৎ বিষ্ণু। বিধবৃক্ষের ছায়া বা পত্র গঙ্গান ও পাদদ্বার স্পর্শকরা বিধেয় নহে। এই বৃক্ষলক্ষ্যনে পরমায়ুর হ্রাস এবং পাম্পর্শে ইছরণ হইয়া থাকে। সহস্ৰ পদ্মপুষ্পে পূজা করিলে ধে ফল হয়, একটী বিৰপত্ৰধারা এই মন্ত্রে বিশ্বপত্র ক্ষুলির পরে বিষবৃক্ষকে প্রণাম করিতে হইবে। প্রণামমন্ত্র

  • ওঁ লক্ষে বিৰভয়ৰে সদা শঙ্কররূপিশে । সঙ্কলামি সমাজানি কুঞ্জৰ শিবছৰ্ষদ ॥”

প্রভাতে গাত্ৰোখান করিয়া বৃক্ষের মূলদেশে চারিদিকে দশহস্ত পরিমিত স্থান লগোময় জলে মার্জন করিতে হয়। পক্ষান্ত অর্থাৎ অমাবস্তা, পূর্ণিমা, দ্বাদশী, সারংকাল ও মধ্যাহকাল এই সকল সময়ে বিশ্বপত্র চয়ন করিতে নাই, শাখা ভগ্ন করা অথবা বৃক্ষে আরোহণ করা উচিত মহে, বরং বৃক্ষে আরোহণ করিয়া পত্ৰ চয়ন করিবে, তথাপি শাখা ভগ্ন করিবে না । রমণীয়, অখণ্ডিত বা খণ্ডিত সকলপ্রকার পত্রেই শিবের অচ্চন . হইতে পারে । ৬ মাসের পর বিল্বপত্র পলুষিত হয়। স্বৰ্য্য ও গণেশ ভিন্ন সকল দেবতাকেই বিশ্বপয়দ্বারা পূজা করা যায় । যেস্থানে বিশ্বকালন আছে, সেইস্থান বারাণসী তুল্য পবিত্র । বাটীর ঈশানকোণে বিশ্ববৃক্ষ পুতিলে বিপদের আর সম্ভাবনা থাকে না। বাটীর পূৰ্ব্বদিকে বিধবৃক্ষ থাকিলে মুখ, দক্ষিণে শমনভয়নাশ এবং পশ্চিমে প্রজালাভ হইয় থাকে। শ্মশান, নদীতীর, প্রাস্তর ও বনমধ্য, এই সকল স্থামে বিশ্ববৃক্ষ থাকিলে তাহা পীঠস্থল বলিয়। কীৰ্ত্তিত হয় । 事 বাটীর প্রাঙ্গণের মধ্যস্থলে বিশ্ববৃক্ষ রোপণ করিতে নাই । যদি দৈবাৎ সমুৎপন্ন হয়, তাহা হইলে শিবজ্ঞানে তাহার অর্চনা করিবে । বিশ্ববৃক্ষ ছেদন বা তাহার কাঠ দহন করিতে নাই । ব্ৰাহ্মণদিগের যজ্ঞ ভিন্ন অভ কোন কারণে বিশ্ববৃক্ষ বিক্রয় করিলে फोहोरक °ठिङ हहेड ह्युग्न । दिदफाई-एर्षिङ झनान भक्लएक ধারণ করিলে নরকভয় থাকে না । চৈত্র, বৈশাখ, জ্যৈষ্ঠ ও আষাঢ় এই চারিমাসে বিববৃক্ষে জলসেক করা বিধেয় । ( পুহৰুর্গাপু ৯-১১ অঃ ) বহ্নিপুরাণে লিখিত আছে, গোন্ধপধারিণী লক্ষ্মী পৃথিবীতে জবর্তীর্ণ হইলে তাহার গোময় হইতে ধিৰৰূক্ষের উৎপত্তি হয় । “ভূগোলক্ষ্মীশ্চ বা ধেনু গোরাপ লা গত মহীম্। * BBBHHDDBB DD TB BBBDDDD SBBBBS ७हे ठूइक्र जन्त्री नर्संगा याण करङ्गम । uहेछक्क हेशद्र নাম প্রবৃক্ষ । * পূজার ভাদৃশ কালাগু হইয়া থাকে। তুলসীপত্ৰেয় খায় বিশ্বপত্র চন্ধনের সময় মন্ত্রপডিয়া পত্র ভুলিতে হয়। ৰিৰপত্ৰ জুলিৰায় মন্ত্ৰ-- • “वळाना५८sइ नरपूंठा १५ शबईब्रजलब* * cशशिनि॥ cātंब मै॥: श्रूश्वt fरैि शखt भ१tt ॥ ৰঞ্জাম পাৰাশি গুধ দিধিয়াণি চ ।