পাতা:বিশ্বকোষ দশম খণ্ড.djvu/৩১১

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


--- নূরজাহাম্ [ ৩১১ ] মূৰ্ব্বজাহান তীর ত্যাগ করিতে লাগিলেন। যে ঘরে সম্রাটু দিলা ঘরেও একটা তীর গিয়া পড়িল। মুখলিস্ খী নামে এক ব্যক্তি সম্রাটের জীবনের অঙ্কি দেখিয়া নিজ শরীরার সম্রাটুকে আবৃত করিয়া দাড়াইল । विश्रृंक्रणtद्र झिल्लाहे शैांद्र रुठिश्रृंद्र अष्ट्ररुद्र शङ शहैठा, তিনি নিজেও আহত এবং তাছার অশ্ব মৃতপ্রায় হইয়। পড়িল। তখন জয় অসম্ভব ভাবিয়া, ফিদাই খ ফিরিতে বাধ্য হইলেন এবং নদী পার হইয়া রোহুত দুর্গে ফিরিয়া গেলেন। আসক্খাও লজ্জিত এবং পরাস্ত হইয়া নিজ জায়গীরের অন্তর্গত আটকছুর্গে পলাইয় গেলেন। মহব্বত জয়ী হইয়া আসক্ষু খাকে ধরিবার জন্ত নিজ পুত্র বিহরোজ ও একজন রাজপুত-সেনাপতির অধীনে বিপুল সেনাদল পাঠাইয়া দিলেন। আসল্ক থার সেনাবল ছিল না। তিনি পরাজিত হইলেন এবং সপুত্র ধৃত হইয়া মহব্বতের পক্ষগ্রহণে প্রতিজ্ঞ ও শপথবদ্ধ হইলেন । এই সংবাদ পাইয়া মহব্বত সম্রাটকে সঙ্গে লইয়া আটকে উপস্থিত হইলেন এবং সম্রাটের অনুমতি লইয়া দুর্গে প্রবেশ করিলেন । অসিফর্থ ও তাহার পুত্র প্রহরীবেষ্টিত হইয়া সম্রাট্রসদনে নীত হইলেন। আটকদুর্গ মহব্বতের সেনানীর অধীনে রহিল। সম্রাটু কিছুদিন জলালাবাদে থাকিয়া কাবুলে গমন করেন। অবশু মহব্বতও সঙ্গে ছিলেন এবং তখনও সম্রাটের বন্দিত্ব দূর হয় নাই। (১) আসন্মূখ সপুত্রে বন্দী হইলে, নুরজাহান লাহোর হইতে পলাইতে ছিলেন ; কিন্তু সম্রাটু তাহাকে পত্র লিথিয়া জানাইলেন যে, মহব্বত র্তাহাকে সসন্মানে রাখিয়াছেন এবং মহবতের সহিত আপোসে সমস্ত গোলমাল চুকিয়া গিয়াছে। স্বামী স্বচ্ছদে আছেন জানিয়া নুরজাহান স্বস্থির হইলেন এবং মহব্বত গিয়া তাহার সহিত দেখা করিয়া যথোপযুক্ত সম্মান প্রদর্শন করিলেন। মহব্বতও সম্রাটের পত্রাসুযায়ী সকল বিবাদ মিটিয়া যাইবার কথা নিবেদন করিলেন এবং শেষে নুরজাহানকে সম্রাটের সঙ্গে কাবুলে যাইতে বা তাহার ইচ্ছামত অন্যত্র যাইতে বাধা দিবেন না বলিয়া জানাইলেন । নুরজাহান স্বামী সঙ্গ লইতে আর দ্বিধা করিলেন না, লাহোর ছাড়িয়া স্বামীসকাশে উপস্থিত হইলেন। মহব্বত সৈন্য পাঠাইয়। তাছাকে মহাসন্ত্রমের সহিত অভ্যর্থনা করিলেন । মহব্বত এইরূপে নূরজাহানকে হস্তগত করিয়া তাহার (১) একবালনামা নূরজাহান কধন কোথায় কিরূপে মিলিত হন, ठांशद्र (कान छैrझर्ष नारे, ठएव कांबूणजभ:भत्र मशग्न ठाशएक नजांरौद्र সদিনীন্ধপে বর্ণনা করিয়া গিয়াছেন ; স্বতরাং কাবুলপ্রবেশের পূৰ্ব্বেই जनानांषांएशन हांकेनिष्ठ भिलिब्राहिरणन, 4ब्रण अप्रशांन कब्र पारेठ गांछ। কাৰ্যাবলীর প্রতি দৃষ্ট রাখলেন এবং শীঘ্রই জানিতে পারিলেন যে নূরজাহান্‌ স্বীয় জামাতাকে সিংহাসনে বসাইবার চেষ্টায় আছেন। মহব্বত এই কথা সম্রাটুকে জানাইলেন এবং বলিলেন আবশুক হইলে রাষ্ট্ৰী হয়ত সম্রাটের প্রাণ পৰ্য্যন্ত লইবেন। অতএব এই সময়েই তাছাকে নষ্ট করা উচিত। সম্রাটু বুঝিলেন এবং তৎক্ষণাৎ নুরজাহানের বধাদেশ স্বাক্ষর করিয়া দিলেন। মহব্বত যথাকলে সে আদেশ নুরজাহানকে দেখাইলেন। নুরজাহান্‌ কছিলেন, সম্রাটু এখন বন্দী, তাহার স্বাধীনতা কোথা ! আমি একবার দেখা করিতে চাই। প্রার্থন রক্ষিত হইল। স্বামীকে দেখিয়া নুরজাহানু কাদিয়া ফেলিলেন, যে হন্তে সম্রাটু বধাদেশ লিথিয়াছিলেন, তাহ অশ্রজলে সিক্ত করিলেন। সম্রাটু আকুল হইয়া মহব্বতকে বলিলেন, মহব্বত ! এই একটা স্ত্রীলোককে কি তুমি ছাড়িয়া দিতে পার না ! মহব্বতও মুগ্ধ হইলেন এবং কোন কথা না বলিয় রক্ষিগণকে চলিয়া যাইতে বলিলেন। নুরজাহান্‌ মুক্ত হইলেন। মহব্বতের এই আচরণে র্তাহার বন্ধুর ক্ষুণ্ণ ও বিরক্ত হইলেন এবং বলিলেন, এই দয়ায়, এই ভুলে তাহাকে ঠেকিতে হইবে, বাস্ত্রী কবলে পাইলে তাহার অস্থি চৰ্ব্বণ করিবে। ঘটিলও তাই। নুরজাহানের হৃদয়ে এই অপমান প্রস্তরাঙ্কিত রেখার ন্যায় বসিয়া গেল (১)। বাদশা-বেগম কাবুলে ছয়মাস অবস্থিতি করেন। এই সময়েই ইহার শাহ ইস্মাইলের সহিত মধ্যে মধ্যে সাক্ষাৎ করিতে যাইতেন । মহব্বত থার শিবির বাদশাহী শিবিরের কিছুদূরে ছিল, তিনি মধ্যে মধ্যে বাদশাহের সহিত আসিয়া দেখা করিতেন । নূরজাহানের হৃদয় পূৰ্ব্ব অপমানে দিন দিন জমির যাইতে ছিল। কিসে মহকতকে প্রতিশোধ দিতে পরিবেন, তাহার উপায় উদ্ভাবলে সৰ্ব্বদা চেষ্টা করিতে লাগিলেন। নূরজাহান এই সময় স্বামীর সঙ্গে সৰ্ব্বদা থাকিতেন এবং উদ্ধারের জন্য নানা পরামর্শ দিতেন। সম্রাট কিন্তু সে সকল পরামর্শ শুনিতেন না। তিনি তখন মহব্বতের সহিত মিলিয়া তাহার বিশ্বাস উৎপাদনে চেষ্টা করিতেছিলেন। মহব্বতও সম্রাটের ব্যবহারে দিন দিন তৎসম্বন্ধে নিরুদ্বেগ হইতে ছিলেন। সম্রাটুও তাহা বুৰিয়াছিলেন। তিনি সেই বিশ্বাস একবারে দূরীভূত করিবার জন্য নুরজাহানের সকল পরামর্শ অকপটে মহকতের নিকট প্রকাশ করিতে লাগিলেন ; এমন কি নুরজাহান যে মহব্বতের প্রাণনাশের পরামর্শ করিতেছিলেন ও তাহার ভ্রাতৃপুত্রবধু (শায়েন্ত ধার পত্নী ও শাহ নবাজের কন্যা) স্থবিধ • --> (3) Dow's Hindostan Wol. p. 98.