পাতা:বিশ্বকোষ দশম খণ্ড.djvu/৪১৬

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


নেপোলিয়ন বোনাপার্ট { ৪১৬ ] যুদ্ধ ৰাধিল । ১৮৯৬ খৃষ্টীজের সেপ্টেম্বর মাসে ফরাসীরা ঐবিয়ার প্রবেশ ক্ষয়িল। ছুই একটা খণ্ডযুদ্ধের পর, জেনা নামক । স্থানে উভয়পক্ষে সাক্ষাৎ হইল। কএক ঘণ্টা ভীষণ যুদ্ধের পর প্রাধের পরাজিত হইয়া পলায়ন করিল। সেই দিবসেই প্রবিয়- | নেপোলিয়ন বোনাপার্ট পরাজিত হওয়ার, তিনি সমরোভোগ করিতে ক্ষান্ত ৰইলেন। , ইংরাজের সকলকেই যুদ্ধে উৎসাহ দিতেছিলেন, অর্থসাহায্য করিয়াছিলেন ও যুদ্ধোপকরণ পাঠাইতেছিলেন ; কিন্তু য়ুরোপীর শক্তিপুর পরাজিত হওয়া, তাহাদের সকল আশাই নিৰ্ম্মল রায় ৬৩ হাজার সৈন্ত লইয়া নেপোলিয়নের একজন সেনাপতিকে ঔরস্তাদ নামক স্থানে আক্রমণ করিয়াছিলেন, কিন্তু । ঐ সেনাপতি ২৮ হাজার সৈষ্টমাত্র লইয়া তাহাকে পরাজিত করেণ । অতঃপর ছত্রভঙ্গ প্রষসেনাগণ দলে দলে আত্মসমর্পণ করিতে লাগিল । ফরাসীয় রাজধানী বার্লিন অধিকার कब्रिड । (थाइब्रांख *लांग्रन कब्रिग्न ब्रtसब्र चञाँथन्न ॐश्१ করিলেন। নেপোলিয়ন শত্রুরাজ্য অধিকার করিয়াও শাস্তিস্থাপনে যত্ন করিলেন এবং প্রুবিয়রাজকে তাহার রাজ্যের অধিकांश्* झांफ़िग़ा निद्रा नकि कब्रिtठ कांश्लिन, किरू ऊिनि ब्रसूসম্রাটের জমতে সন্ধিস্থাপন করিতে চাছিলেন না। নেপোলিয়ন ক্রুদ্ধ হইলেন। যুদ্ধ ভিন্ন উপায়ান্তর নাই দেখিয়, নেপোলিয়ন রুধিয়ায় দিকে অগ্রসর হইলেন। রুম্বদিগের সহিত প্রথমে কএকটী থগুযুদ্ধ হয়। অবশেষে ফ্রিড্ৰলtণ্ড নামক স্থানে ক্লাসৈন্ত পরাস্ত ও বিধ্বস্ত হইলে গতান্তর নাই দেখিয়া কৃষ্ণ সম্রাট সন্ধিয় প্রার্থ হইলেন। কৃষসম্রাটের সহিত টিল্লিট্‌ নামক স্থানে নেপোলিয়নের সাক্ষাৎ হইল। নেপোলিয়নকে সাদরে গ্রহণ করিয়া, রঘসম্রাট তাহার সহিত বন্ধুত্বসূত্রে আবদ্ধ হুইলেন । নেপোলিয়ন অপরাপর রাজগণের প্রতিজ্ঞাভঙ্গ দেখিয়, তাছাদের প্রতি বীতশ্রদ্ধ হুইয়াছিলেন, তাছাদের সহিত সন্ধিস্থাপনের মূল্য নাই দেখিয়, রুবসম্রাটকে স্বপক্ষে জানিতে যত্নশীল হইলেন । নেপোলিয়নের ব্যবহার ও কার্য্যে মুগ্ধ হইয়া, রুধগম্রাটু আলেকসাঙ্গার তাহার চিরবন্ধু হইবেন প্রতিজ্ঞ করিলেন । পূৰ্ব্বে পেলেও নামে একটা স্বতন্ত্র রাজ্য ছিল ; কিন্তু কৃষিয়া, অষ্ট্ৰীয় ও প্রমিয়া উক্ত রাজাট ভাগ করিয়া লইয়াছিলেন । এখন নেপোলিয়ন প্ৰষিয়ার অংশে যে ভাগট ছিল সেট পুনরায় স্বাধীন করির দিতে ইচ্ছুক হইলেন। সাক্সনির অধিপত্তিকে রাজোপাধি দিয়া তাহার তত্ত্বাবধারণে এই ক্ষুদ্র প্রদেশটী স্থাপন করিলেন । প্রধিয়া হইতে অপর একভাগ লইয়৷ ওয়েষ্টফেলিয়া নামে একটী রাজ্য সংগঠন করিলেন এবং নিঞ্জ কনিষ্ঠভ্রাতা জিরোমকে সেই রাজ্য প্রদান করিলেন । ইহার কিছুদিন পূর্ষে উtহার অপর এক ভ্রাতা হলগুেল্প সিংহাসনে • जडिदिह श्ब्राझिालन । ধখন কৰেয় সহিত যুদ্ধ চলিতেছিল, তখন অীয়সম্রাট্রুও tर्भांशत्म शूनब्रांड बूरुीष्हांछम कब्रिरङशिगन ; क्रूि क्लब হইল । তাছারা ফরাসীদেশে জলপথে কাহাকেও বাণিজ্যার্থ যাইতে দিবেন না, এরূপ অভিপ্রায় প্রকাশ করিলে নেপোলিয়নও নিজরাজ্যে ও মিত্ররাজ্যে ইংরাজদিগের বাণিজ্যত্নৰ্য পাইলে, অধিকার করিবার জন্য আপন কৰ্ম্মচারীদিগকে আদেশ করিলেন। বান্টিকসাগর হইতে ভূমধ্যসাগরের কূল পৰ্য্যস্ত ইংরাজের পণ্যদ্রব্য অনিয়ন করা রহিত হইল। রুযসম্রাষ্ট্র ও নেপোলিয়ন উভয়ের শত্রুকে অতঃপর নিজশক্র জ্ঞান করিবেন, এরূপ প্রতিজ্ঞ করিলেন । এখন যুরোপের মধ্যে ক্ষুদ্র পর্তুগাল ভিন্ন ইংরাজের আর মির রহিল না। সকলেই নেপোলিয়নের বশীভূত হইল। বিশেষতঃ রুযসম্রাটের বন্ধুত্বলাভে নেপোলিয়ন এখন অীপনাকে বলীয়ু মনে করিতে লাগিলেন। রম্বসম্রাটু আলেকসান্দার ইংরাজরাজকে সন্ধি করিতে অনুরোধ করিলেন । কিন্তু ইংরাজের তাহাতে স্বীকৃত না হইয়া বরং গৰ্ব্বিতভাবে উত্তর করিলেন। কাজেই তিনিও ইংরাজের প্রতিকূলতাচরণে প্রবৃত্ত হইলেন। অতঃপর পর্তুগালরাজকে স্বপক্ষে আনিবার জন্স নেপোলিয়ন চেষ্টা করিতে লাগিলেন ; কিন্তু যদি নেপোলিয়ন শাস্তস্বভাব প্রমিয়াপতিকে অধিকাংশ রাজা ছাড়িয়া দিতেন, তাহা হইলে সম্ভবতঃ তাহার কৃতজ্ঞতা ও চিরবন্ধুত্বলাভে সমর্থ হইতেন। অথবা যখন প্রযিয়ার রাণী নেপোলিয়নের নিকট আসিয়া মাগডিবর্গ তুর্গটমাত্র প্রার্থনা করিয়াছিলেন, তথন তাহার সে প্রার্থনা পূর্ণ করিলেও বোধ হয় প্রধপতিকে মিত্ৰুতাপাশে বন্ধ রাখিতে পারিতেন ; কিন্তু রাণীকে যুদ্ধের মুলীভূত কারণ জানিয়া নেপোলিয়ন উদারতা দেখান নাই। কাজেই প্রমিয়াধিপতি অস্তরে নেপোলিয়নের প্রতি বিরক্ত হইল্লাছিলেন। এদিকে পর্তুগালরাজ নেপোলিয়নের কথামত ইংরাজের পক্ষ ত্যাগ না করায়, তাহার রাজ্য ফরাসীরা জাফ্লেমণ করিয়া অধিকার করিল। ১৮৯৭ খৃষ্টাব্দের শেষে এই ঘটনা ঘটে । এই সময়ে স্পেনদেশীয় রাজপরিবার মধ্যে গৃহৰিবাদের স্বত্রপাত হয়। রাজা চার্লস রাজকার্ধে মনোযোগ করিতেন না। রাণীর প্রিয়পাত্রের রাজকাৰ্য্য চালাইত। প্রধানমন্ত্রী ইচ্ছামত চলিতে পারিতেন মা। কাজেই বিশৃঙ্খল উপস্থিত হইল। রাজপুত্র ফার্ডিনাও পিতাকে বলপূৰ্ব্বক রাজচ্যুত করিতে মনস্থ কল্পিয়, মাতার কুৎসা রটনা করিতে লাগিলেন এবং স্থানীয় প্রিয়পাজকে বিশেষ লাঞ্ছিত ক্ষদিলেন। রাজকুমার