পাতা:বিশ্বকোষ ত্রয়োদশ খণ্ড.djvu/৮০

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


বুদ্ধদেব কোন সঙ্গেঙ্ক বা মন্তভেদ থাকে জিজ্ঞাসা কর । কিয়ৎকাল পরে আনন্দ বলিলেন, হে ভগবন, আপনার প্রবর্ধিত ধর্মের কোন বিষয়ে আমাদের কাহারও মতদ্বৈধ নাই। • অনন্তর বুদ্ধ ভিক্ষুগণকে সম্বোধন করিয়া বলিলেন, ছে ভিক্ষুগণ ! সংযোগোৎপন্ন পদার্থ মাত্রেরই ক্ষয় অবশ্যম্ভাবী, তোমরা সাৰধাম হুইয়া স্ব স্ব কার্য্য করিবে, তথাগতের এই শেল বাক্য । অনন্তর বুদ্ধ প্রথম, দ্বিতীয়, তৃতীয় ও চতুর্থ ধ্যানে ক্রমে বিহার করিতে লাগিলেন । অীকাশীনস্তায়তন, বিজ্ঞানানন্ত্যয়তন, অকিঞ্চয়িতন, নৈবসংজ্ঞ বা সংঙ্গায়তন ও সংজ্ঞা বেদরিতৃনিরোধ, এই সকল যোগে বিহার করিলেন। আকাশ অসীম, জ্ঞান অনন্ত, জগৎ জষ্কিঞ্চল; সংক্ষ্য ও অগঞ্জ উভয়ই অলীক, এইরূপ ভাবিতে ভাবিতে জ্ঞাতা ও জ্ঞেয় উভঙ্গের ধ্বংস | হওয়ায় বুদ্ধ পরিনিৰ্ব্বাণ লাভ করিলেন । সেই সঙ্গে জগতের মধ্যে একজন সৰ্ব্ব প্রধান জ্ঞানী ডিরোহিত হইলেন । বুদ্ধের পরিনির্মাণ লাভ ছুটলে ভিক্ষুগণ ভূতলে পতিত হইয়া ক্রন্দন করিতে লাগিল। অনস্তুর অনিরুদ্ধ আমলাকে বলিলেন, “হে বন্ধো, কুশীনগরে প্রবেশ করিয়া মল্লগণকে বল, ভগবান পরিনিৰ্ব্বাণ লাভ করিয়াছেন।” তদনুসারে আনন্দ কুশীনগরের মধ্যে প্রবেশ করিলেন। তাহার মুথে বুদ্ধের পরি নিৰ্ব্বাণ লাভের সংবাদ শৰণ করিয়া মল্লপুর, মন্ত্রর ষা ও মরগৃহস্থ গণ কেশ বিকিরণ করিয়া বাছতাড়নপুৰ্ব্বক ভূতলে পতিত হইয়া ক্ৰন্দন করিতে লাগিল । অনস্তুর উছারা কুশীনগরের উপবর্গুনে শালবনে গমন করিয়া নৃত্য, গীত, বাদ্য, পুষ্পমালা, গন্ধ প্রভৃতি স্বারা ক্রমান্বয়ে সপ্তদিন বুদ্ধের দেহের পূজা করিল। সপ্তম দিবসে উহারা বুদ্ধের দেহ মুকুটবন্ধন নামক চৈত্যে স্থানা: স্তরিত করিয়া শুদ্ধ বস্ত্রদ্বারা পরিবেষ্টিত করিল ও অনস্তুর উছ শুদ্ধ কাপাসদ্বারা আবুত করিল। এইরূপে যথাক্রমে পাচশত বঞ্জ ও কাপাসন্ধারা দেন্থ অ্যচ্ছাদিত করা হইল । মনস্তুর তৈলপূর্ণ লৌহপাত্রে ঐ দেছ নিক্ষিপ্ত হইল। তদনন্তর উচ্চার সৰ্ব্বগন্ধময় চিতা প্রস্তুত কলিয়া ঐ দেহের দাহ করিতে লাগিল । [ سوا۹ ]. উছারা জুর্মাপথে এক বৃহৎ স্ত,প নিৰ্ম্মাণ করিয়া ৰলিল, ' যে সকল গৃহস্থ ঐ স্থানে মাল্য বা গন্ধ অর্পণ করিবেন, অথবা এখানে আগমন করিয়া স্বীয় চিত্ত স্বপ্রসন্ন করিবেন, তাছাদিগের জীবন সুদীর্ঘ হইবে ও তাছার সুখে বাল করিবেন। এই সময়ে মহাকাগুপ ও • • ভিক্ষু সমস্তিৰীছীয়ে পাব। হইতে কুশী নগরে আগমন করেন । তিনি মুকুটবদ্ধনচৈত্ত্যে উপস্থিত হইয়। ভিনবার বুদ্ধের চিতা প্রদক্ষিণ করিলেন ও অবনত । মন্তকে বুদ্ধের পাদ বদনা করিলেন। অনম্বর চিতা প্ৰজলিত বুদ্ধদেব কম্প-স্ত্ৰ হইরা উঠিল, ক্রমে বুদ্ধের চৰ্ম্ম, মাংস, স্বায়ু প্রভৃতি সমস্তই দগ্ধ হইল। কেবল অস্থি অবশিষ্ট থাকিল । - এই সময়ে মগধরাজ অজাতশত্রু শুনিলেন, বুদ্ধদেৰ কুশীনগরে পরিনিৰ্ব্বাণ লাভ করিয়াছেন। তিনি কুশীনগরে দূত-প্রেরণ করিয়া বলিলেন, "ভগবান ক্ষত্রিয় ছিলেন, আমিও ক্ষত্রিয়, আমিও ভগবানের শরীরের এক অংশ পাইতে পারি। অামি ভগবানের শরীরাংশের উপর মহাস্ত,প নিৰ্ম্মাণ করিব।” ৰৈশালী নগরীর লিচ্ছবিগণ দূত প্রেরণ করিয়া বলিল, “ভগবান ক্ষত্রিয় ছিলেন, আমরাও ক্ষত্রিয়, আমরা ও ভগবানের দেহের অংশ পাইতে পারি, আমরাও শরীরাংশের উপর মহাস্ত,প নিৰ্ম্মাণ করিব।” এইরূপে কপিলবাস্তুর শাক্যগণ, অল্পকল্লের বুলয়গণ, রামগ্রামের কোলিমগণ ও পাবার মল্পগণ সকলেই বুদ্ধের শরীরাংশের প্রার্থনা করিলেন । বেঠদ্বীপের ব্রাহ্মণগণও বুস্কের দেহের এক অংশ প্রাপ্ত হইবার জঙ্গ প্রার্থনা করিলেন । এই সময়ে কুশীনগরের মরগণ বলিল, “ভগবান আমাদিগের গ্রামক্ষেত্রে পরিনিৰ্ব্বাণ লাভ করিয়াছেন, আমরা কাহাকেও ভগবানের দেহের অংশ প্রদাম করিব না।” তখন দ্রোণ নামক ব্রাহ্মণ সকলকে সম্বোধন করিয়া বলিলেন, “হে মহাশয়গণ ! আমার একটী বাক্য শ্রবণ করুন। আমাদের বুদ্ধ ক্ষান্তিবাদী ছিলেন। সেই সাধুপুরুষের দেহভাগ লইয়া আমাদের বিবাদ করা সঙ্গত নহে । আপনারা সকলে সমবেত रु छैन, अभिल्ल नवंशंtग्न cणश् श्रटे ভাগে বিভক্ত করিতেছি। সমস্ত দিকে গু,প সমূহ বিস্তারিত হউক এবং চক্ষুষ্মান লোক সকল উহা দেখিয়া প্রসন্নতা লাভ করুন।** সকলে সন্মত হইলেন,ও ঘ্রোণ ব্রাহ্মণ বুদ্ধের অস্থি অষ্টভাগে বিভক্ত করিয়া দিলেন। জনঞ্জয় প্রোণ বলিলেন, হে মহাশয়গণ, যে কুম্ভে রাখিয়া বুদ্ধের দেহৰিভক্ত করিলাম, ঐ কুম্ভটা আমাকে প্রদান করুন। আমি ঐ কুম্ভের উপর এক গুপ নিৰ্ম্মাণ করিব । 砷 অনন্তুর পিপ্ললিবনীয় মৌর্য্যগণ দুভ প্রেরণপুৰ্ব্বক বলিলেন,

  • छ्वंज़ rछttड! मम 4कहांग्ल९

দশৰীৰং বুদ্ধে আছ ধৰিলে। वरि नाथूबाबू छेसमभूत्रजनून नद्रोहकत्र निद्रा न“णशप्छ । গবোৰ ভোৰে৷ সৰিঙ্গ সমগ গ সম্মোদষানা কয়োখ জটুঠভাগে । रिपोब्रिक१८होड़ निश् श्रृश्रो বছৰলে চৰুণুষঙে পগন্নোড়ি ॥৯