পাতা:বিশ্বকোষ দশম খণ্ড.djvu/২৯৬

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


সূত্র এই দ্বীপের দক্ষিণপথে গমনাগমন করে। দক্ষিণস্থ দ্বীপপুঞ্জ অক্ষা” ৩° উঃ ও দ্রাধি” ১৯৯° পূঃ মধ্যে এবং বোর্ণিও দ্বীপের উত্তরপশ্চিমে অবস্থিত। মধ্যস্থ বৃহৎদ্বীপ লম্বে ৩৪ মাইল এবং গ্রন্থে সৰ্ব্বত্রই প্রায় ১৩ মাইল । ইহার চতুর্দিকে অসংখ্য ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র দ্বীপাবলী দৃষ্ট হয়। এই দ্বীপগুলি প্রায়ই পৰ্ব্বতময়। ইহার কোন কোনট এত উচ্চ যে ৪৫ মাইল দূর হইতেও ইহার শিখরদেশ দেথা যায়। এখানে মলয়জাতির বাস। নুতনপল্লী, মাম্রাজ প্রেসিডেন্সীর কণুলজেলার নীকোটকুকুর ১২ মাইল দক্ষিণপশ্চিমে অবস্থিত একটী গ্রাম। এখানে অtঞ্জনেয়ের একটা ভগ্নমন্দির ও ঐ মন্দিরগাত্রে একখানি অস্পষ্ট শিলালিপি আছে। নৃত্ব (ত্রি) নব এব নবত পাশেক। নুতন। “নত ইক্স মুমতয়েন রায়ঃ সংচক্ষে পূর্ব উষসে নলুয়াঃ ।” ( ঋক্ ৭৷১৮২• ) নৃত্বা নূতনাশ্চ (সায়ণ) মূদ্র (পূ:) ছদ্ধতি রোগাদ্যনিষ্টমিতি হুদ-ক পুমোদরাদিত্বাং দীর্ঘঃ। অশ্বথাকার ব্রহ্মদীরবৃক্ষ । [ ব্ৰহ্মদার দেখ। ] , উড়িষ্যার অন্তর্গত পুর জেলার একটা প্রধান নদী। জেলার মধ্যভাগ হইতে উখিত হইয়া অক্ষা ১৯° ৫৩' ৩০" উঃ এবং দ্রাঘি ৮৫° ৩৮' পূৰ্ব্বে দয়ানীতে আসিয়া মিলিয়াছে। পরে দয়ানামে প্রবাহিত হইয়া চিন্ধান্ত্রদে পতিত হইয়াছে। এই নদীতে সময় সময় বন্যা আসিয়া তীরস্থ শস্তাদি নষ্ট করে। ইহার তীরভূমি স্বভাবতঃ উচ্চ এবং জলস্রোত আটকাইবার জষ্ঠ স্থানবিশেষে বাধ দ্বারা সুরক্ষিত। নৃনমূ (অব) স্থ উনয়তীতি উন পরিহণে অমৃ। ১ তর্ক, উহ। ২ অৰ্থনিশ্চয় । “স্বৰ্গদঞ্চ তথা প্রোক্তং জ্ঞানিনাং মোক্ষদং তথা । ন ভবিষ্যতি তনেমনয়াদেবকণ্ঠয়।" ( দেবীভাগ ১১০৩৬) ৩ অবধারণ । ৪ ঝরণ । ৫ বাক্যপুরণ, পাদপূরণার্থ শব্দ । ৬ উৎপ্রেক্ষণ । “মঙ্গে শঙ্কে এবং প্রায়ে লুনিমিত্যেবমাদয়ঃ ” ( সাহিত্যদ’ ১০ পরি) নুপুর (পুং কী ) মুক্তিপ্ত চুবি পুরতি পুর অগ্রগমনে-ক। স্বনামখ্যাত পাদভূষণ, চলিত নেপুর, পর্যায়—পাদাঙ্গদ, তুলাকোটি, মীর, হংসক, পাদকটক, পদাঙ্গদ । ( শব্দরত্না" ) "গুণানপি মৌখর্ষাৎ পাদে লুণ্ঠতি নুপুর । হারস্থ মুকভাবেল কণ্ঠবল্লভতাং গত: ॥" (উদ্ভট ) নূপুরবৎ (ত্রি) নুপুরঃ বিদ্যতেইস্ত, মতুপ মস্ত ধ। ১ নূপুরযুক্ত ( চরণ ) ২ নুপুত্রযুক্তমাত্র। মূর জাৰী) আলোক। জোতি, দেব। যেমন উল [ هجه t মূর उकौन्कद्र t | ইমান অর্থে ধর্শ্বের-জালোক, নুরজহান্ শৰে জগজ্যোতি’ বা জগতের সৌন্দর্য্য এইরূপ বুঝায়। - মূৰ্বজালীশাহ, মুসলমানদিগের স্বকী সম্প্রদায়ের একজন গুরু এবং মীর মমুম্ আলীশাহের পুত্র ও শিষ্য। ইহার পিত দাক্ষিণাত্যবাসী সৈয়দআলী রজী নামক জনৈক মুসলমান কর্তৃক দীক্ষিত হন। পারস্তরাজ করীম্‌ ৰ্থার রাজত্বকালে, ইহার পিতাপুত্রে ভারতবর্ষ পরিত্যাগ করিয়া সিরাজনগরে উপনীত হন ও তথায় আপনাদের অবলম্বিত নূতন মত প্রচার করেন। অল্পদিন মধ্যে প্রায় ত্ৰিশহাজার লোক তাহদের শিষ্যত্ব গ্রহণ করে। নুরআলী প্রথমে ইস্পাহান নগরে ধৰ্ম্মোপদেশ দিবার জন্য বক্তৃত করেন। তাহার বয়স অত্যন্ত অল্প হইলেও তিনি দয়া ও দাক্ষিণ্যে বৃদ্ধের অধিক ছিলেন। মুসলমান ঐতিহাসিকগণ মুক্তকণ্ঠে তাহার এই গুণের কথা লিখিয়া গিয়াছেন। দিন দিন তাহার শিষ্যসংখ্যা বাড়িতে দেখিয়া ইস্পাহানস্থ ধৰ্ম্মযাজকগণ বড়ই উদ্বিগ্ন হইলেন। পরে ষড়যন্ত্র করিয়া সুফী সাম্প্রদায়িক মতের বিরুদ্ধে নিন্দাবাদ করিয়া রাজা আলীমৰ্দ্দন খার নিকট পবিত্র ও সত্য ইস্লাম ধৰ্ম্মস্থাপনের জন্ত আবেদন করেন এবং বলেন যে ইছারাই সত্য-ধৰ্ম্মের উপর লোকের অবস্থা কমাইতেছে। রাজা তাহদের এই পত্র পাইয়। জলিয়া উঠিলেন এবং সত্যধৰ্ম্মের উপর বিশেষ আস্থা প্রদর্শন করিয়া এই আদেশ করেন যে, এরূপ সত্যধৰ্ম্মের নিন্দাবাদ ধৰ্ম্মবিরুদ্ধ এবং রাজনীতিবিরুদ্ধ। সেই মুহূর্তেই তিনি হুকুম দিলেন যে, এই বিরুদ্ধাচারাদিগের নাস ও কর্ণ ছেদন করিয়া দাও। সেই সঙ্গে কাহারও কাহারও অপমানজনক দাড়ি কাটিয়া দিতে অনুমতি করেন। মুর্থ সৈনিকগণ এই আদেশ পাইয়া, কোন বাচ বিচার করিল না, যাহাকে সম্মুখে পাইল তাহার নাক, কাণ ও দাড়ি কাটিয়া দিল। এই সময়ে মুসলমানধৰ্ম্মজগতে অনেক নিরীহ ইসলাম-ধৰ্ম্মসেবীকে এই নিগ্ৰহভোগ করিতে হইয়াছিল। ইনি নানাস্থান ভ্রমণ করিয়া মোসলনগরে ফিরিয়া আসেন। প্রবাদ, বিষভক্ষণে র্তাহার মৃত্যু হয়। ১২১৫ হিজিরায় ঐ নগরে তাহাকে প্যাগম্বর জোনাসের কবরপাশ্বে গোর দেওয়া হয় । এই সময় তাহার প্রায় ষাটহাজার শিষ্য হইয়াছিল। নূরউদ্দীনকরারী, একজন কবি। ১৭৪ হিজরায় গিলান প্রদেশ পারস্তরাজ তহমাম্পের অধিকারে আসিলে, ইহার পিতা মৌলান আবদুর-রঞ্জাবু নিষ্ঠুররূপে নিহত হন। ইনি প্রথমে গিলানের শাসনকৰ্ত্ত আহম্মদ খার অধীনে কৰ্ম্ম করিতেন। পিতার মৃত্যু এবং আহম্মদের রাজচ্যুতি দেখিয়া, তিনি কোয়াজবিনে পলাইয়া যান। পরে ৯৮৩ হিজিরায় তিনি স্বয়ং এবং