পাতা:বিশ্বকোষ দশম খণ্ড.djvu/২৪৫

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


蠍 बैौडि * [ ૨૪૬ ] नैौडि BBBBB BBBBS DBB BBBS BBBBBDD DDS DD DBBB DDDD BB BBBBB BBBB BBBD DDD BBBDS DBBBBB BBBBBS BBDDS DBBBBBDS DBS gB DD D BB uDD BDD DBBBBBS লৈহুদিগের হর্ষেৎপাদন, পীড়া, আপদকাল, পদাণ্ডিজ্ঞান, बांउथबम, श्रङांकानि यनर्लनशूर्तिक भंछन्द्र अखभ्रुद्रष्4 ठग्नসঞ্চারণ, চোয়, উগ্রস্বতাব, অরণ্যবাসী, অগ্নিদাত, বিষপ্রযোজ্ঞ, প্রতিরূপকারী প্রধান ব্যক্তির ভেদ, বৃক্ষচ্ছেদন, মন্ত্ৰাদি প্রভাবে হস্তীদিগের বলছাস, শঙ্কা উৎপাদন, এবং অকুরক্ত ব্যক্তির আরাধন, ও বিশ্বাসজননম্বারা পররাষ্ট্রে পীড়াপ্রদান, সপ্তাঙ্গরাজ্যের হ্রাস, বৃদ্ধি ও সমতা, কাৰ্য্যসামর্থ্য, ফার্য্যের উপায়, রাষ্ট্রবৃদ্ধি, শক্রমধ্যস্থিত মিত্রের সংগ্ৰহ, বলবানের পীড়ন ও বিনাশসাধন, হুল্প ব্যবহার, খলের উন্মুলন, ব্যায়াম, দান, ত্রব্যসংগ্রহ, অভূতব্যক্তির ভরণপোষণ, ভূতব্যক্তির পর্যবেক্ষণ, যথাকালে অর্থদান, ব্যসনে অনাসক্তি, ভূপতির গুণ, সেনাপতির গুণ, ত্রিবর্গের কারণ ও গুণদোষ, অসৎ অভিসন্ধি, অমুগতদিগের ব্যবহারাদির প্রতি শঙ্কা, অনবধানতাপরিহার, অলব্ধবিষয়ের লাভ, লন্ধবস্তুর বৃদ্ধি, প্রবৃদ্ধ ধৰ্ম্ম, অর্থ, কাম এবং বাসন বিলাসের জন্ত দান, মৃগয়া, অক্ষত্রীড়া, সুরাপান ও স্ত্রী-সম্ভোগ, এই চারি প্রকার কামজ বাকৃপারষা, উগ্রত, দণ্ডপাক্ষা, নিগ্রহ, আত্মত্যাগ ও অর্থদূষণ এই ৬ প্রকার ক্ৰোধঞ্জ, মোট দশ প্রকার বাসন ; বিবিধযন্ত্র ও যন্ত্রকার্য, চিত্ত্ববিলোপ, চৈত্যছেদন, অবরোধ, কৃষি প্রভৃতি কার্যের অনুশাসন, নানা প্রকার উপকরণ, যুদ্ধযাত্রা, যুদ্ধেtপায়, পণব, মানব, শখ ও ভেরৗদ্রব্য উপার্জন, লন্ধ রাজ্যে শক্তিস্থাপন, সাধুলোকের পূজা ও বিদ্বান ব্যক্তিদিগের সহিত আত্মীয়ত, দান ও হোমের পরিজ্ঞান, মাঙ্গল্যবস্তুর স্পর্শ, শরীরসংস্কায়, আহার, আস্তিকতা, এক পথ অবলম্বনপূৰ্ব্বক অভু্যদয়লাভ, সত্য মধুর বাক্য, সামাজিক উৎসব, গৃহকাৰ্য্য, চত্বরাদি স্থানের প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষ ব্যবহার, অনুসন্ধান, ত্রান্ধণের অদগুনীয়তা, যুক্তাক্ষুসারে দগুবিধান, অমুজীবিগণের মধ্যে জাতি ও গুণগত পক্ষপাত, পৌরজনের রক্ষাবিধান, স্বাদশ স্লাজমণ্ডলবিষয়ক চিন্তা, দ্বিসপ্ততি প্রকার শারীরিক প্রতিকার, দেশ, জান্তি ও কুলের ধর্শ্ব, ধৰ্ম্মাদি মূলকার্যের প্রণালী, মায়াযোগ, নৌকানিমজ্জনাদি দ্বারা মদীপখাবরোধ, এই সকল ৰিবন্ধের বিস্তুত ৰিবরণ লিখিত হইয়াছে। পদ্মযোলি ব্ৰহ্মা এই নীতিশাস্ত্র প্রণয়ন করিয়া, ইঞ্জ প্রভৃতি দেৰগণকে কহিলেন, আমি ত্রিবর্গসংস্থাপন ও লোকের રનকার সাধনের নিমিত্ত বাক্যের সারস্বরূপ এই নীতিশাস্ত্র উত্তাবন কল্পিকাছি । এই গীতিশাস্ত্র অধ্যয়ন করিলে, নিগ্রহ ও অনুগ্রহ প্রদর্শনপূর্বক লোৰ দক্ষ কৱিৰায় বুদ্ধি জন্মিবে। এই শাস্ত্র Χ ఆఫి ব্ৰহ্মা এইরূপে লক্ষীধ্যায়যুক্ত সীতিশাস্ত্র রচনা করিলে, প্রথমে মহাদেব গ্রহণ করেন। তিনি প্রজাবর্গের আয়ুর অল্পত অবগত হইয়া, এই নীতিশাস্ত্র সংক্ষেপে কীৰ্ত্তন করেন। ইহা দশ সহস্ৰ অধ্যায়ে বিভক্ত এবং বৈশালীখ্য নামে বিখ্যাত । তৎপরে ভগবান ইল ঐ শাস্ত্রকে পঞ্চসহস্ৰ অধ্যায়ে সংক্ষেপে কীৰ্ত্তন করিয়া, বাঞ্ছদত্তক এই আখ্যা প্রদান করেন। অনন্তয় বৃহস্পতি ঐ বাহুদত্তক গ্রন্থ সংক্ষিপ্ত করিয়া তিন সহস্ৰ অধ্যায় কীৰ্ত্তনপূর্বক বার্হস্পত্য নামে প্রচার করেন। পরিশেষে শুক্রাচার্য্য ইহাই লইয়া এক সহস্র অধ্যায়ে সংক্ষেপে কীৰ্ত্তন করেন । এই শুক্রনীতিই অল্পায়ু মানবগণের সহজ পাঠ্য। ইহ অধ্যয়ন করিলে হিতাহিত জ্ঞান জন্মে। (ভারত শান্তি" s৯অঃ) কালিকাপুরাণে নীতির বিষয় এইরূপ লিখিত আছে,রাজা সগর মহামুনি ঔৰ্ব্বকে নীতিসম্বন্ধে বিশেষ বিবরণ জিজ্ঞাসা করিয়া বলিলেন, মুনিবর! আত্মা, পুত্র ও ভাৰ্য্যার প্রতি যে নীতিপ্রয়োগ করা উচিত, তাহ বিশেষরূপে কীৰ্ত্তন করুম। ইহাতে ঔৰ্ব্ব বলিয়াছিলেন, জামি নীতিবিষয় কীৰ্ত্তন করিতেছি, তাহ অবহিতচিত্তে শ্রবণ কর – ‘প্রথমে জ্ঞানবৃদ্ধ, তপোবৃদ্ধ ও বয়োবৃদ্ধ, অস্থয়াবর্জিত, উদারচিত্ত, বিপ্রমণ্ডলীর লেব কর্তব্য। তাহাদিগের নিকট প্রতিদিন শ্রুতিস্কৃতিবিহিত বিধিব্যবস্থ। শ্রবণ করিবে। তাহারা যাহা বলিবেন, রাজা তৎক্ষণাৎ তাহা করিবেন । শরীর এক খালি রথ, পঞ্চ কৰ্ম্মেস্ক্রিয় তাহার ৫টা অশ্ব, আত্মা তাহার আরোহী রণী, জ্ঞান অশ্বের লাগাম, মন তাহার সারথি । অখ সকলকে বিনীত করিতে হইবে, সারথিকে রখীয় যশ করিবে, লাগাম দৃঢ় এবং শরীরের স্থৈৰ্য্য সম্পাদন করা অবশু বিধেয় । রথী দুর্ধিনীত অশ্ব-চালিত রথে আরোহণ করির, অশ্বদিগের ইচ্ছানুসারে গমন করিতে করিতে বিপথে উপনীত হয়, আবার সারথি রথীর অবাধ্য হইয়া ইচ্ছামত অশ্বচালনা করিলে,রর্থী বীর হইলেও তাঁহাকে রিপুয় অধীন করিয়া ফেলে। এইজন্ত বিষয় ভোগ করিবায় সময়, ইঞ্জিয় ও মনকে বশীভূত করিবে। জ্ঞান যাহাঁতে দৃঢ় হয়, ভাহ করা সৰ্ব্বাগ্রে শ্ৰেয়ঃ। জ্ঞানরূপ কশ দৃঢ় হইলে এবং সারথি বশবৰ্ত্ত থাকিলে, ধিনীত অশ্ব ঠিক পথেই চালিত হইয়া থাকে । এইজগু সকলের নিজ নিজ ইঞ্জিয় ও জন যশে য়াথিয় জ্ঞানপথে থাকিয়া আত্মহিতামুষ্ঠান বিধেয় । স্বেচ্ছাক্রমে ভোগ করিাৰে, কিন্তু বিপথে ঘন দিৰে সাঁ । দেখা উচিত বলিয়া দেখিবে, ঔৎসুক্য সহকারে কিছুই দেখিবে না। প্রেতিব্য হইলে শ্ৰষণ করিযে, জতিরিক্ত