পাতা:বিশ্বকোষ দশম খণ্ড.djvu/১৪৯

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


मेिन्न 4. H দক, বীজপুরষ্ম, মলয়ে গণপতিনারম ; পারসী তুরঞ্জ ও আরবী উৎরক্ত, উৎরেজ বা উতুরিঞ্জি । চট্টগ্রাম, সীতাকুণ্ড, খাসিয়া ও গারে পাহাড়ে নি, বিন চাষেই বঙ্গবুক্ষের স্থায় উৎপন্ন হইয়া থাকে । এটকিনসন বলেন—“ভবার, সরযূনদীর তীর, ও গঙ্গার তীরবর্তী কুমায়ুনপ্রদেশে ইহা স্বভাবতঃ উৎপন্ন হয়। ভারতের যে সমস্ত স্থানের জমি সরস অথচ উষ্ণপ্রধান, সেই সমস্ত স্থানে বেশী পরিমাণে জন্মে। সিসিলী ও কর্দিক দ্বীপে ইহার বিস্তৃত চাষ হয়। ইতালীর অন্তান্ত স্থানে স্পেন, পর্তুগাল, আমেরিকা ও ব্ৰেজিলেও নেবুর চাষ হইয়া থাকে । নি, বৃক্ষের কখন কখন আটা বাহির হয়। ১৮৫ খৃষ্টাবে মসলিপত্তন হইতে মান্দ্রাজ-মহামেলায় উহার আট প্রেরিত হইয়াছিল। নিম্বর ফুলের উত্তম সুগন্ধিতৈল প্রস্তুত করা হইয়া থাকে। হাঙ্গেরীতে যে একপ্রকার জল প্রস্তুত হয়, তাহ এই তৈলের একটা প্রধান উপাদান। উক্ত ফলের খোসা চাপদ্বারা শোষণ করিয়া বকযন্ত্রের সাহায্যে চোরাইলে একপ্রকার গন্ধ দ্রব্য প্রস্থত হয়, উহার নাম সিড্রাট। স্পিরিটের সহিত নিষ্ঠুর তৈল ও তাহাতে নেবুর ফল মিশ্রিত করিলে উক্ত দ্রব্য প্রস্তুত হয় । নির খোস উষ্ণ, শুষ্ক এবং বলকারক। মধ্যের সারাংশ শৈত্যগুণসম্পন্ন ও শুষ্ককারক, বীজ, পাতা ও ফুল উষ্ণ ও শুষ্ককারক। রস শৈত্যোৎপাদক ও সঙ্কোচক । কাহারও মতে এই ফলসেবনে শরীর হইতে বিষাক্ত পদার্থ নির্গত হইয়া যায়। যদি কেহ জীবনে অহিতকর বিষ ভক্ষণ করে, তবে তাহাকে এই নি, একটু অধিক পরিমাণে খাওয়াইলে, পাকস্থলীতে এক প্রকার উত্তেজন জন্মায় এবং বিষ উঠিয়া পড়ে। গর্ভস্থ শিশুর শ্বাসপ্রশ্বাসের দোষ নষ্ট করে। নেবুদ্বারা প্রস্থত চোয়ান ৎস অবসাদক ; নির খোসা আমাশয় পীড়ায় উপকারী । ইহার খোসা হইতে শুষ্ক মিঠাই প্রস্তুত হয়। চিনির সহিত ইহার শাস মাখাইয়া একপ্রকার খাদ্য প্রস্তুত করে । কিন্তু ঐ খোসা কিম্বা শাসপ্রস্তুত মিঠাই সময় সময় একটু তিক্তাস্বাদবিশিষ্ট হয়। এটকিনসন বলেন যে, বনে যে নেবু জন্মে, তাহাতে উত্তম থাট্ট প্রস্তুত হয়। ভারতবর্ষে খাওয়া ও ঔষধের জন্ত কেবল সাইট্রন নিম্বর বেশী ব্যবহার হইয় থাকে। কিন্তু ভারতের পশ্চিম উপকূলে এই বৃক্ষ অতি প্রকাও আকারের ও নানা জাতীয় দেখা যায়। মঙ্গলুরের 'অধিবাসির এই বৃক্ষের উপরের ছাল অল্প তুলিয়া ফেলিয়। তাহার নীচের পুরু মিষ্ট ছাল ভক্ষণ করিয়া থাকে। লক্ষ্মেী, রামপুর, রোহিলখণ্ড এবং অন্যান্ত স্থানের লোক এই ছাল যত্বপূৰ্ব্বক রক্ষা και Χ Oyo ്...-- नििष्, - করে। তিক্ত ও মিষ্ট উভয় প্রকার নিখুত্বই মজ্জা বা শাস শুকাইয়া রাখা হইয়া থাকে। * * এই বৃক্ষের কাষ্ঠের বর্ণ শ্বেত এবং কাঠ বেশী দৃঢ় নছে। কাপড়ের মধ্যে নি, রাখিলে, পোকায় কাপড় কাটিতে পারে না। জমির বা গোড়ানেবুকেই ইংরাজীতে lenon বলে । (Citrus lemonum) foną - go zituzņēm शिभून् श्रृंक হইতে উৎপন্ন। নিম্ব, শব্দ এখনও কাশ্মীরে চলিত থাকার যুরোপীয়ের বলেন যে, প্রাচীন সংস্কৃতবিদেরা উক্ত আরবদেশীয় লিমুন হইতে এই নি, নামকরণ করিয়াছেন। কিন্তু তাল ঠিক বলিয়া বোধ হইল না। নি, হইতে বরং লিমুল্ হইয়াছে। বাঙ্গালায় ইহা গোড়ানেবু, করণীনেবু, বড় নেবু বা জামির, হিন্দীতে জাম্বির, বড় নি, পহাড় নি, পহাড়ী কাগজ, পঞ্জাবে গুগগুল খাট, গুজরাতে মিঠা লিং, মোনি, মহারাষ্ট্রে থোরানি, তামিল পেরিয়া-এছমিছ চম্পজহমু, তৈলঙ্গে পেদ্ধ নিমপদু, মলয়ে অচেরনার, কর্ণাটে দোদা-নিৰে হনু, পারস্তে কলীনবকৃ ও আরবী কলম্বক । রোপের দক্ষিণভাগে ও ভারতবর্ষে এই জাতীয় নির বিস্তৃত চাষ হইয় থাকে। বন্ত নি, ছয় কি না, তাহা আজিও জানা যায় নাই। হিমালয় ও গারো প্রভৃতি পাহাড়ে যে বন্ত নি, দৃষ্ট হয়, তাহ এই নি জাতীয় মহে। সম্ভবতঃ লিমনু নিঃ, অষ্ঠাত পূৰ্ব্বোক্ত নি, অপেক্ষ আধুনিক বৃক্ষ। কত উচ্চে নি, বৃক্ষ জন্মিতে পারে । এই কথা লইয়া একবার তুমুল আন্দোলন হয় ; তাহাতে বিলাতের কৃষিসভা হইতে স্থিরীকৃত হয় যে ৫০০০ ফিটের অধিক উচ্চে এই বৃক্ষ জন্মে না। ম্যাডেন নামক এক ব্যক্তি বলেন যে, আলমোরাবাসির গ্রীষ্মকালে ইহার ফল পাড়িয়া খড়ের মধ্যে রাখিয়া পরিপক করে। কথিত আছে, ডাক্তার রয়েল কুমায়ুনে জামির নেবু বনমধ্যে জন্মিতে দেখিয়াছেন। তাহার কথিত বঙ্গ নিং বিহারিনি, বা পাহাড়ি কাগজী নি, নামে পরিচিত। ডি কনডোলি বলিয়াছেন যে পুরাকালীন গ্রীক ও রোমকের এই লিমন দেখেন নাই। আরবজয়ের পরে যুরোপে লিমনের বিস্তার হয়। বর্তমানকালে প্রায় সৰ্ব্বত্রই ইচ বিস্তৃত হইয়া পড়িয়াছে। এই জাতীয় নিম্বর খোসা পেষণ করিয়া অথবা বকযন্ত্রে চোয়াইয় তাহা হইতে এক প্রকার সুগন্ধি তৈল প্রস্তুত হয়। हेश নিষ্ঠুর *R5 ( Essend Dof lemon) zitzs Trz , সিসিলী, কালেক্রিয়ার অন্তর্গত রেজিও এবং ফ্রান্সের অন্তর্গত মেটােন ও নাইট নামক স্থানে নিয়ূতৈলের বিপুল ব্যবসায় আছে। উহার প্রস্তুত প্রণালী এইরূপ,— ·