পাতা:বিশ্বকোষ দশম খণ্ড.djvu/৫০৫

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


___#if (हैडिशन) হয়, বাৎস্তায়ন ও চাণক্য একই ব্যক্তি ছিলেন, কিন্তু নিঃসন্দেছে কিছু বলিতে পায় যায় না। বৈশেষিকহুত্রের ভাষ্যকার প্রশস্তপাদ অনেক স্বলে বৌদ্ধमठ निम्नांक्प्र१ फब्रिग्रांtझ्न, किरू यां९शांब्रम ¢कथां७ cदोरुপ্রসঙ্গ উত্থাপন করেন নাই। তাহার সময়ে যুদ্ধমত ৰিশেষরূপে প্রচলিত থাকিলে অপরাপর ব্রাহ্মণভাষ্যকারদিগের ন্যায় তিনিও বৌদ্ধমত খণ্ডনের চেষ্টা করিতেন। ইহাভে বোধ হয়, বাৎস্তায়নের সময়ে বৌদ্ধমত বিশেষরূপে প্রচলিত হয় নাই । এতদ্বারাও বাৎস্তায়নকে অতি প্রাচীনকালের লোক কলিয়া গ্রহণ করিভে পারি। বিভিন্ন সময়ের নৈয়ায়িকগ্রন্থসমূহ পাঠ করিয়া এখন আমরা ন্যায়দর্শনকে কএকটী স্তরে বিভক্ত করিতে পারি। ১ম স্থত্রযুগ । ২য় ভাষ্যযুগ। ৩য় সংঘর্ষ-যুগ। ৪র্থ সমখন ক্লা বাtথাযুগ । ৫ম নব্য ন্যায়ের আবির্ভাব। t ১ম যুগে অর্থাৎ স্বত্রযুগে গৌতমের মূল গ্রন্থ প্রকাশিত হয়। প্রথমে তাছার মতামুবর্তী শিষ্যসম্প্রদায়ই কেবল সুত্রলোচনা করিতেন। ঐ সময়ে কেবল তাহার শিষ্যসমূহের মধ্যে শিষ্যপরম্পরার অধীত বা আলোচিত হইত। তখন স্বত্রসমূহ নৈরায়িকগণের কণ্ঠস্থ ছিল, লিপিবদ্ধ হয় নাই। তৎপরে | বংশতাব্দী অতীত হইলে শিষ্যপরম্পর মধ্যে প্রকৃত পাঠ s' शाश शहेश cशानण्याश्र श्रीब्रञ्च श्हेन, उथनहे नाश्क লিপিবদ্ধ করিবার প্রয়োজন হইয়াছিল। পাখনাথ, মহাধীর ভৃতি ধৰ্ম্মবীরগণের মতানুসারী নৈয়ায়িকগণ ন্যায়সুত্রের অর্থ লষ্টয়া স্ব স্ব স্বাধীন মত এমন কি বেদবিরুদ্ধমত প্রকাশ করিতে লাগিলেন, তাহীতে ব্ৰাহ্মণাধৰ্ম্মাবলম্বী নৈরায়িকগণের হৃদয়ে আঘাত লাগিল । এখন গুীয়সুত্রের ব্যাখ্যা করিয়া সাধারণকে প্রকৃত সুত্রার্থ বুঝাইবার প্রয়োজন হইল। এই সময়ে ভাষ্যযুগের প্রবর্তন । বাৎস্তায়ন এই যুগে স্বর্যাস্বরূপ প্রাদুর্ভূত হইয় আপনার অসাধারণ যুক্তি ও বিদ্যাপ্রভাবে ভাব্য প্রকাশ করিলেন। তাহার সুবিচারপূর্ণ প্রমাণ-শাস্ত্রের আলোচনা করিলে বিস্মিত হইতে হয় । তাহার সুবিচারপ্রণালী পর্য্যালোচনা করিলে তাহাকে আমরা ভারতের আরিঃটল বলিয়া গ্রহণ করিতে পারি। খৃষ্টপূৰ্ব্ব ৫ম হইতে খৃষ্টপূৰ্ব্ব ২য় শতাব্দী পর্যন্ত ভাষ্য-যুগ অর্থাৎ এই সময় হিন্দুনৈয়ায়িকগণ স্বাধীনভাবে স্থায়ুশাস্ত্রের আলোচনা করিতেছিলেন । সম্রাট অশোকের প্রাধান্তলাভের সছিভ বৌদ্ধধর্শও বিশেষ প্রবল হইয়া উঠিল। হিন্দুদার্শনিকগণ এখন চাপা পড়িলেন। এখন হইতে বৌদ্ধগণ বৈশেষিক ও স্তায়ের বিশেষ আদর করিতে লাগিলেন এই সময় যে সমস্ত বৌদ্ধ গ্রন্থ প্রচারিত হইয়াছিল, | Χ. ుఫ్చిల s &ss 1 मंrॉम्न (हैडिशन } তাছাতে ভাৱ ৰৈপেথিকের পূর্বপ্রভাব লক্ষিত হয়। স্কশ্বন্ধলে জন্মগ্রহণ ও নানাবিধ ঘোমিত্রমণ, জন্মস্থঃখভোগ, কৰ্ম্মাম্বলায়ে वर्भ व नब्रररू भिद्रा शूद्रकांद्र या न७थक्षि, अद्मभरभनिख्ि অর্থাৎ মুক্তিই হুঃখ হইতে পরিত্রাণের উপায়, জ্ঞামোদয় হইলে भूखिनांड qवश् धूखिाहे श्रृंक्रम नूक्रवांथ हेठाॉनि छांग्र-टैबरलर्षि८कब्र মত বৌদ্ধশাস্ত্রে দৃষ্ট হয়। অধিক সম্ভব, ন্যায়-বৈশেষিক শাস্ত্র शहेएउहे cरोक*१ ७ङ भठराणि अश्१ रुद्रिग्ना भक्रिबम । uके रुांब्रtभहै ८दांश श्ध्न भग्नदरुिंराष्णि नग्नाग्निक ७ १षtभश्किश्नन অপরাপর ছিলুদার্শনিক ও ধৰ্ম্মশাস্ত্রবিদগণের নিকট নিতান্ত হেয় বলিয়া গণ্য হইয়াছিলেন । এমন কি মেধাতিথি মজুজ্ঞায্যে লৈয়ারিক ও বৈশেধিকদিগকে বেদবিরুদ্ধবাদী লোকায়ত, বৌদ্ধ, জৈন প্রভৃতির সহিত সমান গণ্য করিতে কুষ্ঠিত হন নাই। খৃষ্ট পূর্ব ১ম শতাব্দী হইতে স্পষ্ট সংঘর্ষযুগের স্বত্রপাত। এই সময়ে প্রসিদ্ধ ধৌদ্ধাচাৰ্য্য নাগাৰ্জুন ‘ন্যায়দ্বায়তারকশাস্ত্র’ প্রকাশ করেন। ইহারই কিছুকাল পরে স্তাদ্বাদবিৎ প্রসিদ্ধ দিগম্বরাচার্য সমস্তভদ্র আপ্তমীমাংসায় ন্যায়শাস্ত্রের খণ্ডন করেন। তাহার শতাব্দী পরে জৈন তর্কশাস্ত্রখিৎ অকলঙ্ক ‘নায়ি-বিনিশ্চয়' বা ‘প্রমাণ-বিনিশ্চয়’ গ্রন্থ প্রকাশ করিয়া জৈনদিগের মধ্যে এক অভিনব ন্যায়যুগ প্রবর্তন করিলেন। আকলঙ্কের পর বৌদ্ধসমাজে নাগাঞ্জনরচিত ন্যায়দ্বারতারকশাস্ত্রের ধৰ্ম্মপালকৃত ব্যাখ্যা, বসুবন্ধু সম্পাদিত সভ্যভদ্রের ন্যায়ামুসারস্বত্র এবং দিভূগোচার্যের প্রমাণ-সমুচ্চয় প্রকাশিত হইয়া বৌদ্ধদিগের মধ্যে ন্যায় প্রাধান্য স্থাপিত হয়। ঐ সকল । ন্যারগ্রন্থে বিশেষরূপে বেদবিরুদ্ধমত সকল প্রকাশিত হইয়াছিল । উক্ত গ্রন্থসমূহের মধ্যে দিড়াগাচার্যের প্রমাণসমুচ্চয়' গ্রন্থই প্রধান নাtয়গ্রন্থ বলিয়া বৌদ্ধসমাজে গৃহীত হইয়াছিল। তিনি ন্যায়ের ১৬ পদার্থের মধ্যে কেবল "প্রমাণ স্বীকার করিয়া স্বীয় গ্রন্থে প্রমাণ সম্বন্ধেই বিস্তৃত আলোচনা করিয়াছেন। এই সময়ে দিড়াগাচার্যের বিধম দংশন হইতে হিন্দুন্যtয়কে রক্ষা করিবার জন্য উদ্যোতকরাচাৰ্য্য 'ন্যায়ৰাপ্তিক’ প্রচার BBB S BBBBBB DDDD DDBBB gDtBB অসহবোধ করিয়াছিলেন। অবিলম্বেই অসঙ্গের অন্যতম শিষ্য ধৰ্ম্মকীৰ্ত্তি প্রমাণসমুচ্চয়ের উপর গ্ৰনণবাষ্টিক লিখিয়া উদ্যোতকরাচার্ধ্যের মত খগুন করিলেন । ধৰ্ম্মকীর্মি ‘ন্যায়বিন্দু নামেও একখানি স্বতন্ত্র ন্যায়গ্ৰন্থ লিখিয়া গিয়াছেন । বিনীতদেব সৰ্ব্বপ্রথম তাহার টীকা লেখেন। প্রমাণবাড়িকের খগুন করিবার জন্য তখন কোন হিন্দুনৈয়ায়িক বর্তমান ছিলেন না। খৃষ্টীয় চতুর্থ শতাব্দীতে সুবিখ্যাত মীমাংসক প্রভাকর ও কুয়ারিলভট্ট প্রাদুর্ভূত হইয়া দিড়াগ, ধৰ্ম্মকীৰ্ত্তি, TTTTTT-TT.